ব্রেকিং:
রামগঞ্জে শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যা, ছেলের বউ আটক পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুতের নারী কর্মী নিহত ছেলেদের ঘরের মেঝেতে রক্তের দাগ, মিলল অস্ত্র-রক্তমাখা কাপড় আশুগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা সুরক্ষা সরঞ্জাম প্রদান সাবেক ভিপি নূরের বিরুদ্ধে দেবিদ্বারেও মামলা করোনা রোধে পোশাক কারখানার নতুন কৌশল বাড়ির কাছে পৌঁছে যাচ্ছে করোনার নমুনা সংগ্রহের গাড়ি করোনার মধ্যেই বাংলাদেশে উন্নতির লক্ষণ দেখছে বিশ্বব্যাংক লকডাউনেও মাছ, মাংস, দুধ, ডিম ও দুগ্ধজাত পণ্যের ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় বিকাশে টাকা পাবে সাড়ে ১০ লাখ পরিবার করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু বেড়েছে অন্ধকারে সুবর্ণচর উপজেলা,বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাওয়ের হুমকি ৮ শতাধিক শতাধিক গরীব ও দুস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ মোবাইলে অন্যজনের সঙ্গে প্রবাসীর স্ত্রী কথা, অতঃপর... ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিট উদ্বোধন কন্যা শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার লালমাই স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল স্ত্রী-কন্যার সামনে স্কুল শিক্ষককে লাঞ্ছনা দরিদ্রদের ইফতার সামগ্রী উপহার দিলেন এএসপি সোনাগাজীতে মানববন্ধনে সন্ত্রাসী হামলা
  • শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১০ ১৪২৮

  • || ১০ রমজান ১৪৪২

কুমিল্লায় অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ছড়ানোর হুমকি স্বামীর,

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০২১  

কুমিল্লার বুড়িচংয়ের মিথলমা গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে তাসলিমা (১৯)। আট মাস আগে কুমিল্লা মহানগরীর মুরাদপুর এলাকার ফারুক মিয়ার ছেলে সুজন মিয়ার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। অল্প সময় পরই সুজন নানাভাবে যৌতুকের জন্য তাসলিমা ও তার পরিবারকে চাপ দিতে থাকে। এর জেরে প্রায় দেড় মাস আগে তাসলিমা তার বাবার বাড়িতে চলে যান।

স্বামী সুজন স্ত্রীর সঙ্গে কিছু অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি মোবাইল ফোনে তুলে রেখেছিলেন। ছবিগুলো বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিতে থাকে।এক পর্যায়ে স্বামী-স্ত্রীর বিরোধ নিষ্পত্তিতে শুক্রবার দুলাল মিয়াসহ কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তি নগরীর মুরাদপুরের সুজনের বাড়িতে গেলে তাদের কাছে উল্টো তার স্ত্রীকে চরিত্রহীন বলে অভিযোগ করে এবং তুলে রাখা ছবি দেখিয়ে আর ঘর সংসার করবেন না বলে জানিয়ে দেন।

বিষয়টি তাসলিমা জানতে পেরে অপমানে শনিবার সকালে ঘরের তিরের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের মিথলমা উত্তরপাড়া গ্রামের তাসলিমাকে বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করতে থাকে পরিবার। বিয়ের অল্প কয়েক দিন পর থেকেই সুজন স্ত্রীর কাছে মোবাইল ফোন, বিদেশি কম্বলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র দাবি করে তাকে বিদেশে নিয়ে যেতে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। এতে অতিষ্ঠ হয়ে প্রায় দেড় মাস আগে তাসলিমা বাবার বাড়ি চলে আসেন।

তাসলিমার ভাই মামুন জানান, পরবর্তী সময়ে সুজন তাসলিমার সঙ্গে কথা বলার ফাঁকে মোবাইল ফোনে বেশকিছু আপত্তিকর ছবি তুলে নেয়। এরপর নানাভাবে তাকে উত্ত্যক্তসহ টাকা চেয়ে ভয়ভীতি দেখাতে থাকে।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর তাসলিমার বাবা দুলাল মিয়া এলাকার কিছু লোক নিয়ে সুজনের বাড়িতে যান। সুজন উপস্থিত সবার সামনে তাসলিমার আপত্তিকর ছবি দেখিয়ে মেয়ের সঙ্গে সংসার করবেন না বলে হুমকি দেয়। বাড়ি ফিরে এলে তাসলিমার মা বিষয়টি জানতে চাইলে দুলাল মিয়া বিষয়টি খুলে বলে। পরে মা বিষয়টি তাসলিমাকে বললে অপমানে শনিবার সকালে ঘরের তিরের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেয়। এ সময় পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়ির এসআই কামালের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।