ব্রেকিং:
বিয়ের দিন বাড়িতে হাজির প্রথম স্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ৫০ থেকে একশ শয্যায় উন্নীত হবে সব হাসপাতাল সেপটিক ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেল ২ রাজমিস্ত্রির মজুতদারি করে কারসাজি করলে কঠোর ব্যবস্থা ইঞ্জিনে ওভার হিট, মহাখালীতে প্রাইভেটকারে আগুন ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ফিরে পেলেন ট্রাম্প অবশেষে ঝুঁকিপূর্ণ তিন রাস্তার সংযোগস্থলে গতিরোধক স্থাপন বাঙালি বিশ্ব মোড়লদের ধার ধারে না: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী যেসব কারণে ব্যাপক চাপ থাকবে সড়কে সুপ্রিম কোর্টের আদেশে সরকারের কোটা সংক্রান্ত পরিপত্র বলবৎ হয়েছে পানি নিষ্কাশনে ডিএনসিসির ৫ হাজার পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে সময় টিভির সাংবাদিকদের উপর কোটা বিরোধীদের হামলা প্রধানমন্ত্রীর অন্তর্ভুক্তিমূলক সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি গাজায় ‘যুদ্ধাবসানের সময় এসেছে’: বাইডেন ন্যাটো-রাশিয়াকে সংঘাতের ব্যাপারে সতর্ক করলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রাজধানীসহ সারাদেশে ভারী বৃষ্টি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুতে ইতিবাচক মিয়ানমার চীনা গণমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর
  • রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

কোটা বৈষম্য বাতিলের দাবিতে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে মশাল মিছিল

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২৪  

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে এবং কোটা পদ্ধতি বাতিলের দাবিতে মশাল হাতে বিক্ষোভ করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীরা। এ সময় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয় তারা।

শনিবার (৬ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে শুরু করে ক্যাম্পাস সংলগ্ন দক্ষিণ মোড় পর্যন্ত প্রদক্ষিণ করে আবারও ক্যাম্পাসের ভেতরে প্রবেশ করে শহিদ মিনারে এসে ওই মশাল মিছিল শেষ হয়।

এ সময় ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘গরিব-দুঃখীর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘মেধা না কোটা, মেধা মেধা’, ‘সারা বাংলা খবর দে, কোটা প্রথার কবর দে’, ‘গর্জে উঠো আরেকবার, একাত্তরের হাতিয়া’, ‘কোটা প্রথার বিরুদ্ধে আগুন জ্বালো’ এমন নানা স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলন সমন্বয়কারীদের মধ্যে কুবির আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ সাকিব হোসাইন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের এত বছর পরে কোটা প্রথাটা বৈষম্যমূলক। বাংলাদেশে বর্তমানে ২৫৮টি কোটার প্রচলন রয়েছে, আমরা সবগুলো কোটার বিলোপ চাই শুধুমাত্র প্রতিবন্ধী এবং উপজাতি কোটা ছাড়া। এটা শুধু আমাদের দাবি না, সারা বাংলাদেশের সকল শিক্ষার্থীদের দাবি।’

অন্যদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী নাফিসা আক্তার নীরা বলেন, ‘আমি একজন নারী শিক্ষার্থী হিসেবে কোটা বিরোধী আন্দোলনে দাঁড়িয়েছি। নারী হিসেবে আমি কোনো কোটা চাই না। আমি আমার মেধা দিয়ে আমার যোগ্যতার প্রমাণ রাখতে চাই। কোটা প্রথার ফলে দেখা যায় যোগ্য ব্যক্তিরাও চাকরি পাচ্ছে না। আমরা চাই প্রকৃত মেধাবী যাচাই হোক। নারী শিক্ষার্থী হিসেবে বলতে চাই, নারীদের জন্য যে কোটা রয়েছে সেই কোটাও যেন না থাকে।’ 

এর আগে গত ৪ জুলাই কোটা বাতিলের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক তিন ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।