ব্রেকিং:
রোটারী ক্লাবের উদ্যোগে শীত বস্ত্র বিতরণ বার্ষিক ক্রীড়া ও মেধাভিত্তিক পুরস্কার বিতরণ কুবি শিক্ষার্থীকে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন এমপি’র নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিবন্ধীদের মাঝে কম্বল বিতরণ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন কুবিতে রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদক পাচ্ছেন ১৪ শিক্ষার্থী গাছের সাথে সিএনজির ধাক্কায় ২ জন নিহত শালবন বিহারে ‘বই পোকা’র বনভোজন রাজমিস্ত্রী পরিকল্পনা , অব্যবস্থাপনা এবং হরিলুটের মহোৎসব! খুব শীঘ্রই আরও ৩টি নতুন স্টেডিয়াম হচ্ছে কুমিল্লায় নৈশপ্রহরী হত্যাকাণ্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে পুলিশ! কুমিল্লা মহাসড়ক যেন আবর্জনার ভাগাড়! ভারতের ট্রানজিট ভিসা পাবেন যেভাবে ‘আসেন ভাই, ১০ টাকায় মোনাজাতে আসেন’ দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে টরন্টোতে প্রবাসীদের প্রতিবাদ সমাবেশ ক্যানসারের চেয়েও ভয়ংকর এ রোগে মারা যাচ্ছে ২০ শতাংশ মানুষ ব্রেনের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর সাত কৌশল আলো দিয়ে চলবে ইন্টারনেট! সম্পদ ভাগ করলে দারিদ্র্য চলে যেতো: গভর্নর বিয়ের আগে যে বিষয়গুলো জানা অতি জরুরি

রোববার   ১৯ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
১৮২৩

কৃষি বান্ধব বাজেটে কৃষকের মুখে হাসি, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ

প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০১৯  

দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে কৃষি খাতের অবদান সবচেয়ে বেশি। তাই ক্ষমতায় আসলেই কৃষির প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিবারই ঢেলে সাজান কৃষিনির্ভর বাংলাদেশকে, গ্রহণ করেন নানামুখী পদক্ষেপ। এরই ধারাবাহিকতায় কৃষিতে চলমান অগ্রগতি ধরে রাখতে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটকে কৃষি বান্ধব করে সাজানো হয়েছে। যা কৃষকের মুখে এনে দিয়েছে হাসি, আর খাদ্যে আরো স্বয়ংসম্পূর্ণ হচ্ছে দেশ।

বিশ্বে ধান উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ। যেখানে আগে দেশের সাড়ে সাত কোটি মানুষের জন্য দেড় কোটি মেট্রিক টন চাল প্রয়োজন হতো। এর মধ্যে দেশের উৎপাদন হতো ১ কোটি ১০ লাখ ১০ মেট্রিক টন। ফলে ৪০ মেট্রিক টন খাদ্য শস্য ঘাটতি পূরণে অন্যান্য দেশ ও আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থাগুলোর দয়ার ওপর অপেক্ষা করতে হতো দেশকে।

সরকারের কৃষি বান্ধব বাজেটের ফলে ২০১৮ সালে দেশে ৩ কোটি ৬২ লাখ মেট্রিক টন ধান, ৩০ লাখ মেট্রিক টন ভুট্টা, ১৫ লাখ মেট্রিক টন গমসহ ৪ কোটি ১৩ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য শস্য উৎপাদিত হয়। আরো ১ কোটি ৫ লাখ মেট্রিক টন আলু উৎপাদন করে প্রায় ৩০ লাখ মেট্রিক টন উদ্বৃত্ত রাখা সম্ভব হয়েছে।

বর্তমান বাংলাদেশের জনসংখ্যা বেড়ে প্রায় ১৭ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। কৃষিক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন ও কৃষি উৎপাদনে সাফল্য আমাদের খাদ্য আমদানি নির্ভরতা থেকে রফতানিমুখী রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। দেশের প্রত্যেক মানুষ আজ তিন বেলা পেট ভরে খেতে পারছে। কৃষকরা উদ্ভাবন ও উদ্ভাবনী ক্ষমতা উভয়কেই সাদরে গ্রহণ করে ঢেলে সাজিয়েছে বাংলাদেশের কৃষিকে। তাতেই গতি সঞ্চারিত হয়েছে কৃষি অর্থনীতিতে। কৃষকদের প্রণোদনা দেয়ায় চাষাবাদে এখন অল্প অর্থ ব্যয় করতে হয় কৃষকদের। 

সরকার কৃষকদের এত সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে বিধায় এত ধান উৎপাদিত হয়েছে; যা অতীতে হয়নি। কাজেই কৃষক ও কৃষিকে রক্ষা করে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার বদ্ধ পরিকর। আর তাই কৃষি উপকরণ সহজলভ্য করা হয়েছে। সুষম সেচ ও সার সরবরাহ ব্যবস্থার কারণে চাষাবাদের ক্ষেত্রে নতুন দিগন্তের দ্বার উন্মোচিত হচ্ছে। কৃষি বাংলাদেশকে এনে দিয়েছে আন্তর্জাতিক মানের সাফল্য।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর