ব্রেকিং:
সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে পরিবহন ধর্মঘট,পণ্যের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা! কয়েদি পোষাকে ফাঁসির অপেক্ষায় দিন গুণছেন সিরাজউদ্দৌলা দুর্ধর্ষ চোর ইসমাইল গ্রেফতার তিন ফার্মেসীকে জরিমানা মেকআপ এন্ড নেইল আর্ট বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা চাঁদা না পেয়ে ব্রিকফিল্ড ম্যানেজারকে পিটিয়ে আহত অসহ্য যন্ত্রনা নিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছে তাহসিন পেট্রোল বোমা মামলায় মালামাল ক্রোকের আদেশ পেছাল শক্তিশালী দল গড়েছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ চিকিৎসকের জীবন বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন ১০ লাখ টাকার সেগুন কাঠ আটক আবর্জনার স্তূপে ৭০ বস্তা পেঁয়াজ! সাজেকে চান্দের গাড়ির ভাড়া নির্ধারণ দৃশ্যমান হচ্ছে পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার বেড়েছে ডলারের দাম ফোনের স্টোরেজ বাড়াবেন যেভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য নেদারল্যান্ডের ৩৯ লাখ পাউন্ড অনুদান ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সক্ষম কাঁচা মরিচ! র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমকে হাইকোর্টে তলব

বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
১২১

কচুরিপানায় মিলল রিফাতের লাশ

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০১৯  

কুমিল্লায় বাড়ির পাশের ডোবার কচুরিপানার ভেতর থেকে এক স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার রাতে আদর্শ সদরের দুর্গাপুর ইউপির চম্পকনগরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।
নিহত মেহেদী হাসান রিফাত চম্পকনগর গ্রামের প্রবাসী আলমগীর হোসেনের ছেলে এবং নর্থ-সাউথ চাইল্ড কিন্ডারগার্টেনের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল। দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করে বাড়ির পাশের ডোবার কচুরিপানার ভেতর ফেলে যায়। 
রিফাতের মা জেসমিন আক্তার জানান, শনিবার সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়তে গিয়েছিল রিফাত। কিন্তু পড়া শেষে বাড়ি না ফেরায় শিক্ষককে ফোন দিয়ে জানা যায় রিফাত সন্ধ্যা ৭টার দিকে বের হয়ে গেছে। পরে তার খোঁজ না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। এক পর্যায়ে বাড়ির পাশে পরিত্যক্ত ডোবার কচুরিপানার ভেতরে রক্তাক্ত অবস্থায় তার মরদেহ পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

রিফাতের মা আরো জানান, কিছুদিন আগে তার বাড়ি থেকে কিছু জিনিসপত্র চুরি হয়। ওই এলাকার বাসিন্দা হৃদয় নামে এক যুবকসহ কয়েকজনকে সন্দেহ করে তিনি সেসব উদ্ধারের জন্য চাপ দেন। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে রিফাতের পরিবারের বিরোধ সৃষ্টি হয়। সেই পূর্ব শত্রুতার জের ধরে শিশু রিফাতকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কোতয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে শ্বাসরোধ বা গলায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। তার গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। আশা করি, দ্রুত হত্যাকাণ্ডের কারণ ও কারা জড়িত তা বের সম্ভব হবে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর