ব্রেকিং:
তিতাসে সিয়াম হত্যারয় দুই জনের স্বীকারোক্তি পুরো দেশকে উচ্চগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এইচএসসি পাসে ডিএসসিসিতে চাকরি, আবেদন করুন দ্রুত দ্রুত তওবাকারীদের সম্পর্কে কোরআনে যা বলা হয়েছে বিমানবন্দরে সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের লাগেজ ভেঙে ডলার-টাকা চুরি সৌদি আরবে আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় হাফেজ তাকরিম তৃতীয় কুমিল্লায় ইয়াবা বিক্রির সময় ভারতীয় নাগরিকসহ ২ জন আটক রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জাতিসংঘের জোরালো ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী সাবিনাদের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ছাদখোলা বাস প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর: সোহাগ আলীর ১০ বছরের কারাদণ্ড শেখ হাসিনাকে পাকিস্তান সফরের আমন্ত্রণ শেহবাজ শরিফের সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ ৪ শর্তে শিথিল জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী কুমিল্লায় চার হাসপাতাল সিলগালা, ৩ লাখ টাকা জরিমানা মিয়ানমারের ব্যাপারে সর্বোচ্চ সংযম দেখাচ্ছে বাংলাদেশ:প্রধানমন্ত্রী সিপিডিতে ভালো পদে চাকরির সুযোগ, শুরুতেই পাবেন ৩৫০০০ ঘুমধুম সীমান্তের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের দুটি বাস দিল পুলিশ লক্ষ্মীপুরে ১৫ জুয়াড়ি আটক লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী যেখানে সন্ধ্যার পরই জেলার সঙ্গে উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ
  • রোববার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১০ ১৪২৯

  • || ২৭ সফর ১৪৪৪

ব্রাহ্মণপাড়ায় মাদ্রাসার ছাত্রকে বলৎকার করার অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়ায় একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসার নয় বছর বয়সী এক ছাত্রকে বাসায় ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক বলৎকারের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় পুলিশ ওই মাদ্রাসার শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে। গত শনিবার এ ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ধর্ষনের মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষক হাফেজ নুর মোহাম্মদ (১৯) সিলেটের গোয়াইনঘাট থানার বগাইয়া হাওর গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে।


তিনি কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার আসাদনগর পূর্বপাড়া রওয়াদুতুল আলফা হাফেজিয়া ও এতিম খানার শিক্ষক। গ্রেপ্তার হওয়া ওই শিক্ষককে রোববার দুপুরে কুমিল্লা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।


মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নয় বছর বয়সী মাদ্রাসার ছাত্র ওই মাদ্রাসায় হাফেজিয়া শাখায় পড়াশুনা করত। ওই মাদ্রাসায় হাফেজিয়া শাখায় শিক্ষকতা করতেন হাফেজ নুর মোহাম্মদ। গত শনিবার রাতে ওই শিক্ষক তাকে বাসায় ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক বলৎকার করে। এ সময় ওই ছাত্রের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন দৌড়ে এসে এ ঘটনা দেখতে পায়।
এ সময় স্থানীয় লোকজন এ ঘটনা দেখতে পেয়ে তাকে আটক করে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। ওইদিন রাতেই ওই ছাত্রের পিতা বাদী হয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৯(১) ধারায় ধর্ষনের মামলা দায়ের করেছেন। ওই শিক্ষককে গতকাল রোববার দুপুরে কুমিল্লা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে পাঠালে বিচারক তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।


ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, ঘটনাটি খুবই ন্যাক্কার জনক। শিশুটিকে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক জোরপূর্বক ধর্ষন করেছে। শিশুটির চিৎকারে স্থানীয় লোকজন দৌড়ে গিয়ে তাকে আটক করে রেখেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার হওয়া ওই শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।