ব্রেকিং:
একদিনে আরো পাঁচজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪১০ জাতীয় বিশ্ববিদ্যায়ের স্থগিত পরীক্ষাসমূহের নতুন সূচি ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রে অনিবন্ধিত বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান মোমেনের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৪৪০০ কোটি ছাড়াল মেট্রো রেল প্রকল্পে গড় অগ্রগতি ৫৬.৯৪% দেশে হচ্ছে আরও সাত নভোথিয়েটার আসছে তাৎক্ষণিকভাবে ভোটার হওয়ার সুযোগ শঙ্কা কেটে পুনরুদ্ধারের পথে অর্থনীতি করোনা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ বিশ্বে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপণ করেছে শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসায় যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর দুর্নীতিবিরোধী ভাষণ দূরদর্শিতার প্রমাণ পিলখানা হত্যা দিবস আজ এক দিনে টিকা নিলেন ১ লাখ ১২ হাজার মানুষ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে কুমিল্লায় প্রস্তুতি ফরিদগঞ্জে যুবক যুবতীর আত্মহত্যা বাঁধ ভেঙে পানির নিচে ৬০ একর ফসলি জমি ৬ লাখ টাকা নিয়ে চম্পট, গার্ড-ক্লিনার গ্রেফতার বদলে যাচ্ছে আখাউড়া স্থলবন্দর ২৭ বছর পর উন্মুক্ত হলো আমদানির দ্বার করোনায় আরো পাঁচজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪২৮
  • বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

  • || ১২ রজব ১৪৪২

কুমিল্লায় চিকিৎসার অভাবে উটপাখির মৃত্যু

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০২০  

প্রয়োজনীয় চিকিৎসার অভাবে ১২০ কেজি ওজনের একটি উটপাখি মারা গেছে বলে অভিযোগ করেছেন কুমিল্লার লালমাইয়ের বড়ল গ্রামের খামার মালিক আহসান উল্লাহ। রোববার রাতে আহসান উল্লার খামার বাড়িতে পাখিটি মারা যায়। মারা যাওয়া উট পাখিটির বাজার মূল্য প্রায় চার লাখ টাকা।

জানা গেছে, প্রায় আড়াই বছর আগে ওই গ্রামের তরুণ আহসান উল্লাহ শখের বসে পরীক্ষামূলকভাবে সাড়ে চার লাখ টাকা দিয়ে ৩ জোড়া উট পাখি ক্রয় করে খামার শুরু করেন।

এক বছরের মাঝে দুই জোড়া উট পাখি মারা যায়। এদিকে বেঁচে থাকা এক জোড়া পাখি ধীরে ধীরে বড় হয়ে ডিম পাড়ার উপযুক্ত হয়। কিন্তু হঠাৎ গত শুক্রবার থেকে একটি উট পাখির শরীরে জ্বর অনুভব হয় একই সঙ্গে পাখিটি খাওয়া দাওয়া বন্ধ করে দেয়। 

এদিকে খামার মালিক আহসান উল্লাহ উট পাখিটির চিকিৎসার জন্য স্থানীয় লালমাই উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আরিফুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ব্যস্ততার অজুহাত দেখিয়ে পাখিটিকে দেখতে আসেননি। এক পর্যায়ে পাখিটি চরম অসুস্থ ও শারীরিক দুর্বলতা নিয়ে রোববার রাতে মারা যায়।

আহসান উল্লাহ জানান, ২০১৭ সালে ইউটিউব চ্যানেলে উট পাখি পালনের দৃশ্য দেখে আমি তা পালনে উৎসাহী হই। এরপর নিজ বাড়িতে তিন জোড়া উট পাখি দিয়ে খামার শুরু করি। এটা সফল হলে আমার খামার বড় করার পরিকল্পনা ছিল। বর্তমানে আমি পুঁজি হারিয়ে হতাশায় ভুগছি।

লালমাই উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা আরিফুর রহমান জানান, উটপাখিটির মালিক আমাকে মুঠেফোনে বিষয়টি জানিয়েছিল কিন্তু সাপ্তাহিক বন্ধ থাকায় যেতে পারিনি। তবে পার্শ্ববর্তী উপজেলা থেকে ডাক্তার পাঠিয়েছিলাম।

কুমিল্লার ধ্বনি