ব্রেকিং:
আবরার হত্যায় রুমমেট মিজান পাঁচ দিনের রিমান্ডে সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর ১ নভেম্বর থেকে ধরা খেয়ে ৫১ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে করলেন পুলিশ কর্মকর্তা মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ হলেন শিরিন আক্তার শিলা বিকাশের দোকানে ক্যাসিনো ব্যবসা, আটক ৫ সরকারি জমিতে বস্তি, নিয়ন্ত্রণ বেসরকারি বিসিবির আশ্বাসে ক্রিকেটারদের আন্দোলন স্থগিত ক্যাসিনোকাণ্ড: দুই এমপিসহ ২২ জনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা রেমিট্যান্স আয়ে এগিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের প্রবাসীরা বিমান উড্ডয়নে যত্নবান হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণপাড়ায় শিক্ষার্থীদের ওপর বহিরাগতদের হামলা ৪ কি. মি. জ্যামের নেপথ্যে.. এলাকাবাসীর হাতে ইয়াবা সম্রাট আটক পেঁয়াজের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে বিশেষ অভিযান সংস্কারের অভাবে সড়কের বেহাল দশা কোটি টাকা নিয়ে উধাও এনজিও! ইসলামের বিরুদ্ধে কটুক্তিকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি সেতুর অভাবে ভোগান্তিতে ২০ হাজার মানুষ পুলিশের সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময় আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা?

বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৪ সফর ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
৫৫৪

কুমিল্লায় প্রবাসীর বাড়িতে মানুষের ঢল! চলছে শোকের মাতম

প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

প্রবাসী প্ত্রকে আনতে গিয়ে, মাইক্রোবাসে আগুন ধরে দগ্ধ হয়ে, নিহত দম্পতির কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। নিহতদের প্রবাস ফেরত ছেলে আবদুল মমিন জানান, আমি সোমবার দুবাই থেকে চট্টগ্রাম বিমানবন্দর হয়ে দেশে আসি। এরপর এক আত্মীয়ের বাসায় রাত যাপন করি। চট্টগ্রাম থেকে আমাকে বাড়ি আনার জন্য বয়োবৃদ্ধ বাবা (আবদুর রহমান), মা (কুসুমফুল বেগম), আমার ভাইয়ের ছেলে শিশু মালেকসহ ৬ জন, একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে সকালে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যায়। পথিমধ্যে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার নিজামপুর এলাকায়, ওই মাইক্রোবাসে আগুন ধরে যায়। এতে দগ্ধ হয়ে আমার বাবা-মা ও মাইক্রোবাসের চালক নিহত হন। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে ছুটে আসি।
এসময় তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে বলেন, আমার জন্যই আমার বাবা-মাকে প্রাণ হারাতে হয়েছে। বেঁচে থেকেও আমি মৃত, আল্লাহ আমাকেও নিয়ে যাক। এদিকে নিহত দম্পতির লাশ কমলপুর গ্রামের বাড়িতে পৌঁছার পর শত শত মানুষ ওই বাড়িতে ভিড় জমায়। পরিবারের লোকজন ও স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। এ ঘটনায় কমলপুর গ্রামে শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছে।
এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনায়, এই দম্পত্তি ছাড়াও ওই মাইক্রোবাসের চালক রুবেল (৩৫) নিহত হন। সন্ধ্যায় নিহত আবদুর রহমান ও তার স্ত্রী কুসুমফুল বেগমকে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। আহতদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন। তারা হলেন রাশেদ (১০), মালেক (১২), মো. হাসান (২৫) ও আবুল কালাম (৩৫)। 
স্থানীয় সূত্র জানায়, সকালে কুমিল্লা থেকে মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ ১৫-২০৩৫) আরোহীরা তাদের এক বিদেশ ফেরত ছেলেকে আনতে চট্টগ্রামে যাচ্ছিলেন। মিরসরাইয়ের হাদিফকিরহাট এলাকায় এসে মাইক্রোবাসটি সামনে থাকা চট্টগ্রামমুখী একটি কাভার্ডভ্যানের পেছনে ধাক্কা দেয়। ধাক্কার পর মাইক্রোবাসের সামনের অংশ কাভার্ডভ্যানের পেছনে আটকে যায়। এসময় কাভার্ডভ্যান মাইক্রোবাসটিকে টেনে নিজামপুর পর্যন্ত নিয়ে যায়।
চলতি পথেই মাইক্রোবাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে এতে আগুন ধরে যায়। এতে মাইক্রোবাসের চালক ও দুই যাত্রী দগ্ধ হয়ে গাড়ির ভেতরেই মারা যান। চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে মিরসরাই ফায়ার স্টেশনের একটি গাড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
মাইক্রোবাস থেকে লাফিয়ে পড়া রাশেদ ও মালেক নামে দুই শিশুকে উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। তাদের মিরসরাই মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর