ব্রেকিং:
এতিম শিশুদের সাথে ইফতার লক্ষ্মীপুরে শাড়ি, লুঙ্গি ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ মাদ্রাসা ছাত্রীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার জুমাতুল বিদায়ে লক্ষাধিক মুসুল্লির আগমন ওয়ান শুটার গান গুলিসহ সন্ত্রাসী মুন্না আটক ছিন্নমূল মানুষের পাশে ফের অধ্যক্ষ এম সাত্তার ট্রাস্ট ক্ষোভ থেকেই চাচাত বোন তানিশাকে হত্যা যুবলীগের আহবায়ক মাসুদ ইকবালের উদ্দ্যেগে মিলাদ ও দোয়া বাংলাদেশে করোনার ভারতীয় ধরন শনাক্ত দেশে একদিনে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে, কমেছে শনাক্ত স্বপ্নের পথে আরও এগিয়ে কর্ণফুলী টানেল দুই বাংলাকে আমরা সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দেবো: শেখ হাসিনাকে মমতা চীনা রকেটের অংশ পড়তে পারে ইতালিতে, ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ খালেদাকে রাজনীতির পুতুলে পরিণত করেছে তারেক আল-আকসায় মুসল্লিদের ওপর ইসরায়েলি হামলা, আহত ২০৫ বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হলেন তিন মেয়ে চিকিৎসা নয়, খালেদাকে বিদেশে নেয়াই বিএনপির লক্ষ্য করোনায় ভারতে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদকাসক্ত ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পুলিশে দিলেন মুরাদনগরে শ্রমিক সংকটে কৃষকের ধান কেটে দিল কৃষকলীগ
  • রোববার   ০৯ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৬ ১৪২৮

  • || ২৬ রমজান ১৪৪২

কাফনের কাপড়-কেরোসিন নিয়ে ছয় মা-মেয়ের হুমকি

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

কুমিল্লায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়ার ঘটনায় প্রতিপক্ষের বিচার চেয়ে কাফনের কাপড় ও কেরোসিন নিয়ে মানববন্ধন করেছেন পাঁচ মেয়ে। বিচার না পেলে নিজেদের পুড়িয়ে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন তারা।

ভুক্তভোগীরা হলেন- কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পশ্চিম জোড়কানন ইউনিয়নের মুরাদ কালিকাপুরের আবদুল জলিলের স্ত্রী আমিরুন নেছা। তার পাঁচ মেয়ে- খোদেজা আক্তার, রেহেনা আক্তার, শাহীনা আক্তার, জাহানারা আক্তার ও তফুরা আক্তার।

সোমবার দুপুরে কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছেন ছয় মা-মেয়ে। এ সময় তাদের মাথায় কাফনের কাপড় ও হাতে কেরোসিনের কনটেইনার ছিল।

মানববন্ধনে বৃদ্ধা আমিরুন নেছা জানান, মুরাদ কালিকাপুর গ্রামে তার স্বামীর পূর্বপুরুষদের মালিকানাধীন ২ দশমিক ৭৯ একর জমিতেতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করছেন তারা। কয়েক বছর আগে তার স্বামী মারা যান। স্বামীর রেখে যাওয়া সম্পত্তিতে দুটি বাড়ি করে তিনি ও তার পাঁচ মেয়ে বসবাস করছেন। স্বামীর মৃত্যুর পর থেকেই ওই সম্পত্তি দখলে নিতে চাচ্ছেন একই গ্রামের ইয়াসিন মিয়ার ছেলে খোরশেদ আলম ওরফে খোরশেদ সরদার। এ কারণে বিভিন্ন সময় সন্ত্রাসীদের দিয়ে ছয় মা-মেয়েকে হয়রানি করছেন তিনি।

আমিরুন নেছার মেয়ে রেহেনা আক্তার বলেন, ৩ ফেব্রুয়ারি খোরশেদ সরদার ও তার সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আমার ৮০ বছরের বৃদ্ধা মায়ের মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। আমাদের মারধর করে বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়েছে তারা। এক পর্যায়ে আমাদের ভেতরে তালাবদ্ধ করে ঘরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে খোরশেদ ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। সেদিন আমরা কোনোরকমে বাঁচলেও সবকিছু পুড়ে গেছে। এখন আমরা নিঃস্ব হয়ে পড়েছি।

ওই বৃদ্ধার আরেক মেয়ে জাহানারা আক্তার বলেন, আমরা খোরশেদ সরদার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর বিচার চাই। বিচার না পেলে নিজেদের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেব।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে খোরশেদ আলম ওরফে খোরশেদ সরদারের মোবাইলে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলছে। তারা বিষয়টি নিয়ে ৩-৪টি মামলা করতে চেয়েছে। আমি তাদের বলেছি সব ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে যেকোনো একজন বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিতে। আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।