ব্রেকিং:
‘প্রাণ-মিল্কভিটা-আড়ংসহ পাস্তুরিত সব দুধই মানহীন’ বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে লিভার প্রতিস্থাপনে সফল অস্ত্রোপচার ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য শূন্যের কোটায় আসবে কালো সোনা সাদা করে হাজার কোটি টাকা পাচ্ছে সরকার মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশনে আপত্তি, নার্সকে পেটাল ফার্মেসির লোক ২৮ জুন বসবে পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ; ৯৯৯-এ ফোন করে শাহান মিয়া বাঁচালো ৩০০ প্রাণ সততার পুরস্কার পেলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের ১৫ কর্মকর্তা দুদক কার্যালয়েই হবে দুর্নীতির মামলা ভারতের চেয়ে বাংলাদেশে হজ পালনের ব্যয় কম দিনের আলোয় বৃদ্ধার টাকা ভুল হাতে দিলো ব্যাংক ‘হার কিসি কো, নেহি মিলতা’ গেয়েই গোল্ডেন গিটার মিললো নোবেলের প্রথম দিনে বৈধ হ‌লো ২৫ কোটি টাকার স্বর্ণ ট্রেন দুর্ঘটনা তদন্তে চার সদস্যের কমিটি বাংলাদেশকে জিম্বাবুয়ের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান ক্রিকেটানুরাগীদের আওয়ামী লীগই দেশকে এগিয়ে নিচ্ছে: শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যূনতম বয়স নির্ধারণে হাইকোর্টের রায়ই বহাল জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রথম দুই নারী সামরিক পাইলট (ভিডিও) কমবে বৃষ্টির পরিমান, বাড়বে ভ্যাপসা গরম সজীব ওয়াজেদ জয় গুচ্ছগ্রামে আশ্রয় পেল ১৪০ পরিবার

বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১১ ১৪২৬   ২২ শাওয়াল ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
১৯

অনলাইনে ভিক্ষা’ করে ১৭ দিনে আয় ৪২ লাখ!

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেকে ‘স্বামী পরিত্যক্তা’ দাবি করে দুবাইয়ের মানুষের সহমর্মিতাকে পুঁজি করে ১৭ দিনে এক লাখ ৮৪ হাজার দিরহাম (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪২ লাখ টাকারও বেশি) হাতিয়ে নিয়েছেন এক নারী। খবর আরব-আমিরাত ভিত্তিক গণমাধ্যম খালিজ টাইমস। 

দুবাই পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের প্রধান জামাল সালেম আল জাল্লাফ জানিয়েছেন, নিজেকে বিদেশি নাগরিক এবং স্বামী পরিত্যক্তা পরিচয় দিয়ে ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম এবং টুইটারের মাধ্যমে সন্তানদের ভরণ-পোষণের জন্য সহায়তা চান তিনি। কিন্তু, তার স্বামীই স্ত্রীর এমন প্রতারণার বিষয়ে অভিযোগ করেন দুবাই পুলিশের কাছে।

তদন্তে জানা গেছে, ওই নারীর দাবি সম্পূর্ণ অসত্য এবং তিনি স্বামীর সঙ্গেই বসবাস করে আসছিলেন। লোকজনের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য নিজের সন্তানদের ছবিও অনলাইনে প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, অনলাইনে সন্তানদের ছবি দিয়ে সহায়তা চাওয়ার বিষয়টি কয়েকজন আত্মীয়ের মাধ্যমে জানতে পারেন ওই নারীর স্বামী।

দুবাইয়ের আইন অনুযায়ী অনলাইনে ভিক্ষাবৃত্তি এক ধরনের অপরাধ। তবে, অসুস্থতা কিংবা দারিদ্র্যের দোহাই দিয়ে দেশটিতে অনেকেই এ ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছেন। এ ধরনের অপরাধে জেল কিংবা জরিমানা অথবা উভয় শাস্তিরই বিধান রয়েছে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর