ব্রেকিং:
মাস্কের টুইটে উত্তাল ভারতের রাজনীতি চার মাসে বিদেশে চাকরি কমেছে ২০ শতাংশ রাজধানীর বড় বড় হাসপাতাল যেন ‘বাতির নিচে অন্ধকার’ ঈদের দিন যেসব উন্নত খাবার পেলেন কারাবন্দিরা আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি হাসিল নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল বাজারে লঙ্কাকাণ্ড টিনের বেড়ায় বিদ্যুতের তার চাঁদপুরে অর্ধশত গ্রামে ঈদ উদযাপন স্বস্তিতে ঘরমুখো মানুষ যেভাবে গড়ে ওঠে শতবর্ষী কুমিল্লা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ বেশি ভাড়া রাখায় উপকূল পরিবহনকে জরিমানা মিয়ানমার সীমান্তের পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ রাখাইনে বড় সংঘাতের আশঙ্কা, বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ একদিনে পদ্মাসেতুর আয় পৌনে ৫ কোটি টাকা চামড়া সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে র‌্যাবের কঠোর হুঁশিয়ারি ঈদে ট্রেনে মানুষের নির্বিঘ্নে বাড়ি যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ খাদ্যসামগ্রী ও দেড় শতাধিক মানুষ নিয়ে জাহাজ গেল সেন্ট মার্টিন কুমিল্লায় বেতন-বোনাসের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ আফজাল খান পত্নী বীর মুক্তিযোদ্ধা নার্গিস আফজালের ইন্তেকাল
  • মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪৩১

  • || ১০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

দেবিদ্বারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই শ্রমিকের মৃত্যু

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০২৪  

কুমিল্লার দেবিদ্বারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টের পৃথক দুটি ঘটনায়  জহিরুল ইসলাম (২৮) ও  মো. মনির হোসেন (২৩) নামে         দুই শ্রমিককের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরও দুই শ্রমিক আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। আহতরা দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানায় পৃথক দুটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।  
জানা গেছে,  গত শনিবার বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার ইউসুফপুর ইউনিয়নের মোগসাইর গ্রামের রঞ্জিত দাসের পুকুরে ক্রুটিযুক্ত সেচপাম্পের ইলেকট্্িরক মোটর মেরামত করতে গিয়ে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে পুকুরের পানিতে বিদ্যুৎতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই জহিরুল ইসলামের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে দেবিদ্বার থানা পুলিশ লাশ জহিরুলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। নিহত জহিরুল ইসলাম ইউসুফপুর ইউনিয়নের এগারগ্রামের মো. সহিদ মিয়ার ছেলে ।  
অপর ঘটনার প্রত্যক্ষদশীর্রা জানান, রবিবার (১০জুন) বিকাল ৩টার দিকে পৌরসভার চান্দিনা রোডে হিলফুল ফুজুল স্কুলের পাশে  সৌদী প্রবাসী জসিম উদ্দিনের নির্মাণাধীন ভবণের চারতলা  ভবনে রশিতে লোহার রড বেঁধে উপরে তোলার সময় পাশে থাকা ফোর ফোরটি বৈদ্যুতিক লাইনের তারে লেগে মনির হোসেনসহ আরও তিন শ্রমিক আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মনির হোসেনকে মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনায় আহত শ্রমিক শাকিল ও সাগর বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।  
নিহত মনির হোসেন  মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার টনকি ইউনিয়নের সোনারামপুর গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের ছেলে। নিহত মনিরের স্ত্রী রোজিনা আক্তার বলেন, গত দুই বছর ধরে চান্দিনা রোডের একটি ভাড়া বাসায় থেকে নির্মাণ শ্রমিককের কাজ করত আমার স্বামী। রবিবার বিকালে কাজের ফাঁকে বাসায় এসে খাওয়া-দাওয়া শেষ করে আবার কাজে যায়। আমার দুই বছর ও ১০ মাসের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। আমি এ সন্তানদের নিয়ে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছি।    
দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নয়ন মিয়া বলেন, বিদ্যুৎপৃষ্টের পৃথক দুই ঘটনায় দুইজন মারা গেছেন। তাদের লাশ সুরতহাল শেষে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ বিষয়ে নিহতদের স্বজনরা কারও বিরুদ্ধে কোন লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।