ব্রেকিং:
বিয়ের দিন বাড়িতে হাজির প্রথম স্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ৫০ থেকে একশ শয্যায় উন্নীত হবে সব হাসপাতাল সেপটিক ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেল ২ রাজমিস্ত্রির মজুতদারি করে কারসাজি করলে কঠোর ব্যবস্থা ইঞ্জিনে ওভার হিট, মহাখালীতে প্রাইভেটকারে আগুন ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ফিরে পেলেন ট্রাম্প অবশেষে ঝুঁকিপূর্ণ তিন রাস্তার সংযোগস্থলে গতিরোধক স্থাপন বাঙালি বিশ্ব মোড়লদের ধার ধারে না: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী যেসব কারণে ব্যাপক চাপ থাকবে সড়কে সুপ্রিম কোর্টের আদেশে সরকারের কোটা সংক্রান্ত পরিপত্র বলবৎ হয়েছে পানি নিষ্কাশনে ডিএনসিসির ৫ হাজার পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে সময় টিভির সাংবাদিকদের উপর কোটা বিরোধীদের হামলা প্রধানমন্ত্রীর অন্তর্ভুক্তিমূলক সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি গাজায় ‘যুদ্ধাবসানের সময় এসেছে’: বাইডেন ন্যাটো-রাশিয়াকে সংঘাতের ব্যাপারে সতর্ক করলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রাজধানীসহ সারাদেশে ভারী বৃষ্টি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুতে ইতিবাচক মিয়ানমার চীনা গণমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর
  • রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

বর্ষা এলেই ব্রাহ্মণপাড়ার মকিমপুর বিল হয়ে ওঠে ‘মিনি কক্সবাজার’

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২৪  

বর্ষাকাল এলেই কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার মকিমপুর পশ্চিম বিল হয়ে ওঠে 'মিনি কক্সবাজার'। বর্ষা এলেই এখানে জমে পানি, সূর্যের আলোয় চিকচিক করে থইথই জলরাশি। সন্ধের আগে যখন সূর্য ডোবে তখন মনে হয় যেন বিলের বিশাল জলরাশিতে সূর্য লুকচ্ছে। এ দৃশ্য যেন মন ভরিয়ে দেয়। এসব মনোমুগ্ধকর দৃশ্য উপভোগ করতে প্রতিদিনই এই বিলে বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসছেন নানা বয়েসী দর্শনার্থী।
এই বিল ঘেঁষেই পশ্চিমে মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানা ও উত্তরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলা আর পূর্বে ও দক্ষিণে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা। তিন উপজেলার মধ্যবর্তী স্থানটির নামই মকিমপুর পশ্চিম বিল। এই বিলের মাঝখান দিয়ে বয়ে গেছে বুড়ি নদী। বর্ষার শুরু থেকেই এ বিল পানিতে টইটুম্বুর হয়ে ওঠে। এতে এই বিলের পরিবেশ হয়ে ওঠে মনোমুগ্ধকর। যান্ত্রিক জীবনের ক্লান্তি আর অবসাদ দূর করতে এই বিলে ছুটে আসছেন ভ্রমণপিয়াসী অনেকেই। যে কারণে স্থানীয়রা এ বিলের নাম দিয়েছেন 'মিনি কক্সবাজার'। চতুর্দিকের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য আর দর্শনার্থীদের ভিড়ে এই বিলে বর্ষার প্রতিটি বিকেল যেন মোহময় হয়ে ওঠে। তবে শুষ্ক মৌসুমে এই বিল থাকে সবুজ ফসলে একাকার।
সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের মকিমপুর এলাকায় অবস্থিত 'মিনি কক্সবাজার' খ্যাত মকিমপুর পশ্চিম বিলে বর্ষার শুরুতেই জমতে শুরু করেছে পানি। এই সৌন্দর্য উপভোগ করতে দর্শনার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।। নানা বয়েসী দর্শনার্থীর পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে মকিমপুর পশ্চিম বিল। নৌকা করে কেউ কেউ ঘুরছেন বিশাল জলরাশির ঢেউয়ের ওপর। তাদের কেউ কেউ তুলছেন সেলফি, আবার কেউ কেউ ব্যস্ত প্রিয়জনদের ছবি তোলায়। বিলের মনোহর সৌন্দর্য উপভোগ করছেন সবান্ধবে অনেকেই। কেউ গাইছেন গান, আবার কেউ করছেন কবিতা আবৃত্তি। উঠতি বয়েসী কিশোররা বিলের অথৈজলে কাটছেন সাঁতার। জলরাশির মাঝখান দিয়ে বয়ে সড়কের ওপর মোটরসাইকেল চালিয়ে উল্লাসে মেতে উঠতে দেখা গেছে তরুণদের।
এই বিলে সপরিবারে ঘুরতে আসা মাইনুল ইসলাম মিঠু বলেন, বর্ষার সময় এই বিলের পরিবেশটা চমৎকার হয়ে ওঠে। প্রায়ই এখানে ঘুরতে আসি। ঈদ উপলক্ষে এবার এসেছি সপরিবারে। দিনের অন্যান্য সময়ের মধ্যে বিকেলবেলা এই বিলের সৌন্দর্য আরও বেড়ে যায়। এখানকার বাতাসটাও বেশ মিষ্টি। বিলটির সৌন্দর্য উপভোগ করতে দূরদূরান্ত থেকে অনেকেই এখানে ঘুরতে আসছেন।
পার্শ্ববর্তী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলা থেকে এ বিলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসা পারভীন আক্তার রিয়া বলেন, বর্ষা এলেই ভ্রমণ পিপাসুদের ভিড়ে এই বিল পর্যটন এলাকায় রূপ নেয়। শিরশিরে বাতাস আর মনমাতানো পরিবেশ দর্শনার্থীদের মন ভরিয়ে দেয়। আমরা কয়েকজন বান্ধবী মিলে ঘুরতে এসেছি। এখানে সময় কাটাতে বেশ ভালো লাগছে।
স্থানীয় বাসিন্দা হাবিবুর রহমান বলেন, প্রতি বর্ষা মৌসুমে এই বিলে প্রতিদিন অনেক মানুষ ঘুরতে আসেন। বর্ষার সময় এই বিলে পানি জমে বিলের পরিবেশটা অনেক সুন্দর হয়ে ওঠে। এই উপজেলার বিভিন্ন এলাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন উপজেলা থেকেও লোকজন এখানে ঘুরতে আসছেন। নানা বয়েসী মানুষের পদচারণায় প্রতিদিন বিকেলবেলা এইখানটায় উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এ কারণেই স্থানীয় লোকজন এর নাম দিয়েছে 'মিনি কক্সবাজার'।
মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. ফরিদ উদ্দিন বলেন, প্রতিবছরই বর্ষাকালে মকিমপুরের ওই পশ্চিম বিলটি থইথই পানির কারণে বিনোদনের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। স্থানীয়রাসহ দূরদূরান্ত থেকে এই বিলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসেন অনেকেই। দর্শনার্থীদের যেন কোনরকম সমস্যা না হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখা হচ্ছে।