ব্রেকিং:
আওয়ামী লীগই জনগণের পাশে থাকে, এটাই আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য - ওবায়দুল পাশে উঁচু জায়গা রেখে পরিকল্পিতভাবে পানিতে ঈদের নামাজ ৯ জুন পর্যন্ত ভ্যাট রিটার্ন জমার সময় বাড়ালো এনবিআর লোহাগড়ায় ঈদ উপহার পাঠালেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া নতুন ১৫২ সদস্যসহ পুলিশে করোনা আক্রান্ত চার হাজার ছাড়াল প্লাজমা দিতে চান এই চিকিৎসক দম্পতি হাসপাতালে রোগীর স্বজনদের বিরিয়ানি খাওয়ালেন আ’লীগ নেতা অনির্দিষ্টকাল জনগণের আয়ের পথ বন্ধ রাখা সম্ভব নয়: প্রধানমন্ত্রী নজরুলের গান আবৃত্তি করে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পেল দুই শতাধিক পথশিশু ‘করোনার শুরু থেকেই ত্রাণ কার্যক্রম চালাচ্ছেন সংসদ সদস্যরা’ মোবাইল অ্যাপ ও হটলাইনে সাংসদ আসলামুল হকের অভিনব খাদ্য সহায়তা জাতীয় কবির ১২১তম জন্মদিন আজ বাঙ্গালির ঈদ উৎসবে ‘রমজানের ওই রোজার শেষে’র আগমন কিভাবে? দেশবাসীকে আওয়ামী লীগের ঈদ শুভেচ্ছা করোনাকালের ৫৬ দিনে ৩ লাখ ১৯ হাজার কনটেইনার হ্যান্ডলিং ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী ২৮০ ট্রান্সজেন্ডার ও হিজড়াকে ঈদ সামগ্রী প্রদান করেছে বন্ধু দুর্দিনে বারো হাজার মানুষকে খাদ্য সামগ্রী দিলো এসএসসি ২০০০ ব্যাচ আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৬হাজার পরিবারকে ৩কোটি টাকা সহায়তাদেবে ব্র্যাক
  • বুধবার   ২৭ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

২৬৩

কারখানা বন্ধ নয়, স্বাস্থ্য নিরাপত্তা জোরদারের দাবি শ্রমিক নেতাদের

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২০  

কলকারখানা বন্ধ না করে সম্মিলিত টাস্কফোর্স গঠন, রেসনিং ব্যবস্থা, থোক বরাদ্দ, কলকারখানার ভেতরে বাইরে স্বাস্থ্য বিষয়ক নিরাপত্তা জোরদারের দাবি জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা। একইসঙ্গে প্রতিটি কারখানায় ডাক্তারের ব্যবস্থা, শ্রমঘন এলাকাভিত্তিক কোয়ারেন্টাইনের দাবিও জানান নেতারা।

রোববার রাজধানীর বিজয় সরণির শ্রম ভবনের সম্মেলন কক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের (স্কপ) জরুরি আলোচনা সভায় শ্রমিক নেতারা এ দাবি জানান।

সভাপতির বক্তব্যে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকদের নিরাপত্তাই সরকারের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। সরকার স্বাস্থ্য সচেতনতার উপর জোর দিচ্ছে। শ্রমিক নেতাদের পরামর্শ সরকার ইতিবাচকভাবে নিয়েছে। আমাদের সব প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। প্রয়োজনে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল এবং কেন্দ্রীয় তহবিল থেকে শ্রমিকদের সহায়তা দেয়া হবে।

সভায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজম করোনাভাইরাস আতঙ্ক নিয়ে কারখানাগুলোতে যাতে কোনো ধরনের শ্রম অসন্তোষ না দেখা দেয় শ্রমিক নেতাদেরকে সে বিষয়ে আরো উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

পাশাপাশি শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, মালিকরা স্বাস্থ্যবিধি সিডি আকারে প্রতিটি কারখানায় প্রচারের ব্যবস্থা নেবেন।

জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি ফজলুল হক মন্টু বলেন, কার‌খানায় উৎপাদন বন্ধ না করে শ্রমিকদের করোনা সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। সাতদিন, দশদিন, বন্ধ করলেই সমাধান হবে না। গত কয়েকদিনে দ্রব্যমূল্যের দাম বেড়ে গেছে। এ পরিস্থিতেতে অতিদ্রুত রেশনিংয়ের প্রস্তাব দেন তিনি।

আলোচনা সভায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. রেজাউল হক, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিফতরেরমহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক এ কে এম মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন খান, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন, বাংলাদেশ লেবার ফেডারেশনের সভাপতি শাহ মোহাম্মদ আবু জাফর, জাতীয়তাবাদী শ্রমিকদলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইন, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের সভাপতি চৌধুরী আশিকুল আলম, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতনসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে করোনাভাইরাস সংক্রমণে উদ্ভূত সমস্যা মোকাবিলায় শিল্প কলকারখানায় শ্রম পরিস্থিতি সম্পর্কে গার্মেন্টসের ৭২টি শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে আরেকটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

কুমিল্লার ধ্বনি
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর