ব্রেকিং:
পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পশু কোরবানি বাংলাদেশে বন্যাদুর্গতদের পুনর্বাসনে রয়েছে ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দ ঘুষদাতার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী হুজুর সেজে ধর্ষককে ধরলেন পুলিশ কর্মকর্তা বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে জনসচেতনতা জরুরি বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩ ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের রমণীদের পছন্দ বাংলাদেশি ছেলে রোহিঙ্গা নির্যাতন তদন্তে ঢাকায় মিয়ানমারের তদন্ত দল টাইগারদের হেড কোচ হলেন রাসেল ডমিঙ্গো ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’ ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় র‌্যাবের অভিযানসাড়ে ৫০০ ইয়াবাসহমাদক ব্যবসায়ী আটক স্মার্টকার্ড পাবে ছয় বছরের শিশুও! ডেঙ্গু আক্রান্তদের ৮৪ শতাংশ সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ল্যান্ড ফোনের মাসিক লাইন রেন্ট বাতিল প্রসব বেদনা নিয়েই ছয় কিলোমিটার হাঁটলেন কাশ্মীরি মা যুদ্ধ শুরু! ভারতের ৫ পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত ঈদের আগে ৯ দিনে সর্বোচ্চ রেমিটেন্সের রেকর্ড সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নিচ্ছে মিয়ানমার

সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
১১৭০

প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ মেয়রকে স্কার্ট পরিয়ে ঘোরানো হলো শহর

প্রকাশিত: ৮ আগস্ট ২০১৯  

নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা পালন না করায় মেয়রকে অভিনব শাস্তি দিয়েছেন শহরবাসী। শাস্তি হিসেবে মেয়র ও তার সহযোগীকে স্কার্ট-ব্লাউজ পরে শহর ঘুরিয়েছেন বাসিন্দারা। এ সপ্তাহের শুরুতে মেক্সিকোর দক্ষিণে হুক্সিটান প্রদেশের সান আন্দ্রেস পুয়ের্তো রিকো শহরে এই ঘটনা ঘটে।

মেক্সিকোর স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সেই শহরের মেয়র হলেন জাভিয়ের জিমেনেজ। তার বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ হচ্ছে, তিনি শহরের পানি ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন করবেন বলে নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। আর সে জন্য তিনি ৩ মিলিয়ন পেসো (প্রায় ১৫৮,০০০ ডলার সমতুল্য) খরচ করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু ক্ষমতায় এসে তার প্রতিশ্রুতির কোনোটিই রাখেননি মেয়র।

সান আন্দ্রেস পুয়ের্তো রিকো শহরের বাসিন্দারা বলেন, ঐ মেয়র ভোটের আগে আমাদের অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কিন্তু তিনি সে সব রক্ষা করেননি।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, মেয়র জিমেনেজকে লম্বা কালো স্কার্ট ও সাদা ব্লাউজ পরিয়ে শহরজুড়ে ঘোরান বিক্ষুব্ধ নাগরিকরা। সে সময় মেয়রের সঙ্গে ছিলেন তার সহযোগী লুই টন। তাকেও কারুকাজ করা উজ্জ্বল গোলাপি পোশাক পরিয়ে শহরজুড়ে ঘোরানো হয়। তাদের এই শাস্তি দেওয়ার সময় শত শত মানুষ উপস্থিত ছিলেন। কারো কারো হাতে ছিল মেয়র বিরোধী বিভিন্ন শ্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড।

ঘটনার সময় মেয়র জিমেনেজ মেক্সিকোর এক সাংবাদিককে বলছিলেন, তিনি প্রতিশ্রুতি পালনের চেষ্টা করছেন। কিন্তু তহবিলে অর্থ না থাকায় সেই কাজ করে উঠতে পারছেন না।

এ সময় নাগরিকরা তাদের ‘ঠকবাজ-প্রতারক’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন। তারা মেয়রকে উদ্দেশ করে বলতে থাকেন, ‘আর মিথ্যা বলো না!’

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর