ব্রেকিং:
এপ্রিলেই মিলবে ক্ষতিপূরণের ১২০ কোটি টাকা জাতিসংঘ শান্তিবিনির্মাণ কমিশনের সহ-সভাপতি হলো বাংলাদেশ রোজা উপলক্ষে ভারত থেকে ৩৮০০ মেট্রিক টন মসুর ডাল আমদানি বাংলাদেশ-ভারত অকৃত্রিম বন্ধু: প্রণয় ভার্মা গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ রাজস্ব ভাণ্ডার গড়ে তোলার ওপর প্রাধান্য দিচ্ছে সরকার সামাজিক সংগঠন চাঁদমুখ এর কমিটি গঠন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কোয়াটার উদ্বোধন মতলব দক্ষিনে পৌর শ্রমিক লীগের পরিচিতি সভা স্মার্ট রাজনীতিতে দেশের স্বার্থ সবচাইতে আগে প্রাধান্য পাবে ফরিদগঞ্জে বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম : আটক ১ মনোনয়ন প্রত্যাশী রেদওয়ান খান বোরহানের গণসংযোগ ১০ দফা দাবিতে বিএনপি কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশ আজ জনগণের মাঝে দীপু আপার উন্নয়নের কথা পৌঁছাতে হবে -আলী এরশ্বাদ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মায়া চৌধুরীর জন্মদিন পালিত কচুয়ায় আমিনুল ইসলামকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান শেখ হাসিনা সরকার আমলে কেউ কষ্টে নেই: এমপি রুহুল শেখ হাসিনা দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর জন্য কাজ করছে কচুয়ায় ৫১ বছর পর অবশেষে কাঠালিয়া গ্রামবাসীর স্বপ্ন পূরন বুড়িচংয়ে ১৬৮ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা
  • রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

জন্মদিনে দেবীদ্বারে এতিম-পথশিশুদের খাওয়ালেন ডা. ফেরদৌস

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০২৩  

যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী চিকিৎসক ফেরদৌস খন্দকার নিজ উপজেলা কুমিল্লার দেবীদ্বারে পাঁচ হাজারের বেশি সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণ করেছেন। তাদের মধ্যে এতিমখানার শিক্ষার্থী, পথশিশুসহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ ছিল। মূলত মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দেশের এই পরিচিত মুখ ডা. ফেরদৌস খন্দকারের জন্মদিন ছিল। এ উপলক্ষে শিশু ও অসহায়দের মাঝে খাবার বিতরণের ব্যবস্থা করেন তিনি। 

শেখ রাসেল ফাউন্ডেশন, ইউএসএ শাখার সভাপতি ডা. ফেরদৌস খন্দকার এরই মধ্যে নিজের উপজেলা দেবীদ্বারের প্রতিটি এলাকায় বিভিন্ন সামাজিক ও মানবিক কল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডে নিজেকে যুক্ত করেছেন। খাবার পেয়ে হাসি ফুটেছে এতিম, পথশিশু আর সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মুখে।

শেখ রাসেল ফাউন্ডেশন, দেবীদ্বার উপজেলা শাখার স্বেচ্ছাসেবকরা মঙ্গলবার দুপুরের মধ্যে উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নের মধ্যে থাকা বিভিন্ন এতিমখানা, পথশিশু ও অসহায়দের কাছে খাবার পৌঁছে দেন। 

বিকেলে ডা. ফেরদৌসের নিজ গ্রাম উপজেলার বাকসারে কেক কাটা ও খাবার বিতরণের আয়োজন হয়। সেখানেও এলাকার প্রায় সকল বয়সের সুবিধাবঞ্চিত মানুষ অংশ নেয়। সেখানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি শাহিনূর লিপি, উপজেলা কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, নারী সংগঠক শামীমা আক্তার রিমা, ফাউন্ডেশনের উপজেলা সদস্য সাইফুল আলমসহ অনেকে। 

একটি এতিমখানার শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ বলে, ‘অনেকে আমাদের খবরও নেয় না। কিন্তু বিদেশে থেকেও তিনি আমাদের কথা ভেবেছেন। আমরা তার জন্য দোয়া করি।’ 

মাসুম বিল্লাহ নামের এক শিশু বলে, ‘ডা. ফেরদৌস খন্দকারের জন্মদিনে আমরা অনেক আনন্দ করেছি। দুপুরে ভালো খাবার খেয়েছি। বিকেলে কেক আর নাস্তা খেয়েছি। সবাই মিলে অনেক মজা করেছি।’

আলী আহমেদ নামের এক কৃষক বলেন, ‘অনেক অসহায় মানুষ এক বেলা ভালো খেতে পেরেছে। তিনি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। আমরা চাই তিনি সব সময় আমাদের পাশে থাকেন। আমরা তার জন্য দোয়া করি।’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেখ রাসেল ফাউন্ডেশন, ইউএসএ শাখার সভাপতি ডা. ফেরদৌস খন্দকার বলেন, ‘দেবীদ্বার আমার জন্মভূমি। যেখানেই থাকি সব সময় মাথায় রাখি জন্মভূমির জন্য কিছু করতে হবে। এ জন্য দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করছি মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাওয়ার। আমাদের প্রতিটি কাজই সেবামূলক। সামনে এই কার্যক্রমকে আরো ব্যাপকহারে প্রসারিত করতে চাই। আর এক বেলা খাবার বিতরণ খুব বড় বিষয় না, সেটা আমি জানি। এটা ছিল  আমার জন্মদিনের আনন্দ সকলের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেওয়ার ক্ষুদ্র চেষ্টা।’