ব্রেকিং:
পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পশু কোরবানি বাংলাদেশে বন্যাদুর্গতদের পুনর্বাসনে রয়েছে ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দ ঘুষদাতার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী হুজুর সেজে ধর্ষককে ধরলেন পুলিশ কর্মকর্তা বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড তদন্তে কমিশন গঠনের দাবি তথ্যমন্ত্রীর ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে জনসচেতনতা জরুরি বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩ ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের রমণীদের পছন্দ বাংলাদেশি ছেলে রোহিঙ্গা নির্যাতন তদন্তে ঢাকায় মিয়ানমারের তদন্ত দল টাইগারদের হেড কোচ হলেন রাসেল ডমিঙ্গো ‘চিকিৎসকদের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাঠানো হবে’ ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় র‌্যাবের অভিযানসাড়ে ৫০০ ইয়াবাসহমাদক ব্যবসায়ী আটক স্মার্টকার্ড পাবে ছয় বছরের শিশুও! ডেঙ্গু আক্রান্তদের ৮৪ শতাংশ সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ল্যান্ড ফোনের মাসিক লাইন রেন্ট বাতিল প্রসব বেদনা নিয়েই ছয় কিলোমিটার হাঁটলেন কাশ্মীরি মা যুদ্ধ শুরু! ভারতের ৫ পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত ঈদের আগে ৯ দিনে সর্বোচ্চ রেমিটেন্সের রেকর্ড সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নিচ্ছে মিয়ানমার

সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
৩৬৩৪

‘বিএনপি-জামায়াত রেলপথকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছিল’

প্রকাশিত: ৭ মার্চ ২০১৯  

রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, যে দেশের রেলপথ যত বেশি উন্নত সে দেশেও তত বেশি উন্নত। আর বিএনপি-জামায়াতের আমলে এই রেলপথকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছিল। 

বুধবার মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে পদ্মা সেতু রেল-সংযোগ প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের পুনর্বাসন সুবিধার চেক বিতরণ অনুষ্ঠান উদ্বোধনের সময় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন বিএনপি-জামাত সরকারের আমলে রেলের ১০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করে রেল ব্যবস্থাকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছিল, আর মানুষকে করে দিয়েছিল বেকার। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার দেশের প্রতিটি জেলায় রেলসংযোগর উদ্দ্যোগ গ্রহণ করেছে। 

তিনি আরো বলেন, এই রেল লাইন পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১’শ ৭২ কিলোমিটার লাইন করা প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার তা বাস্তবায়নের দ্বার প্রান্তে। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪০ হাজার কোটি টাকা। মুন্সিগঞ্জে ৬৭১ জন ক্ষতিগ্রস্তকে ৮ কোটি ২৬ লাখ টাকা দেয়া হবে। এরইমধ্যে ১শ ৭৫ জনকে চেক দেয়া হয়েছে। 

তিনি বলেন, পদ্মাসেতু বাস্তাবায়ন হলে দেশের জিডিপিতে ২ শতাংশ ও রেলপরিকল্পনা বাস্তাবায়নের মাধ্যমে ১শতাংশ যুক্ত হবে। ২০ কিংবা ৪০ সাল ন্যায় ডেল্টা পরিকল্পনার মাধ্যমে ১’শ বছর পরের বাংলাদেশকে আমরা কোন পর্যায় দেখতে চাই তার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কনস্ট্রাকশন সুপারভিশন কনসালট্যান্ট (সিএসসি) ও বাংলাদেশ রেলওয়ের সহযোগিতায় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী বেসরকারি সংস্থা ড্রপ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের মাঝে চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ঢাকা হতে মাওয়া হয়ে ভাঙ্গা পর্যন্ত প্রথম ধাপের প্রকল্পে ৮২.৩৫ কিলোমিটার রেলপথে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫৪৮ পরিবার রয়েছে। প্রকল্পটিতে ৩৫৮.৪১ হেক্টর জমি অধিগ্রহণ করা হবে। ২০২১ সালের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ চলছে। প্রকল্পে ক্ষতিগ্রস্তরা ১৯৮২ সালে ভূমি অধিগ্রহণ আইনের আওতায় এর আগে জেলা প্রশাসক থেকে ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া-১ আসনের এমপি এ কে এম সারওয়ার জাহান বাদশা, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক কাজী মো. রফিকুল আলম। প্রকল্প পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব প্রকৌশলী গোলাম ফখরুদ্দিন আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সিএসসি’র প্রধান সমন্বয়ক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ মো. মাসুদ, ড্রপ এর প্রতিষ্ঠাতা এএইচএম নোমান প্রমুখ।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর