ব্রেকিং:
পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন, বাংলাদেশিদের রবিবার থেকে এনওসি দেওয়া হবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের চার দশক পূর্তিতে তথ্যচিত্র ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘টাউকটে’ তিন ওয়ানডে খেলতে ঢাকায় শ্রীলংকা ক্রিকেট দল ইসরায়েলকে সমর্থন জানিয়ে বাইডেনের ফোন ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলায় নিহত বেড়ে ১৪৯ ফের বাড়ল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ঈদ উপলক্ষে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার আরো সাতদিন বাড়ছে লকডাউন, রোববার প্রজ্ঞাপন করোনায় ভাই হারালেন মমতা ব্যাংক-বিমা ও শেয়ারবাজার খুলছে কাল গাজায় ৪০ মিনিটে ৪৫০ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল ইসরায়েল স্বাস্থ্যবিধি পালনে সর্বোচ্চ সতর্কতার আহ্বান কাদেরের দেশেই টিকা উৎপাদনের ব্যবস্থা নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী উপকূলের ঘরে ঘরে ডিজিটাল ব্যাংক ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরার ব্যবস্থা ঈদের পর বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ের সর্বোচ্চ রেকর্ড লকডাউনে বিচারিক ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ খালেদার ভুয়া জন্মদিন পালনের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত ভালোবাসায় বড় হচ্ছে যে মসজিদ
  • রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ভারত, বাড়ি-ঘর ও রাস্তায় ফাটল

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৮ এপ্রিল ২০২১  

ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ভারতের উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলা। আজ বুধবার (২৮ এপ্রিল) সকালে কম্পন অনুভূত হয়েছে দক্ষিণবঙ্গেও। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ৬.৪। অসমের গুয়াহাটির কাছে শোনিতপুরে ভূপৃষ্ঠের থেকে ২১.৪ কিলোমিটার নীচে ভূমিকম্পের উৎসস্থল বলে জানা গিয়েছে। ভূমিকম্পের জেরে অসমে বেশ কয়েকটি বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে। দ্বিতীয় কম্পনের মাত্রা আরও তীব্র ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। গুয়াহাটি থেকে ১১ কিলোমিটার উত্তর ও উত্তর-পূর্বে এই কম্পনের তীব্রতা বেশি ছিল বলে জানা যায়।

আজ সকাল ৭টা ৫১ মিনিটে শোনিতপুরে প্রথম কম্পন অনুভূত হয়। তার পরে ৭টা ৫৪ মিনিট নাগাদ কম্পন অনুভূত হয় উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, কালিম্পং প্রভৃতি জেলায়। কেঁপে ওঠে পায়ের তলার মাটি। এছাড়া মালদা, মুর্শিদাবাদ ও দক্ষিণবঙ্গের কিছু জেলাতেও কম্পন অনুভব করেন বাসিন্দারা। এমনকি কলকাতাতেও মৃদু কম্পন অনুভূত হয়েছে।

ভূমিকম্পের আতঙ্কে বাড়ি ছেড়ে খোলা আকাশের নীচে চলে আসেন মানুষ। বেশ কিছু জায়গায় বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে পড়েছে বলে জানা যায়। বাড়ি-ঘর ও রাস্তাতেও ফাটল ধরেছে অনেক জায়গায়। তবে ঠিক কতটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনও জানা জায়নি। কোচবিহার জেলায় অনেকক্ষন ধরে কম্পন অনুভব করেন বাসিন্দারা। পাশাপাশি বহুতল থেকে ছুটে নামার হিড়িক শুরু হয়। অনেকেই দৌড়ে রাস্তায় ছুটে আসেন। ভবানীগঞ্জ বাজার এলাকায় সাত সকালে বাজার করতে এসে থমকে দাড়ান সকলে। যানবাহন চলাচল থমকে যায় কিছুক্ষনের জন্য। স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয় আবার আফটার শক অনুভূত হবে কিনা। স্থানীয় মহিলারা অন্ধবিশ্বাস থেকে বিপদ এড়াতে উলুধ্বনি দিতে শুরু করেন।