ব্রেকিং:
পেঁয়াজের মাধ্যমে ছড়াচ্ছে ব্যাকটেরিয়া, আক্রান্ত ৪২ দেশ বন্যায় এ পর্যন্ত ১০ হাজার ৪৮ মেট্রিক টন চাল বিতরণ হাওরে ট্রলারডুবি, ১৭ জনের মরদেহ উদ্ধার মৎস্য খাতে কোনো দুর্নীতি বরদাশত করা হবে না : শ ম রেজাউল `পাট খাতে যুগোপযোগী সংস্কার করা হচ্ছে` জুলাইয়ে রপ্তানি আয় বেড়েছে ১৩.৩৯ শতাংশ সব কাজ ডিজিটালি করার পথ খুলছে দেশে একদিনে আরো ৩৩ মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ২৬৫৪ বৈধ পথে বাড়ছে রেমিট্যান্স হুন্ডির দিন শেষ ঈদ ঘিরে বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ে রেকর্ড মেজর সিনহার মাকে ফোন, বিচারের আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর একাদশ শ্রেণির ভর্তি আবেদন রোববার থেকে শুরু করোনায় স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য আবাসনে ছয় প্রতিষ্ঠান লেবাননে বিস্ফোরণে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ১৯ সদস্য আহত ঝড়বৃষ্টি নিয়ে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস লেবাননের বৈরুতে যে কারণে ঘটল বিস্ফোরণ গোপালগঞ্জে স্কুলে ও রাস্তায় আশ্রয় নিয়েছে ৫ শতাধিক বানভাসি চীনা ভ্যাকসিনের ফলাফল সন্তোষজনক হলে বাংলাদেশে ট্রায়াল শনিবার থেকে চামড়া কিনবেন ট্যানারি মালিকরা আন্তর্জাতিক বাজারে ২ শতাংশ বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম
  • বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২২ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১১৫

আমেরিকা-কানাডায় সাড়া জাগালো বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর উদ্ভাবনী

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৪ জুলাই ২০২০  

চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডা. মোহাম্মদ মুনির হোসেন খান সুস্থ জীবনযাপনের অসাধারণ পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন। সাধারণ কিছু খাবারের মাধ্যমেই মানবদেহে রক্তের প্রোটিন (আলফা-২ ম্যাক্রোগ্লোবুনিল- এ২এম) স্বাভাবিক মাত্রায় বজায় রেখে সুস্থ জীবন যাপন করা যায়।

এরইমধ্যে আমেরিকা ও কানাডার বিভিন্ন শহরে তার পদ্ধতি গ্রহণ করে অনেকেই উপকৃত হয়েছেন। তবে খেতে হবে কাঁচা। কোনো অবস্থাতেই তাপ ব্যবহার করা যাবে না।

তার উদ্ভাবিত উপকারী খাবারগুলো হলো - ১ কাপ দই, কুচি করে কাটা ২টি কাঁচা রসুনের কোয়া, কুচি করে কাটা কাঁচা আদা ১ চামচ, কালোজিরা ১ চামচ, ৬টি পুদিনা পাতা কুচি করে কাটা, আধা চামচ মধু, আধা চামচ লবঙ্গের গুড়া, আধা চামচ হলুদের গুড়া, যেকোনো বেরি জাতীয় ফল ৬টা, আঙ্গুর ৬টা,  খেজুর একটা, ডুমুর একটা কুচি করে কাটা, ২টি লেবুর রস ও একটা ডিম। 

উপদেশ: পানি ৩ লিটার (২৪ ঘণ্টায় ), ঘুম- ৭-৮ ঘণ্টা (২৪ ঘণ্টায়), ধূমপান বা যেকোনো নেশা জাতীয় পদার্থ বর্জন করতে হবে।

দীর্ঘ ৩০ বছরের বৈজ্ঞানিক গবেষণায় ডা. মোহাম্মদ মুনির হোসেন খান দেখিয়েছেন, মানবদেহে রক্তে এই এ২এম প্রোটিনের পরিমাণ কম থাকলে শরীরে রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে। কারণ বেশিরভাগ অসুখ শুরু হয় প্রায় ৫০০ ধরনের রাসায়নিক পদার্থের (প্রোটিয়াস) কোনো না কোনো একটি বা একাধিক প্রোটিয়াসের (অতিরিক্ত পরিমাণ) বিষক্রিয়ার কারণে। আর এই 'এ২এম' এসব অতিরিক্ত প্রোটিয়াস আমাদের অজান্তেই সর্বক্ষণ শরীর থেকে প্রতিনিয়ত বের করে দিয়ে আমাদেরকে সুস্থ রাখে। প্রাণিজগতের সব প্রাণির মধ্যে একটি জীবনরক্ষাকারী প্রোটিন হিসাবে সৃষ্টিকর্তা এই এ২এম দিয়েছেন।

ডা. মোহাম্মদ মুনির হোসেন খানের উদ্ভাবিত কিছু সাধারণ এবং সহজলভ্য খাদ্যতালিকা অনুসরণ করে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রায় ১৫০ জন (৩০-৮২ বছর) গত ৫ বছর ধরে সম্পূর্ণ সুস্থভাবে জীবনযাপন করছেন। এমনকি এদের কারোরই কোনো রকম শারীরিক সমস্যা জ্বর, সর্দি বা কাশিও হয়নি! অথচ ৫ বছর আগেও এদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষেরই কোনো না কোনো শারীরিক অসুস্থতা ছিল।

প্রবাসী চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডা. মোহাম্মদ মুনির হোসন খান, স্যার সলিমুললাহ মেডিকেল কলেজ থেকে ১৯৮৩ সালে এমবিবিএস পাাস করে জাপানের কুমামতো ইউনিভার্সিটি অফ মেডিসিন থেকে ১৯৯৩ সালে পিএইচডি (ইমমিউনোলজি এবং মলিকিউলার প্যাথোলজি) ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে পোস্ট ডক্টরেট ফেলোশিপ নিয়ে ইউনাইটেড স্টেট অফ আমেরিকা ইউনিভার্সিটি অফ পেনসিলভানিয়া এবং টেম্পল ইউনিভার্সিটিতে যৌথ প্রজেক্টে কর্মরত ছিলেন।

পরবর্তীতে তিনি ইউনিভার্সিটি অফ পেনসিলভানিয়া এবং চিলড্রেন হসপিটাল অফ ফিলাডেলফিয়ায় ফ্যাকাল্টি পজিশন নিয়ে কর্মরত ছিলেন। এ পর্যন্ত তিনি ৪৪টি পিয়ার রিভিউ জার্নালে পাবলিকেশন এবং তিনটি বই লিখেছেন। বর্তমানে তিনি আমেরিকায় অবসর জীবনযাপন করছেন।

কুমিল্লার ধ্বনি
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর