ব্রেকিং:
ভোট কেন্দ্রে ৩ ঘন্টায় একটি ভোটও পড়েনি বন্ধ রাস্তা খুলে দেয়ার দাবিতে মানববন্ধন লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটিতে কুমিল্লার ৪ তরুণ ঐতিহাসিক ‘৭ মার্চ’ উদযাপনে হঠাৎ বিএনপির বোধদয় কেন? নেশার টাকা না পেয়ে মাকে মেরেই ফেললেন পাপিয়া কুমিল্লার ঠাকুরপাড়ায় বড় ভাইয়ের প্রেমের বলি ছোট ভাই ! করোনায় আরো ৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৮৫ মেট্রোরেলের প্রথম ধাপ দৃশ্যমান ভাসানচর পরিদর্শনে যাচ্ছে ওআইসির প্রতিনিধি দল বদলে যাবে এসিআর, আসছে এপিএআর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গাড়ি ও বাড়ি ক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা আসছে ইচ্ছেকৃত ঋণখেলাপিদের জিএসপি প্লাস সুবিধা আদায়ে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে ১৭ দিনে টিকা নিয়েছেন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ আধুনিক বিশ্বের মতো উন্নত বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় যাচ্ছে দেশ মুজিববর্ষে অনন্য মাইলফলকে দেশ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে ৫ জন আহত মাদরাসাছাত্রীকে বিবস্ত্র ভিডিও ধারণ-একাধিকবার ধর্ষণ, গ্রেফতার ২ ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে দেশে মেডিকেলে ভর্তিতে আসন বাড়ছে ২৮২
  • সোমবার   ০১ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭

  • || ১৬ রজব ১৪৪২

কাফনের কাপড়-কেরোসিন নিয়ে ছয় মা-মেয়ের হুমকি

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

কুমিল্লায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়ার ঘটনায় প্রতিপক্ষের বিচার চেয়ে কাফনের কাপড় ও কেরোসিন নিয়ে মানববন্ধন করেছেন পাঁচ মেয়ে। বিচার না পেলে নিজেদের পুড়িয়ে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন তারা।

ভুক্তভোগীরা হলেন- কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পশ্চিম জোড়কানন ইউনিয়নের মুরাদ কালিকাপুরের আবদুল জলিলের স্ত্রী আমিরুন নেছা। তার পাঁচ মেয়ে- খোদেজা আক্তার, রেহেনা আক্তার, শাহীনা আক্তার, জাহানারা আক্তার ও তফুরা আক্তার।

সোমবার দুপুরে কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছেন ছয় মা-মেয়ে। এ সময় তাদের মাথায় কাফনের কাপড় ও হাতে কেরোসিনের কনটেইনার ছিল।

মানববন্ধনে বৃদ্ধা আমিরুন নেছা জানান, মুরাদ কালিকাপুর গ্রামে তার স্বামীর পূর্বপুরুষদের মালিকানাধীন ২ দশমিক ৭৯ একর জমিতেতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করছেন তারা। কয়েক বছর আগে তার স্বামী মারা যান। স্বামীর রেখে যাওয়া সম্পত্তিতে দুটি বাড়ি করে তিনি ও তার পাঁচ মেয়ে বসবাস করছেন। স্বামীর মৃত্যুর পর থেকেই ওই সম্পত্তি দখলে নিতে চাচ্ছেন একই গ্রামের ইয়াসিন মিয়ার ছেলে খোরশেদ আলম ওরফে খোরশেদ সরদার। এ কারণে বিভিন্ন সময় সন্ত্রাসীদের দিয়ে ছয় মা-মেয়েকে হয়রানি করছেন তিনি।

আমিরুন নেছার মেয়ে রেহেনা আক্তার বলেন, ৩ ফেব্রুয়ারি খোরশেদ সরদার ও তার সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আমার ৮০ বছরের বৃদ্ধা মায়ের মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। আমাদের মারধর করে বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়েছে তারা। এক পর্যায়ে আমাদের ভেতরে তালাবদ্ধ করে ঘরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে খোরশেদ ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। সেদিন আমরা কোনোরকমে বাঁচলেও সবকিছু পুড়ে গেছে। এখন আমরা নিঃস্ব হয়ে পড়েছি।

ওই বৃদ্ধার আরেক মেয়ে জাহানারা আক্তার বলেন, আমরা খোরশেদ সরদার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর বিচার চাই। বিচার না পেলে নিজেদের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেব।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে খোরশেদ আলম ওরফে খোরশেদ সরদারের মোবাইলে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলছে। তারা বিষয়টি নিয়ে ৩-৪টি মামলা করতে চেয়েছে। আমি তাদের বলেছি সব ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে যেকোনো একজন বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিতে। আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

কুমিল্লার ধ্বনি