ব্রেকিং:
এলপিএলের নিলামে পাঁচ টাইগার ক্রিকেটার, আছেন সাকিবও দেশে একদিনে ২২ মৃত্যু, শনাক্ত দেড় হাজারের বেশি ‘পাত্র চাই’ বিজ্ঞাপনে ৩০ কোটি টাকা আত্মসাত করল সাদিয়া নারায়ণগঞ্জে মসজিদে আবারো বিস্ফোরণ, নিহত ১ এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে যা জানালো আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণে আসছে কঠোর আইন প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগকে সম্মাননা প্রদ নাইজেরিয়ায় ধর্ষককে খোজাকরণ আইন পাস চাকরির বয়স ১০ বছর হলে উচ্চতর গ্রেডে বাধা নেই অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রির অপরাধে ব্যবসায়ীদের জরিমানা আশুগঞ্জ মোকামে ধান সংকট, লোকসানে চাতাল মালিকরা বাসে তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ, অভিযুক্ত চালক-হেলপার গ্রেফতার রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘের ভূমিকায় হতাশ বাংলাদেশ বাড়লো একাদশে ভর্তির সময় সাত দেশ থেকে আসছে ৭৯ হাজার টন পেঁয়াজ বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাড়ে ৯ লাখ ছাড়াল আখাউড়া স্থলবন্দরে বিএসএফ মহাপরিচালক মাদকের বড় চালানসহ বাবা ছেলে আটক দূর্গাপূজায় থাকছে না বর্ণিল আলোকসজ্জা স্বামী হত্যায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সুফিয়া গ্রেপ্তার
  • শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৪ ১৪২৭

  • || ৩০ মুহররম ১৪৪২

৪১

ইউটিউবে মাছ চাষের ভিডিও দেখে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন উজ্জ্বল

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ইউটিউবে বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষের ভিডিও দেখে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার তরুণ উদ্যোক্তা মো. উজ্জ্বল মিয়া। 

তিনি চাকরি ছেড়ে দিয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প জায়গায় বায়োফ্লক প্রদ্ধতিতে মাছ চাষ শুরু করেন এই তরুণ উদ্যোক্তা। 

পৌর শহরের কলেজ পাড়া (টিএন্ডটি) সংলগ্ন এলাকার নিজ বাড়ি সংলগ্ন একটি জায়গা ভাড়া নিয়ে পরীক্ষামূলক নির্দিষ্ট কলাকৌশল আর প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়ে ট্যাংকিতে মাছ চাষ করেন। কম শ্রমে স্বল্প জায়গায় মাছ চাষ করে অধিক লাভ হওয়া যায় তিনি সে চেষ্টা করছেন। 

তরুণ উদ্যোক্তা উজ্জ্বল ওই এলাকার মো. আনু মিয়ার ছেলে। তিন ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। দারিদ্রতার কারণে লেখাপড়া বেশি দূর করতে পারেননি। পরিবারে অভাব অনটন থাকায় প্রায় ৮ বছর আগে চট্রগ্রামে একটি গামের্ন্টেসে চাকরি নেন। সেখানে বেশ কয়েক বছর কাজ করার পর চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসেন।  

এক পর্যায়ে ইউটিউব চ্যানেল বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষের ভিডিও সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন। এ বিষয়ে রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও ঢাকায় তিনি প্রশিক্ষণ নেন। নিজ বাড়ি সংলগ্ন একটি জায়গা ভাড়া নিয়ে ১৫ হাজার লিটার পানি ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গোল আকৃতির একটি ট্যাংকে তৈরি করেন। যা তৈরি করতে ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। এরপর দেশীয় প্রজাতির শিং, কৈ মাছের ১৭ কেজি পোনা দিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। ওইসব মাছের পোনা ছিল শূন্য থেকে ১৫ দিনের। ১ কেজিতে পোনা ছিল ২ হাজার। তার চৌবাচ্চায় ৩৪ হাজার পোনা। কৈ মাছের পোনা ১৮ হাজার  ও শিং ৭ হাজার ৬ শত টাকায় কেনা হয়। খাবারসহ আনুসঙ্গিক খরচ হয় আরো ১২ হাজার টাকা। 

গত ২ মাসে বেড়ে ৬০- ৬৫টি মাছ ১ কেজি হয়। মাছগুলো স্বল্প সময়ের মধ্যে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করা হবে। মাছের যে অবস্থা তিনি আশা করছেন ১ লাখ ৯০ হাজার থেকে ২ লাখ টাকা বিক্রি করা যাবে। তার মৎস্য চাষের সফলতা দেখে এলাকার অনেকেই এগিয়ে আসছেন। 

তিনি বলেন, এটি এমন একটি পদ্ধতি, যেখানে অল্প জায়গায় অধিকসংখ্যক মাছ চাষ করা যায়। এ পদ্ধতিতে স্বল্প পুজিতে কম সময়ে বিপুলসংখ্যক মাছ উৎপাদন সম্ভব। এ পদ্ধতি মাছ চাষ করতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। পরীক্ষামূলক সাফল্য পাওয়ায় আরো দুটি চৌবাচ্চা করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ট্যাংকে মাছ চাষের বেশ কয়েকটি পদ্ধতি চালু রয়েছে তার মধ্যে রিসাইক্লিং অ্যাকুয়াফিনিক সিস্টেম বা সংক্ষেপে রাস, আলাস, বায়োফ্লক। সবগুলোর মধ্যে সহজ ও লাভজনক হচ্ছে বায়োফ্লক পদ্ধতি। এ পদ্ধতিতে চাষে মাছের খাবার খরচ কম হয়। জৈব বর্জ্যের পুষ্টি থেকে পুনঃব্যবহার যোগ্য খাবার তৈরি করা হয়। 

পানিতে ব্যাকটেরিয়া, অণুজীব ও শৈবালের সমম্বয়ে পাতলা একটি আস্তরণ তৈরি হয়। যা পানিকে ফিল্টার করে। পানি থেকে নাইট্রোজেন জাতীয় ক্ষতিকর উপাদানগুলি শোষণ করে প্রোটিন সমৃদ্ধ যে উপাদানগুলো থাকে সেগুলো মাছ খাবার হিসেবে গ্রহণ করে। 

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আব্দুস সালাম বলেন, বায়োফ্লক পদ্ধতির মাছ চাষে দিন দিন আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে। আগ্রহীদের সব ধরনের সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে। 

কুমিল্লার ধ্বনি
সারাবাংলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর