ব্রেকিং:
১৫ বছরেও হয়নি মনোহরগঞ্জের নিজস্ব পোস্টাল কোড ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৬ ডাকাত আটক নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন মেঘনায় জেলেদের হামলায় ১০ নৌ-পুলিশ আহত বিরল দৃষ্টান্ত, পুলিশের হাতে সন্তানকে তুলে দিলেন মা দেশে একদিনে আক্রান্ত এক হাজারের বেশি, মৃত্যু বেড়েছে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়ন শুরু করেছে সরকার নারীদের একাকিত্বকে টার্গেট করেই চলে কামালের ধর্ষণ আর প্রতারণা ৭ বছরের চাচাতো বোনকে ধর্ষণ করল ১৪ বছরের কিশোর! বিশ্বে একদিনে আক্রান্ত ৪ লাখের বেশি, মৃত্যু ৫৫৯৯ সড়কে গাছ ফেলে পুলিশের গাড়িতে ডাকাতি! স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১ নভেম্বর থেকে সবার মিলছে ওমরার সুযোগ স্ত্রীর সামনেই মুরগির সঙ্গে বিকৃত যৌনতায় মেতে ওঠেন রেহান দেশে এক গাভি বছরে জন্ম দেবে দু্টি বাছুর নারীদের অংশগ্রহণ আরো বাড়ানোর আহ্বান বাংলাদেশের আসলের মোড়কে নকল পণ্যের ছড়াছড়ি, বিপাকে ক্রেতারা ২০৩০ সালের মধ্যে সড়কে মৃত্যু ৫০ শতাংশ কমানো হবে কিশোর ইয়াসিন খুনের প্রধান আসামি গ্রেফতার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে স্বল্প আয়ের মানুষ চান্দিনায় অবাধে চলছে ড্রেজার মেশিন
  • রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১০ ১৪২৭

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

১৪

চুরি হওয়া হাঁস খোঁজাকে কেন্দ্র করে হামলা ভাংচুর

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০২০  

কুমিল্লার লাকসামে তুচ্ছ ঘটনায় হামলা ভাংচুর এবং লুটপাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে উপজেলার আজগরা ইউপির ঘাটার নোয়াগাঁও গ্রামে। (৪অক্টোবর) রবিবার ভুক্তভোগী সুফিয়া বেগম বাদী হয়ে চার জনকে অভিযুক্ত করে লাকসাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাদীর পাশ্ববর্তী ঘরের তাসলিমা আক্তারের একটি হাঁস চুরি হয়। পরে তাসলিমা সুফিয়া বেগমকে সাথে নিয়ে বিভিন্ন যায়গায় চুরি হওয়া হাঁসের সন্ধানে বের হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাশ্ববর্তী বাড়ির ছায়েদুর রহমানের ছেলে রানা, মহিন মিয়া, ছায়েদুর রহমান, জহিরুল ইসলামের স্ত্রী ছামিনা বেগম সহ কয়েকজন মিলে হতদরিদ্র আবদুস সাত্তারের স্ত্রী সুফিয়া বেগমের বসত ঘর কুপিয়ে ভাংচুর, লুটপাট করে। এসময় ঘরে থাকা নগদ অর্থ, স্বর্নালংকার লুটসহ প্রায় ৬০হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। হামলা লুটপাটের বিষয়ে বাড়াবাড়ি করলে অভিযুক্তরা প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগও করা হয়। এ ঘটনায় (৪অক্টোবর) রবিবার ভুক্তভোগী সুফিয়া বেগম বাদী হয়ে লাকসাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সরেজমিনে গিয়ে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত কাউকে পাওয়া যায়নি। অভিযোগ তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এস.আই সেলিম চৌধুরী বলেন, আমি অন্য একটা মামলায় ব্যস্ত রয়েছি। অভিযোগপত্রটি এখনো বুঝে পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর