ব্রেকিং:
তদন্তে গাফিলতি প্রমাণিত হলে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা: রেলমন্ত্রী টুটুলের আবিষ্কার: পলিথিন থেকে জ্বালানি বাংলাদেশের ফুটবলে চমক উপহার দিতে চায় ব্রাজিল জঙ্গিবাদের রূপ দিতে আবির্ভাব হয় সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি চার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান রাজধানীতে ৫০ কোটি টাকার সাপের বিষ উদ্ধার ভারতের দূর্বল জায়গায় আঘাত করবে বাংলাদেশের স্পিন অস্ত্র! মাদকাসক্ত হলেই সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা রিকশা চালক শিশু স্বপ্না ডাক্তার হতে চায় ১১ বছরে ৩৩৯টি কলেজ সরকারিকরণ করা হয়েছে: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারকে বোঝানোর জন্য চীনের প্রতি আহ্বান বৃদ্ধা মাকে সড়কে ফেলে গেলো সন্তান, ওসি দিলেন বুকে ঠাঁই জেনারেল আজিজ- একজন নিবেদিতপ্রাণ গলফার সেনাপ্রধান ‘প্রাণ-মিল্কভিটা-আড়ংসহ পাস্তুরিত সব দুধই মানহীন’ বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে লিভার প্রতিস্থাপনে সফল অস্ত্রোপচার ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য শূন্যের কোটায় আসবে কালো সোনা সাদা করে হাজার কোটি টাকা পাচ্ছে সরকার মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশনে আপত্তি, নার্সকে পেটাল ফার্মেসির লোক ২৮ জুন বসবে পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান

বৃহস্পতিবার   ২৭ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১৪ ১৪২৬   ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
৬৩

নকশা বহির্ভূত ভবনের বিরুদ্ধে কঠোর হচ্ছে কুসিক

প্রকাশিত: ৮ জুন ২০১৯  

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নকশা বহির্ভূত ভবনের বিরুদ্ধে কঠোর হচেছ। এরইমধ্যে ৮৫টি নকশা বহির্ভূত ভবন ও অনুমতি ছাড়াই নির্মাণ করা ৯টি ভবনের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এ তালিকা ডিসির কাছে দেয়া হবে। এরপর ভবন মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসন।

১৬ মে এক চিঠিতে নকশা অনুমোদন ছাড়া ও অনুমোদিত নকশা বহির্ভূত আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবনের তালিকা তৈরি করার আদেশ জারি করেন মেয়র মনিরুল হক। এতে নগর ভবনের সহকারী প্রকৌশলী আবদুস সালাম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবদুর রব ও কাজী মাকসুদুর রহমান এবং কানুনগো মো. আবুল কাশেমকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

মেয়রের সই করা ওই চিঠিতে বলা হয়, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনে কর্তৃপক্ষের নকশা অনুমতি ছাড়া আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ছাড়া সড়কের জন্য ছেড়ে দেয়া জায়গার মধ্যে নকশা অনুমোদনের পর ভবন বর্ধিত করে অঙ্গীকার ভঙ্গ করা হচ্ছে। কেউ কেউ ভবনের উচ্চতা ও তলা বৃদ্ধি করেছেন। যা ইমারত নির্মাণ আইন ও বিধি পরিপন্থী। এই প্রেক্ষাপটে ইমারত নিয়ন্ত্রণ করার লক্ষ্যে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তাই চারজনকে নগরের ২৭টি ওয়ার্ডের ভবনের তালিকা তৈরির জন্য বলা হয়েছে। এরপর তারা নকশাবহির্ভূত ৮৫টি ইমারতের তালিকা তৈরি করেছেন।

এরমধ্যে দেখা গেছে, কোনো কোনো ভবনের মালিক পাঁচতলার অনুমোদন নিয়ে সাততলা করেছেন। কেউ ভবন নির্মাণের জন্য কোনো জায়গা ছাড় দেননি। এ ছাড়া নকশার অনুমোদন না নিয়ে কুমিল্লা নগরের দক্ষিণ চর্থা এলাকায় পাঁচতলা একটি, কাসেমুল মাদরাসার পাশে আটতলা, কান্দিরপাড়ে নয়তলা, ঠাকুরপাড়ায় নয়তলা, ঝাউতলায় ছয়তলা, কচুয়া এলাকায় তিনতলা, উত্তর বাগমারা, তালপুকুরপাড় ও দক্ষিণ রসুলপুর এলাকায় দোতলা ভবনের কাজ চলছে।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মাঈন উদ্দিন চিশতী বলেন, ডিসি মে মাসে জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় অনুমোদনহীন ভবনের তালিকা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। তখন আমরা বলেছি, তালিকা দেব।

নগর ভবনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শেখ নূরুল্লাহ বলেন, আমাদের কাজ তালিকা তৈরি করে দেয়া। আমরা তালিকা করে মেয়রের কাছে দেব। এরপর তিনি ডিসির কাছে পাঠাবেন।

সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী সফিকুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, এখন পর্যন্ত ৯৪টি ভবনের তালিকা করা হয়েছে। আরো হবে।

মেয়র মো. মনিরুল হক বলেন, ৪ ও ১৬ এপ্রিল দুই দফা অভিযান চালিয়ে ৩০টি নকশাবহির্ভূত ভবন চিহ্নিত করে ব্যানার টানিয়ে দেয়া হয়েছে। তালিকা করার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর