ব্রেকিং:
জাতীয় কবির ১২১তম জন্মদিন আজ বাঙ্গালির ঈদ উৎসবে ‘রমজানের ওই রোজার শেষে’র আগমন কিভাবে? দেশবাসীকে আওয়ামী লীগের ঈদ শুভেচ্ছা করোনাকালের ৫৬ দিনে ৩ লাখ ১৯ হাজার কনটেইনার হ্যান্ডলিং ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী ২৮০ ট্রান্সজেন্ডার ও হিজড়াকে ঈদ সামগ্রী প্রদান করেছে বন্ধু দুর্দিনে বারো হাজার মানুষকে খাদ্য সামগ্রী দিলো এসএসসি ২০০০ ব্যাচ আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৬হাজার পরিবারকে ৩কোটি টাকা সহায়তাদেবে ব্র্যাক শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ঈদ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রেখেছে সরকার দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৮৭৩, মৃত্যু ২০ মুসল্লিদের সুবিধার্থে মসজিদে সর্বাধিক ঈদের জামাতের আয়োজন করোনা রোগীর চিকিৎসায় ৩ হাজার পদ সৃষ্টি নগদ সহায়তা পাবে ৪৮ লাখ প্রান্তিক উদ্যোক্তা ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা উপকূলবাসীদের হালদা পাড়ে হাসির ঝিলিক, ১২ বছরের মধ্যে রেকর্ড ডিম সংগ্রহ আমফানে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে আমফান-পরবর্তী পুনর্বাসন কাজ শুরু পীরগাছায় ৭৮৪ মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান বিতরণ
  • সোমবার   ২৫ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭

  • || ০২ শাওয়াল ১৪৪১

১৭৪

কুমিল্লায় একদিনে সর্বোচ্চ করোনায় আক্রান্তের রেকর্ড

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২২ মে ২০২০  

কুমিল্লা জেলায় গতকাল বৃহস্পতিবার এক দিনে সর্বোচ্চসংখ্যককরোনা (কোভিড-১৯) রোগী শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার পর রিপোর্টে জানা গেছে, ৫৭ জন করোনা ‘পজিটিভ’।

এর মধ্যে দেবীদ্বারে ১২ জন, আদর্শ সদর উপজেলায় ১০ জন, মুরাদনগরে ৯ জন, চান্দিনায় ৯ জন, নাঙ্গলকোটে ৮ জন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে ৪ জন, লাকসামে ২ জন, বরুড়া, লালমাই ও তিতাসে একজন করে আক্রান্ত। জেলার করোনাবিষয়ক ফোকাল পারসন ও কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন মো. শাহাদত হোসেন গতকাল বিকেল চারটায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ ছাড়া একই দিন আজ সর্বোচ্চ সংখ্যক ২১ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন দেবীদ্বারে ১০ জন, বরুড়ায় ৬ জন, লাকসামে ৩ জন, ব্রাহ্মণপাড়ায় একজন ও লালমাই উপজেলায় একজন। এদিন মারা গেছেন চান্দিনায় দুজন ও মুরাদনগরে একজন।

এ নিয়ে কুমিল্লা জেলার ১৭টি উপজেলায় মোট শনাক্ত রোগী ৪২৯ জন, সুস্থ হয়েছেন ৮৩ জন ও মারা গেছেন এক নারীসহ ১৭ জন। প্রতিদিনই কুমিল্লায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা বাড়ছে।

জেলার করোনাবিষয়ক ফোকাল পারসন ও কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন মো. শাহাদত হোসেন বলেন, কুমিল্লায় গত ৯ এপ্রিল থেকে ১০ মে পর্যন্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৫১ জন। আর বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গত ১১ দিনে শনাক্ত হলেন ২৭৮ জন।

কুমিল্লার ১৭টি উপজেলা, সিটি করপোরেশন ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মিলিয়ে যে ৪২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, তাঁদের মধ্যে দেবীদ্বারে ১২২ জন, মুরাদনগরে ৭৯ জন, আদর্শ সদর উপজেলায় ৫১ জন (সিটি করপোরেশনে ৩২, গ্রামাঞ্চলে ১৯ জন), লাকসামে ২৬ জন, চান্দিনায় ৩০, দাউদকান্দিতে ১৬ জন, বুড়িচংয়ে ১৬ জন, তিতাসে ১৫ জন, নাঙ্গলকোটে ২১ জন, ব্রাহ্মণপাড়ায় ১১ জন, বরুড়ায় ১১ জন, মনোহরগঞ্জে ৭ জন, সদর দক্ষিণে ৫ জন, হোমনায় ৪ জন, লালমাইয়ে ৪ জন, চৌদ্দগ্রামে ৩ জন, মেঘনায় ২ জন ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৬ জন রয়েছেন।

কুমিল্লার ধ্বনি
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর