ব্রেকিং:
মাস্কের টুইটে উত্তাল ভারতের রাজনীতি চার মাসে বিদেশে চাকরি কমেছে ২০ শতাংশ রাজধানীর বড় বড় হাসপাতাল যেন ‘বাতির নিচে অন্ধকার’ ঈদের দিন যেসব উন্নত খাবার পেলেন কারাবন্দিরা আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি হাসিল নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল বাজারে লঙ্কাকাণ্ড টিনের বেড়ায় বিদ্যুতের তার চাঁদপুরে অর্ধশত গ্রামে ঈদ উদযাপন স্বস্তিতে ঘরমুখো মানুষ যেভাবে গড়ে ওঠে শতবর্ষী কুমিল্লা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ বেশি ভাড়া রাখায় উপকূল পরিবহনকে জরিমানা মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা চামড়া সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে র‌্যাবের কঠোর হুঁশিয়ারি ঈদে ট্রেনে মানুষের নির্বিঘ্নে বাড়ি যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ খাদ্যসামগ্রী ও দেড় শতাধিক মানুষ নিয়ে জাহাজ গেল সেন্ট মার্টিন কুমিল্লায় বেতন-বোনাসের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ আফজাল খান পত্নী বীর মুক্তিযোদ্ধা নার্গিস আফজালের ইন্তেকাল
  • মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪৩১

  • || ১০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

তিতাসে শিক্ষককে মারধরের ঘটনায় ছাত্র আটক

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২০ মে ২০২৪  

কুমিল্লার তিতাস উপজেলার মজিদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গনিত শিক্ষক মোঃ আতিকুর রহমান আতিককে কে মারধরের ঘটনায় অত্র বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র সোলেমানকে আটক করেছে তিতাস থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের ক্লাস রুমে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত ১৬ মে বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সোলেমানের কাকা ওই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৩ নম্বর হওয়াতে ছাত্র সোলেমান ক্লাস চলাকালীন সময় বিভিন্নজনকে মারধর করবে বলে জোরে জোরে কথা বলা শুরু করে। পরে ক্লাসের শিক্ষক আতিকুর রহমান আতিক তাকে থামতে বলে সে আরো জোরে জোরে কথা বলা শুরু করে। এক পর্যায়ে শিক্ষক তার কাকা নবনির্বাচিত অভিভাবক সদস্য জসিম উদ্দিনকে ফোন দেওয়ার চেষ্টা করলে ছাত্র চড়াও হয়ে শিক্ষককে মারধর শুরু করে। তখন ক্লাসে শিক্ষার্থীরা তাকে আটক করে রাখে। পুলিশ খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে তিতাস থানায় নিয়ে আসে।
শিক্ষক আতিকুর রহমান বলেন, তার জোর গলার আওয়াজ শুনে আমি বলি এসব বাহিরের ঘটনা তুমি ক্লাসে এসব কথা বন্ধ করো, তখন সে আমার সাথে আরো উত্তেজিত হয়ে যায়। পরে তার কাকাকে ফোন দেওয়ার চেষ্টা করলে সে আমাকে মারধর শুরু করে এবং আমার ঘার ধরে টেবিলে আঘাত করে এবং টেবিলের নিচে আমার মাথা নিয়ে নেয়। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করি। অভিযুক্ত সোলেমান বলেন,স্যার আমাকে ক্লাস থেকে বের হয়ে যাওয়ার কথা বল্লে আমি বের না হওয়ায় আমাকে ধাক্কা মারে তখন আমি স্যারের গায়ে হাত তুলি।তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাঞ্চন কান্তি দাস বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাই এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে ।অভিযুক্তকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।