ব্রেকিং:
দেশে করোনার টিকা কবে আসবে, জানালেন স্বাস্থ্য সচিব কোনোভাবেই বেপরোয়া গাড়ি চালানো যাবে না: সেতুমন্ত্রী বাঙ্গরায় চালককে খুন করে অটোরিকশা ছিনতাই রামচন্দ্রপুর সপ্রাবি`র মাঠ বরাদ্দের কাজ উদ্বোধন হাজীগঞ্জে যানজট নিরসনে সড়কে টোন স্থাপন ঐক্যবদ্ধ হয়ে সকল ষড়যন্ত্রের মোকাবেলা করব-রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম কুমিল্লার সদর দক্ষিণ থেকে কুখ্যাত অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ী মুন্না নয়তলা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যুবককে গলা কেটে হত্যা ব্রাহ্মনবাড়িয়ায় বৃদ্ধ খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ৪ জন শাহরাস্তিতে যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল ফরিদগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ ৫ টাকায় সারাদিন ইন্টারনেট ব্যবহারের পদ্ধতি তৈরি করলেন দুই বাংলাদে উন্নত প্রযুক্তির বডি স্ক্যানার বসছে শাহজালাল বিমানবন্দরে দেশের তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপিত হবে ৬৯৩ কোটি টাকায় বুলেট ট্রেনে ৫৫ মিনিটে ঢাকা-চট্টগ্রাম, ডিসেম্বরে নকশার অনুমোদন দুই বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, পদ প্রায় ৪০০০ রিটার্ন জমার সময় বাড়ল এক মাস শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইনে ৬ হাজার লেকচার চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রুটে রেল যোগাযোগ শুরু ডিসেম্বরেই
  • বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭

  • || ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

৬০

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ১৩ লাখ কৃষক

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৯ আগস্ট ২০২০  

এবার তিন দফার বন্যায় দেশের প্রায় ১৩ লাখ কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এরমধ্যে প্রথম দফার বন্যায় ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৯৫৭ জন এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৯ লাখ ২৯ হাজার ১৯৪ জন কৃষক। 

বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, বাংলাদেশের ৩৭টি জেলায় সব মিলিয়ে এবারের বন্যায় সর্বমোট ১ হাজার ৩২৩ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এরমধ্যে প্রথম দফার বন্যায় ১৪টি জেলায় ১১টি ফসলের ৪১ হাজার ৯১৮ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতির পরিমাণ ৩৪৯ কোটি টাকা।

 

সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক

সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক

মন্ত্রী বলেন, দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার বন্যায় ৩৭টি জেলায় ১৪টি ফসলের প্রায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৮৯৬ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতির পরিমাণ ৯৭৪ কোটি টাকা। 

বন্যার পানিতে ২ লাখ ৫৭ হাজার ১৪৮ হেক্টর ফসলি জমি তলিয়ে গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এর মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত জমির পরিমাণ ১ লাখ ৫৮ হাজার ৮১৪ হেক্টর। আর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ১২ লাখ ৭২ হাজার ১৫১ জন কৃষক। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩২ হাজার ২১৩ হেক্টর জমির আউশ ধান, ৭০ হাজার ৮২০ হেক্টর জমির আমন ধান এবং ৭ হাজার ৯১৮ হেক্টর জমির আমন বীজতলা। টাকার হিসাবে আউশ ধান ৩৩৪ কোটি, আমন ধান ৩৮০ কোটি টাকা, সবজি ২৩৫ কোটি, পাট ২১১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

প্রতি বছরের মতো এবছরও বিভিন্ন মেয়াদে পাহাড়ি ঢলের কারণে বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করায় ফসলি জমি প্লাবিত হয় উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো বলেন, এবার কয়েক দফার বন্যার কারণে বন্যা অনেক দীর্ঘস্থায়ী হয়েছে। ফলে ৩৭টি জেলায় আউশ ধান, আমন ধান, আমন বীজতলা, শাক-সবজি, পাটসহ বেশকিছু ফসলের অনেক ক্ষতি হয়েছে।

কুমিল্লার ধ্বনি