ব্রেকিং:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিয়ের গেটের ডিজাইন নিয়ে সংঘর্ষ, আসামি ৯ শতাধিক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, শ্বশুর বাড়িতে ধরা পড়ল দুই ধর্ষক ডিমের মূল্য তালিকা-ক্রয়ের রশিদ না থাকায় জরিমানা প্রবাসীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ, গ্রেফতার ৬ আখাউড়ায় চোরাই মোটরসাইকেলসহ যুবক আটক বাজারে চুরির ঘটনায় ৩ নৈশ প্রহরী গ্রেফতার ‘সাদা কালা’ গানে এবার ঝড় তুললেন নোয়াখালীর ৫ যুবক এক ঘণ্টায় শেষ বাংলাদেশের ম্যাচের সব টিকিট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করবে ম্যানেজিং কমিটি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না: আইনমন্ত্রী মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় জরিমানা গুনলো দুই ফার্মেসি ঝরে পড়া শিশুদের পাঠদানে ফেরাতে প্রশিক্ষণ দম্পতিকে শৌচাগারে আটকে রাখায় আত্মহত্যা চেষ্টা সরকারি ভবনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ী ব্যবহারের নির্দেশনা জারি প্রত্যাবাসন নিরাপদ না হলে আবারো ফেরত আসবে রোহিঙ্গা ৪০ বছরের মধ্যে যুক্তরাজ্যের মূল্যস্ফীতি সর্বোচ্চ শিক্ষার্থীদের হেনস্তা করায় কুমিল্লায় ট্রেন আটকে প্রতিবাদ ইউক্রেন সফরে আসছেন এরদোগান ও গুতেরেস প্রেমের টানে বগুড়ায় এসে ধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার ২ রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল কেনার উপায় খোঁজার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৩ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

দুই ছেলের ভয়ে থানায় বাবা

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২১ মে ২০২২  

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ঢালুয়া ইউনিয়নের মগুয়া গ্রামের শামছুল আলম ও দিদারুল আলম মাসুদ নামে দুই ছেলের ক্রমাগত হামলা, মামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে ভয়ে নাঙ্গলকোট থানায় হাজির হয়েছেন বাবা নুরুল হক। তিনি ছেলেদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ভুক্তভোগী নুরুল হক পেশায় হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক। তার অভিযোগের জেরে শুক্রবার সকালে ছোট ছেলের বাড়ির মাটি এক্সকেভেটর দিয়ে কেটে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। এতে বাধা দিলে অভিযুক্তরা সন্ত্রাসীদের দিয়ে আক্রমণ চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাবা ডা. নুরুল হকের সম্পত্তি লিখে নিতে দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালাচ্ছে শামছুল আলম ও দিদারুল আলম মাসুদ। এতে রাজি না হওয়ায় বাবাকে বারবার আক্রমণ ও হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। এছাড়া দুই ভাইয়ের সঙ্গে একমত না হওয়ায় বড় ভাই নুরুল আলম ও ছোট ভাই মনজুরুল আলমের ওপর কয়েক দফা হামলা চালায় তারা।

ভুক্তভোগী ডা. নুরুল হক বলেন, আমি, আমার ছেলে মনজুরুল আলম ও নুরুল আলম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যেকোনো সময় তারা আমাদের মেরে ফেলতে পারে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করি।

নাঙ্গলকোট থানার এসআই ইয়ামিন সুমন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। এখন পরিস্থিতি শান্ত আছে।