ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ডাক্তারের ভুল অপারেশনে প্রসূতির মৃত্য, মাতৃগর্ভেই প্রাণ গলে নবজাত

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০২২  

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গেইটের সামনে অবস্থিত নিবন্ধনহীন সেন্ট্রাল হাসপাতাল এ ডাক্তারের ভুল অপারেশনে এক প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। প্রসূতির মৃত্যুর পর ডাক্তারগণ পালিয়ে যাওয়ায় গর্ভেই প্রাণ যায় নবজাতক শিশুর। পরে একদিন হাসপাতালে লাশ রেখে দালালদের মধ্যস্থতায় গতকাল ১৫ অক্টোবর শনিবার দুপুরে ঘটনার রফা দফা হয়।

নিহত প্রসূতি মাহমুদা আক্তার (৪৫) উপজেলার লটিয়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী।

গত শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ওই প্রসুতিকে সিজারীয় অপারেশন করার সময় অপারেশন থিয়েটারেই মৃত্যু হয় বলে জানা যায়।

পারিবারিক তথ্য সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার গর্ভবতী মাহমুদার প্রসব বেদনা উঠলে এক দালালের মাধ্যমে হোমনা সরকারি হাসপাতালের গেইটে অবস্থিত হোমনা সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ওই দিন বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে কোন প্রকার প্রস্তুতি ছাড়াই মাহমুদাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয় এবং ভাড়া করা দিলশাদ বেগম নামে এক ডাক্তারের মাধ্যমে সিজার করানো হয়। এ সময় এনেস্থিশিয়ান দেন মামুন নামের একজন। মামুন ডাক্তার কি না কেউ জানে না। অপারেশন শুরুর সাথে সাথেই অপারেশন রোগি চিৎকার শুরু করে এবং রক্তক্ষরণ হতে থাকে। এক সময় প্রসূতির অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়ে নিস্তেজ হলে কোন নবজাতক শিশুটিকে বের না করেই দায়সারা ব্যান্ডিজ দিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রেফার করে ডাক্তার পালিয়ে যায় এবং রোগীর মৃত্যু ঘটে।

এই ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে এক শ্রেণির দালালচক্র পুলিশী হয়রানীর ভয় দেখিয়ে প্রসূতির স্বজনদের সাথে দুই লাখ টাকায় রফা করে এবং কোন রকম ময়নাতদন্ত ছাড়াই শনিবার দুপুরে লাশের দাফন সম্পন্ন করা হয়। এ বিষয়ে ডাঃ দিলশাদ বেগম ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে বার বার যোগাযোগ করেও কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ আবদুছ ছালাম সিকদার জানান, আমি মাসিক সভায় বরুড়ায় আছি। কোন অভিযোগ পাইনি। তার পরেও তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুমন দে বলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে কথা বলে তদন্তপূর্বক এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ৬ মাসের ব্যবধানে হোমনা সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় এ নিয়ে ৪ জন প্রসূতি ও ১টি নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। সবগুলো ঘটনাই মোটা অংকের টাকায় রফা হয় আর সংশ্লিষ্টরা অভিযোগ দেয়নি অজুহাতে দায়সারাভাবে থাকে।

স্বদেশপ্রতিদিন/ইমরান