ব্রেকিং:
তিস্তা ব্যারাজের কমান্ড এলাকায় সেচ কার্যক্রম শুরু সিকৃবির সাফল্য: অভয়াশ্রমে রক্ষা দেশীয় মাছ ফসলের ফলন বাড়ছে তরল সার উদ্ভাবনে প্রাণ ফিরেছে পর্যটনে, জমজমাট হোটেল ব্যবসা দুর্গম চরে আশার আলো ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১০৯১ গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার অক্সিজেনের ন্যূনতম মূল্য ১০০-১২০ টাকা টিকা দেওয়ার ছক প্রস্তুত উন্নয়ন দেখতে বাংলাদেশে আসতে চান বেলজিয়ামের রাজা ফিলিপ মহাকাশ চর্চার যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ শিক্ষার্থীদের বাসায় রাখা নিশ্চিত করবেন প্রতিষ্ঠান প্রধানরা নতুন ৬ মেডিকেল কলেজের মাস্টারপ্ল্যান শরীয়তপুরে ধর্ষণ মামলার মীমাংসা করতে ডেকে নিয়ে ফের গণধর্ষণ সরকারি স্কুলে ২০ জানুয়ারির মধ্যে ভর্তির নির্দেশ বিএসএফের আমন্ত্রণে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষের অনুষ্ঠানে বিজিবি ৭০০০ অ্যাম্বুল্যান্স মালিক যুক্ত হয়েছেন ৯৯৯ জরুরি সেবায় হোয়াইট হাউজের শীর্ষ পদে বাংলাদেশের জায়ান স্বাভাবিক জীবনে ৯ জঙ্গি আবিদা বলল, ভুল পথে ছিলাম বিশ্বজুড়ে করোনায় ২০ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু রাজনীতি ছেড়ে দেব এমপি বাহার,কিন্তু কেন ??
  • শনিবার   ১৬ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৩ ১৪২৭

  • || ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

৬৪

নেতাকর্মীদের খোঁজ রাখেন না খন্দকার মোশাররফ

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৩ ডিসেম্বর ২০২০  

দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক নেই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন কুমিল্লা উত্তর জেলার নেতাকর্মীরা।

তৃণমূল নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ঢাকায় থাকেন। তিনি তৃণমূলের কোনো নেতাকর্মীর খোঁজ রাখেন না। এমনকি করোনা পরিস্থিতিতেও তিনি এলাকায় আসেননি। এভাবে চলতে থাকলে দলের কর্মী-সমর্থকদের হারাবেন বিএনপির এ নেতা। 

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার পর খন্দকার মোশাররফ হোসেন এলাকা ছাড়েন। এরপর মাঝে মধ্যে এলেও দু-একদিন থেকে নিজের কাজ শেষে চলে যেতেন। কোনো নেতাকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন না।

এরই মধ্যে এলাকায় নিজের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে তার ছেলে ড. মারুফ খন্দকারকে বিএনপির রাজনীতিতে আনেন। রাজনীতির সঙ্গে সম্পর্কহীন মারুফ পদ পেয়েই বাবার জোরে কুমিল্লা উত্তর জেলার সিনিয়র নেতাদের অবজ্ঞা করে চলছেন। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দাউদকান্দি পৌরসভা বিএনপির এক নেতা বলেন, বাবা-ছেলে দুজনই ঢাকায় বসে রাজনীতি করছেন। এলাকায় তাদের দেখা যায় না। দলের যেকোনো সিদ্ধান্তের জন্য ঢাকায় যেতে হয় আমাদের।

তিনি বলেন, করোনার এমন সময়ে একদিনের জন্যেও ড. মোশাররফ তার নির্বাচনী এলাকায় আসেননি। এমনকি নিজ দলের নেতাকর্মীদেরও খোঁজ নেননি। বাবা-ছেলেকে ফোন করেও পাওয়া যায়নি।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর