ব্রেকিং:
ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘টাউকটে’ তিন ওয়ানডে খেলতে ঢাকায় শ্রীলংকা ক্রিকেট দল ইসরায়েলকে সমর্থন জানিয়ে বাইডেনের ফোন ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলায় নিহত বেড়ে ১৪৯ ফের বাড়ল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ঈদ উপলক্ষে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার আরো সাতদিন বাড়ছে লকডাউন, রোববার প্রজ্ঞাপন করোনায় ভাই হারালেন মমতা ব্যাংক-বিমা ও শেয়ারবাজার খুলছে কাল গাজায় ৪০ মিনিটে ৪৫০ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল ইসরায়েল স্বাস্থ্যবিধি পালনে সর্বোচ্চ সতর্কতার আহ্বান কাদেরের দেশেই টিকা উৎপাদনের ব্যবস্থা নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী উপকূলের ঘরে ঘরে ডিজিটাল ব্যাংক ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরার ব্যবস্থা ঈদের পর বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ের সর্বোচ্চ রেকর্ড লকডাউনে বিচারিক ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ খালেদার ভুয়া জন্মদিন পালনের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত ভালোবাসায় বড় হচ্ছে যে মসজিদ মেঘ দেখলেই পালায় বিদ্যুৎ পানিতে ভেসে আসার পর এবার গঙ্গার তীরে মিলল বালিতে পোঁতা মরদেহ
  • রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

গ্রাহকদের দেড় কোটি টাকা নিয়ে ইটভাটা মালিক উধাও

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৩ মে ২০২১  

ফুলগাজীতে গ্রাহকদের ইট দেয়ার কথা বলে দেড় কোটি টাকা অগ্রীম নিয়ে উধাও হয়েছেন ইটভাটা মালিক মাহমুদুল হাছান। শুধু তাই নয়, ওই ভাটায় কর্মরত শ্রমিকরাও মজুরি না পেয়ে বিপাকে পড়েছেন।সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সদর ইউনিয়নের বৈরাগপুর এলাকার নিউ পরফুল ব্রিকস থেকে ইট কিনতে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহমুদুল হাছানকে ৬১ জন ব্যক্তি অগ্রীম টাকা দিয়েছেন। তাদের কাছ থেকে সংগৃহীত প্রায় দেড় কোটি টাকা নিয়ে রাতের আঁধারে পালিয়ে যান তিনি। এরপর থেকে ইটভাটা করে দেন তার স্ত্রী। ইট পাওয়ার আশায় প্রায়ই ভাটার সামনে ভীড় করেও কিনারা না পেয়ে অনেকে থানা—পুলিশ এমনকি আদালতে শরনাপন্ন হচ্ছেন।সদর ইউনিয়নের শ্রীপুর এলাকার বাসিন্দা জসিম উদ্দিন একটি ইনসিওরেন্স কোম্পানীতে কর্মরত।

তিনি জানান, শশুরের ঘর করার জন্য ২ লাখ ও স্থানীয় একটি সমিতির জন্য ২ লাখ ৬৮ হাজার ইট কেনার জন্য মাহমুদুল হাছানকে প্রায় ২৮ লাখ টাকা অগ্রীম জমা দেন। এর মধ্যে তিনি শুধুমাত্র ৬৫ হাজার ইট নিয়েছেন। বাকি ইট দেয়ার আগেই তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা।পরশুরাম বাজারের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম মজুমদার মোমিন জানান, ২ লাখ ৯৩ হাজার ইট কেনার জন্য সহ বিভিন্ন কিস্তিতে ধার হিসেবে ৪৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছি। এরমধ্যে শুধুমাত্র ৩৩ হাজার ৫শ ইট দিয়ে মাহমুদুল হাছান পালিয়েছেন।

ব্রিকফিল্ডের বন্ধের খবর পেয়ে তাকে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছি। আদালতের কার্যক্রম স্বাভাবিক হলে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।সদর ইউনিয়নের উত্তর দৌলতপুর সাহাপাড়া এলাকার বাসিন্দা মদন সাহা নামের এক ব্যবসায়ী জানান, ২ লাখ ইটের জন্য ওই ব্রিকস ফিল্ডের ম্যানেজারের মাধ্যমে ১২ লাখ টাকা অগ্রীম দিয়েছি। ইট বুঝিয়ে দেয়ার আগেই মাহমুদুল হাছান উধাও হয়ে গেছেন।নবী নামে এক ঠিকাদার জানান, ইট কিনতে সাড়ে ৪ লাখ টাকা অগ্রিম দিয়েছেন। দেড় লাখ টাকার মালামাল পেলেও ২ লাখ ৫০ টাকার ইট এখনো পাননি।পরশুরাম উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি গত বছরের আগস্ট মাসে ২০ হাজার ইটের জন্য অগ্রিম এক লাখ দিয়েছি। আমাকে ইট বুঝিয়ে দেয়ার আগেই মাহমুদুল হাছান পালিয়ে গেছেন।লালমনিরহাট জেলার মাটি কাটার শ্রমিক মো. আপেল, শিমুল, আশিক, মিঠু, ফারুক ও সুমন ইসলাম বকেয়া টাকা পাওয়ার আশায় এখনও ইটভাটায় অপেক্ষা করছেন। তাদের প্রত্যেকে ২০-২৫ হাজার টাকা করে পাওনা।শ্রমিক সর্দার ছাদেক মাঝি বলেন, আমরা সবাই নিম্নআয়ের শ্রমিক। কেউ মাটি কাটে, কেউ মাটি টানে। মজুরি না দিয়ে ঈদের আগে মালিক পালিয়ে যাওয়ায় সবার পরিবার নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

নিউ পরফুল ব্রিকস ফিল্ডের ম্যানেজার সপ্তম সাহা জানান, প্রায় দেড় কোটি টাকা নিয়ে মালিক মাহমুদুল হাছান পালিয়ে গেছে। এখন সব মানুষ আমাকে ধরছে। আমিওতো এখানে টাকার জন্য চাকরি করছি। আমারও ৪ মাসের বেতন বাকি। এমডির নম্বরে ফোন করলে তার স্ত্রী ফোন ধরে তার কোনো খোঁজ জানেন না।ফুলগাজী থানার ওসি মো: কুতুব উদ্দিন জানান, মৌখিকভাবে অনেকেই জানিয়েছেন। কিন্তু লিখিতভাবে কেউ অভিযোগ দেননি।