ব্রেকিং:
বাংলাদেশে গুগল ম্যাপে যুক্ত হলো নতুন ফিচার বন্যা মোকাবিলায় সেনাবাহিনী প্রস্তুত: সেনাপ্রধান গাপটিলের সেই থ্রো নিয়ে কথা বলল আইসিসি বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি বাড়বে কলকাতায়: এফবিসিসিআই বিজেপি ক্ষমতায় আসার পরই ভারতে মুসলিম নিপীড়ন বেড়েছে বাংলাদেশি বিজ্ঞানীদের গুতুম মাছের কৃত্রিম প্রজনন কৌশল উদ্ভাবন এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ সেনাবাহিনী-বিজিবির চেষ্টায় বান্দরবানের সঙ্গে যোগাযোগ স্বাভাবিক ‘সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে’ কোরবানির ঈদ পর্যন্ত বিদেশি গরু প্রবেশ নিষিদ্ধ এরশাদের আসন শূন্য ঘোষণা, তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন কথাবার্তায় সন্দেহ থেকে গ্রেফতার হলো মিন্নি ৩৬ কোটি টাকার ওষুধ ধ্বংস, জরিমানা দেড় কোটি একনেকে ৫ হাজার কোটি টাকার ৮ প্রকল্প অনুমোদন ব্যাংক কর্মকর্তাকে ধর্ষণের পর হত্যা, পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড বেশির ভাগ দুধেই সিসা: হাইকোর্টে বিএসটিআইয়ের রিপোর্ট বিশ্বকাপ শেষেও বিশ্বসেরা ওয়ানডে অলরাউন্ডারের মসনদে সাকিব বসানো হবে বজ্রপাত নিরোধক টাওয়ার বউয়ের তালাক নোটিশ পেয়ে খুশিতে দুধ দিয়ে গোসল করলেন স্বামী শান্তিরক্ষা মিশনে বঙ্গবন্ধুর নামে সম্মেলন কক্ষ

বুধবার   ১৭ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ২ ১৪২৬   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
৮১৪

এবার গাঁজা দিয়ে শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিক তৈরি!

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৯  

গাঁজার বিভিন্ন উপাদান দিয়ে শক্তিশালী নতুন অ্যান্টিবায়োটিক তৈরির পরিকল্পনা করেছে বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা এ সংক্রান্ত গবেষণার একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছে।

প্রকাশিত ওই নিবন্ধে বিজ্ঞানীরা বিষয়টি নিয়ে কাজ করার কথা বলেছেন। তারা বলেছেন, অদূর ভবিষ্যতেই অ্যান্টিবায়োটিক তৈরি করা সম্ভব হবে। বহু দিন ধরেই বিশ্বের বিজ্ঞানীরা গাছপালা, পাতা আর ফুল দিয়ে অ্যান্টিবায়োটিক তৈরির বিষয়ে গবেষণা করছেন।  

শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের জন্য অ্যান্টিবায়োটিক অথবা অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল ব্যবহার করা হয়। মাঝে মাঝে এমন কিছু ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায় যেগুলো মেরে ফেলা কিংবা একেবারে ধ্বংস করা কষ্টকর হয়। এসব ব্যাকটেরিয়া রোগকে আরো বেশে জটিল করে তোলে।

অস্ট্রেলিয়ার একদল বিজ্ঞানী গাঁজার মধ্যে যে উপাদান খুঁজে পেয়েছেন তার নাম ক্যানাবাইডিওল, যা গাঁজার একটি নন-সাইকোঅ্যাকটিভ উপাদান। বিজ্ঞানীরা গবেষণাগারে পরীক্ষা করার পর দেখেছেন, এর মাধ্যমে সব ধরনের ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করা সম্ভব। যা প্রচলিত অ্যান্টিবায়োটিকের চেয়ে অধিক শক্তিশালী।

গবেষণাকারী বিজ্ঞানী দল গ্রাম পজিটিভ নামের স্ট্যাফিলোকোক্কাস অরিয়াস টাইপের এক ধরনের ব্যাকটেরিয়ার উপর পরীক্ষা করেন। হাসপাতাল বাগ হিসেবে পরিচিত এমআরএসএতে আক্রান্ত্র হওয়ার নেপথ্যে কাজ করে এই ব্যাকটেরিয়া। যার কারণে নিউমোনিয়াসহ আরো বেশ কিছু রোগ হয়। যা মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী।

পরীক্ষায় গবেষকরা বিশেষ ধরনের এই বস্তু ইঁদুরের মধ্যেও প্রবেশ করান। যাতে প্রথামিকভাবে খুঁজে পাওয়া গেছে, এটির মাধ্যমে চর্ম রোগের মতো ভয়ানক রোগের চিকিৎসা করা সম্ভব। গাঁজার উপাদান থেকে তৈরি অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে খুব সহজে এই রোগ সারিয়ে তোলা যাবে।

সেন্টার ফর সুপারবাগ সল্যুশনের জ্যেষ্ঠ কেমিস্ট মার্ক ব্লাশকোভিচ গবেষক দলটির নেতৃত্বে ছিলেন। তিনি বলেন, এটি কীভাবে কাজ করবে আমরা এখনো জানি না। 

তিনি বলেন, তবে এটি ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম একটি মেকানিজম হিসেবে কাজ করবে। এটি সেই সব ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করবে যা সাধারণ অ্যান্টিবায়োটিক দেয়ার পরও থেকে যায়।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর