ব্রেকিং:
দুর্ঘটনা রোধে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন শিক্ষার্থীদের রিফাতকে হারিয়ে স্বজনদের আর্তনাদ কুমিল্লায় ফের অস্থির পেঁয়াজের দর জেএসসি’র প্রবেশপত্রে ভুল সংশোধন ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত এবার আঙুলের রিং হবে স্মার্ট! যে মাছ দেখামাত্র মেরে ফেলার পরামর্শ! শ্বশুরকে বিষ দিয়ে হত্যা করল বড় বউ! রাজীবের সঙ্গে ভাইরাল ভিডিও নিয়ে যা বললেন মেহজাবিন একটি মিষ্টি কুমড়ার ওজন ৯৮৬ কেজি! বিসিবিতে ক্ষুব্ধ ক্রিকেটাররা! সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের দাবি মেনে নিল প্রশাসন আশ্রয়ণ প্রকল্পের নতুন ঘর পেলো তিনশ’ গৃহহীন পরিবার হা’মলা থেকে রক্ষায় মন্দিরের নিরাপত্তায় মাদ্রাসাছাত্ররা স্বাবলম্বী হতে গিয়ে ৬৯ বছরে বিয়ে, বাবা হলেন ৭১-এ পাঠাগার আছে,পাঠক কই? শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের সময় বাজানো হয় গান কুবির প্রথম সমাবর্তন ২৭শে জানুয়ারি সূর্যের আলো ও পানি দিয়ে গ্যাস-বিদ্যুৎ উপাদান অল্পের জন্য রক্ষা পেলো ইন্টার মিলান পরিকল্পিতভাবে দাঙ্গা সৃষ্টিতে জামায়াত শিবিরের চক্রান্ত!

মঙ্গলবার   ২২ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৬ ১৪২৬   ২২ সফর ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
৭৫

পুলিশে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০১৯  

চট্টগ্রাম নগরে তিনদিন ধরে হোটেলে আটকে রেখে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে ওই তরুণীকেও। 

সোমবার রাতভর নগরের ডবলমুরিং থানার ঝর্ণাপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পুলিশে চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার ভাটিরটেক গ্রামের মালেক বেপারীর বাড়ির আবদুল মালেকের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন রাজু ও  একই থানার পূর্ব শোলাকিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মোহাব্বত আলী। এদের মধ্যে রাজু টেন্ডলের (ট্রাফিক পুলিশের হয়ে গাড়ি থেকে চাঁদা তোলার কাজ) কাজ করেন ও ডবলমুরিং থানার মনসুরাবাদ পাসপোর্ট অফিসের সামনে টং দোকান রয়েছে মোহাব্বত আলীর।

ডবলমুরিং থানার উপ পরিদর্শক অর্ণব বড়ুয়া জানান, ওই তরুণী কেইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। রাজুর সঙ্গে তার মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। নিজের সঙ্গে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরিচয় আছে জানিয়ে রাজু তাকে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখান। এছাড়াও তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। তরুণীটি বিয়ের প্রস্তাবে রাজী হলে তাকে আগ্রাবাদের চৌমুহুনী হোটেল হক টাওয়ারের ৪০৬ নং কক্ষে নিয়ে আসেন। সেখানে ৭ জুলাই পর্যন্ত আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করেন রাজু। ওই তরুণীর বিয়ের জন্য চাপাচাপি করলে মোহাব্বতকে ডেকে এনে তার সঙ্গে ওই তরুণীর পরিচয় করিয়ে দিয়ে তাকে বাসায় নিয়ে যেতে বলে। সেখানে বিয়ে হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন রাজু। মোহাব্বত ওই তরুণীকে মিস্ত্রিপাড়ার একটি বাসায় নিয়ে যান। সেখানে তাকে কয়েকবার যৌন হয়রানি করেন মোহাব্বত। ওইদিন সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে আসেন ওই তরুণী। পরদিন তার ফেলে আসা জিনিসপত্রের জন্য মোহাব্বতের সঙ্গে যোগাযোগ করলে মোহাব্বত তাকে ডবলমুরিং থানার মনসুরাবাদ আসতে বলেন। ওই তরুণী সেখানে আসলে তাকে নিয়ে ঝর্ণাপাড়ার নাহার বিল্ডিংয়ের নিচতলায় স্ত্রী পরিচয়ে রেখে মোহাব্বত চলে যান।

তিনি জানান, এরপর ওই তরুণী বাসা থেকে বের হয়ে ভবনের মালিককে জানালে মালিক পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে ওই তরুণীকে উদ্ধার করে। এরপর ডবলমুরিং থানার ঝর্ণাপাড়া এলাকা থেকে মোহাব্বতকে ও চারিয়াপাড়া এলাকা থেকে রাজুকে গ্রেফতার করা হয়। 

নগর পুলিশের ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান বলেন, ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত তাদের কারাগারে পাঠিয়েছেন।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর