ব্রেকিং:
কুবিতে সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় ৩ শিক্ষার্থী বহিষ্কার পূর্ব যে কোন সময়ের তুলনায় এই সময়ে এসিড সন্ত্রাস কমে এসেছে বসন্তের আগেই বাসন্তী সাজে কুমিল্লা ইপিজেড! পুলিশকে ভয় পাবেন না বরং তাদেরকে বন্ধু ভাবুন ছাত্রলীগ নেতার সাহসিকতায় মাদক সম্রাট আটক সরু রাস্তার কারণে লাশের খাটিয়া বহনে বিড়ম্বনা একে একে বেরিয়ে আসছে কুমিল্লায় আলোচিত ৬ হত্যাকাণ্ডের ক্লু ছাড়পত্র আনতে ক্লিনিকগুলোকে সিভিল সার্জনের চিঠি কুমিল্লা জেলা পুলিশের ৮টি সেরা পুরস্কার অর্জন মহাসড়কের সৌন্দর্য ফেরাতে ময়লা-আবর্জনা অপসারণ কুবি`র পাঁচ শিক্ষার্থী পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক কৃষিতে বেকারত্ব নিরসনের সম্ভাবনা কুমিল্লার তরুনদের ফেব্রুয়ারিতেই চালু হচ্ছে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিনের জাহাজ নোট-গাইড পড়ানো ও বাড়তি ফি আদায় বন্ধের নির্দেশ আউটসোর্সিংয়ে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে বাংলাদেশ পণ্য কিনে প্রতারিত হলে অভিযোগ করুন এভাবে সালাত ও জাকাতে অলসতাকারীর পরিণতি ১ম পর্ব নামের মিল থাকায় জেল খাটছেন চা দোকানি বাংলাদেশের সফরের আগে লাহোরে ৩ সন্ত্রাসী গ্রেফতার অধ্যক্ষের নগ্ন ভিডিও ফাঁস, ফেসবুকে তোলপাড়

বুধবার   ২২ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৯ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
১৩২৫

চিকিৎসকের দায়িত্বহীনতায় চরম ভোগান্তিতে রোগীরা

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০১৯  

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে রোগী ভর্তি করা হয় সাড়ে চারটায়। সেই রোগীকে ক্যাজুয়ালটি বিভাগে অপারেশন থিয়েটারে অপারেশন বেডে ১ঘন্টা শুয়ে থাকার পর চিকিৎসা মিল্ল রোগীদের।   জরুরী বিভাগ থেকে ক্যাজুয়ালটি ওয়ার্ডে পাঠানোয় হয় হাত কাটা রাব্বি(১৬) , আছিয়া আক্তার (৩০) মারিয়া (৪) । এদের মধ্যে কেই মারামারি করে এসেছে আবার কেউ সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসা নিতে এসেছে। অপারেশন থিয়েটারে প্রবেশের পর অপারেশন বেডে প্রায় ১ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও কর্তব্যরত কোন ডাক্তারকে পাওয়া যায়নি। হাসপাতালের পরিচালককে ফোন করার পর তিনি জানালেন আমি এখন কি করব। পরিচালক মুঠোফোনে ব্রাদার ওয়াজিরকে বল্লেন ডাক্তারকে খোজে বের করার জন্য। ব্রাদার ওয়াজির ও নার্স পারুল দুইজন ডাক্তারের তালাবদ্ধ কক্ষ খুলে সেখান থেকে নাম্বার সংগ্রহ করে ফোন দিলেন ডাক্তারকে। ডাক্তার বল্লেন তিনি বিষয়টি দেখছেন। এই হলো কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়ালটি বিভাগের চিকিৎসা সেবার চিত্র। উর্দ্ধতনরা জনবল সংকটের দোহাই দিয়ে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত করছে রোগীদের।  
গতকাল ০৬ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়ালটি বিভাগে গিয়ে এসব চিত্র চোখে পড়ে। পরে পৌনে ছয়টায় হাসপাতালে আসে ইন্টার্ণ ডাক্তার। ছয়টায় চিকিৎসা দেওয়া হয় রোগীদের।
১ঘন্টা পর দুই ইন্টার্ণ ডাক্তার আসলেন তারা রোগীদের দেখলেন একজনকে সেলাই করার নির্দেশ দিলেন অন্যজনকে বল্লেন বেন্ডিজ কের ফেলে রাখতে । ক্যাজুয়ালটি বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা: আরিফুর রহমান  আসলে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হবে। হাতের রগকাটা বিষয়টি ক্রিটিক্যাল । সিনিয়র ডাক্তার ছাড়া তাকে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব নয়। তখন মারিয়া আক্তার ৪ বছরের শিশুটিকে চিকিৎসা দেওয়া হল।
হাসপাতালে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ডাক্তারগন যথাসময়ে উপস্থিত থাকেন না দীর্ঘদিনের অভিযোগ। তাছাড়া পুরো হাসপাতাল ইণ্টার্ণ ডাক্তার নির্ভর। যার কারণে হাসপাতালে নানা সময়ে ঘটে নানান অপ্রীতিকর ঘটনা। এজন্য হাসপাতালে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। কিন্তু পুলিশ কি পারবে সাধারণ মানুষের দীর্ঘদিনের এ সমস্যা সমাধান করতে প্রশ্ন ভোগÍভোগীদের।
হাসপাতালের সহকারী রেজিস্ট্রার আরিফুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি বিষয়টি দেখছি। হাসপাতালে একঘন্টা ডাক্তার নেই বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি। আপনার মাধ্যমে জানতে পেরেছি।
হাসপাতালের পরিচালক ডা: আমিন আহাম্মদ খান জানান, একটু ধৈয্য ধরেন। একটু সময় দেন। মানুষ তোন যন্ত্র নয়। মানুষের সমস্যা থাকতেই পারে। আমাদের ডাক্তার নেই ডাক্তার সংকট রয়েছে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর