ব্রেকিং:
তিতাসে সিয়াম হত্যারয় দুই জনের স্বীকারোক্তি পুরো দেশকে উচ্চগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এইচএসসি পাসে ডিএসসিসিতে চাকরি, আবেদন করুন দ্রুত দ্রুত তওবাকারীদের সম্পর্কে কোরআনে যা বলা হয়েছে বিমানবন্দরে সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের লাগেজ ভেঙে ডলার-টাকা চুরি সৌদি আরবে আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় হাফেজ তাকরিম তৃতীয় কুমিল্লায় ইয়াবা বিক্রির সময় ভারতীয় নাগরিকসহ ২ জন আটক রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জাতিসংঘের জোরালো ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী সাবিনাদের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ছাদখোলা বাস প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: সোহাগ আলীর ১০ বছরের কারাদণ্ড শেখ হাসিনাকে পাকিস্তান সফরের আমন্ত্রণ শেহবাজ শরিফের সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ ৪ শর্তে শিথিল জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী কুমিল্লায় চার হাসপাতাল সিলগালা, ৩ লাখ টাকা জরিমানা মিয়ানমারের ব্যাপারে সর্বোচ্চ সংযম দেখাচ্ছে বাংলাদেশ:প্রধানমন্ত্রী সিপিডিতে ভালো পদে চাকরির সুযোগ, শুরুতেই পাবেন ৩৫০০০ ঘুমধুম সীমান্তের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের দুটি বাস দিল পুলিশ লক্ষ্মীপুরে ১৫ জুয়াড়ি আটক লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী যেখানে সন্ধ্যার পরই জেলার সঙ্গে উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ
  • রোববার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৯

  • || ২৭ সফর ১৪৪৪

প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: সোহাগ আলীর ১০ বছরের কারাদণ্ড

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অফিস থেকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি নিয়ে শহিদ মিনারে ভাঙচুরের মামলার রায়ে সোহাগ আলী নামে একজনকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালত ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক সাবিনা ইয়াসমিন এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় সাজাপ্রাপ্ত আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত সোহাগ আলী(২৫) সোনারগাঁও উপজেলার সাহাপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।

আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট কেএম ফজলুর রহমান জানান, ২০১৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টায় সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অফিসে প্রদর্শিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সোহাগ আলী কৌশলে বের করে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসের শহিদ মিনার প্রাঙ্গনে ভাংচুর করছে। এসময় স্থানীয় লোকজন দেখে সোহাগ আলীকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় উপজেলার সাট-মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আদালত সাক্ষ্য গ্রহণ করে রায় ঘোষণ করেছেন।