ব্রেকিং:
রামগঞ্জে শাশুড়িকে শ্বাসরোধে হত্যা, ছেলের বউ আটক পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুতের নারী কর্মী নিহত ছেলেদের ঘরের মেঝেতে রক্তের দাগ, মিলল অস্ত্র-রক্তমাখা কাপড় আশুগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা সুরক্ষা সরঞ্জাম প্রদান সাবেক ভিপি নূরের বিরুদ্ধে দেবিদ্বারেও মামলা করোনা রোধে পোশাক কারখানার নতুন কৌশল বাড়ির কাছে পৌঁছে যাচ্ছে করোনার নমুনা সংগ্রহের গাড়ি করোনার মধ্যেই বাংলাদেশে উন্নতির লক্ষণ দেখছে বিশ্বব্যাংক লকডাউনেও মাছ, মাংস, দুধ, ডিম ও দুগ্ধজাত পণ্যের ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় বিকাশে টাকা পাবে সাড়ে ১০ লাখ পরিবার করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু বেড়েছে অন্ধকারে সুবর্ণচর উপজেলা,বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাওয়ের হুমকি ৮ শতাধিক শতাধিক গরীব ও দুস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ মোবাইলে অন্যজনের সঙ্গে প্রবাসীর স্ত্রী কথা, অতঃপর... ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিট উদ্বোধন কন্যা শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার লালমাই স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল স্ত্রী-কন্যার সামনে স্কুল শিক্ষককে লাঞ্ছনা দরিদ্রদের ইফতার সামগ্রী উপহার দিলেন এএসপি সোনাগাজীতে মানববন্ধনে সন্ত্রাসী হামলা
  • শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১০ ১৪২৮

  • || ১০ রমজান ১৪৪২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্মরণকালের সবচেয়ে বেশি ওজনের শিশুর জন্ম

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২১  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইতিহাসে স্মরণকালের সবচেয়ে বেশি ওজনের একটি ছেলে শিশু জন্মগ্রহণ করেছে।  বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে জেলা শহরের কুমারশীল মোড়ে হলি ল্যাব ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি হাসপাতালের শিশুটির জন্ম হয়।

বর্তমানে মা ও শিশুটি উভয়েই  সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসক। জন্ম নেয়া ওই শিশুর নাম রাখা হয়েছে মুয়াজ।

হলি ল্যাব ডায়াগনস্টিক সেন্টার হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু কাউসার জানান, দুই দিন আগে জেলার সরাইল উপজেলার অরুয়াইল গ্রাম থেকে তাসলিমা আক্তার নামে এক প্রসূতি মা হলি ল্যাব হাসপাতালে ১০৩ নম্বর কক্ষে ভর্তি হন। পরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই মা ৫ কেজি ৭শ’ গ্রাম ওজনের একটি ছেলে শিশুর জন্ম দেন। অস্বাভাবিক ওজনের শিশুর জন্মের খবর পেয়ে হাসপাতালের নার্স, চিকিৎসকসহ উৎসুক জনতা ভিড় করেন।

এ ব্যাপারে শিশুর মা তাসলিমা বেগম বলেন, আজকের দিনটির জন্য দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করেছি। আমি ও আমার ছেলে শিশু সুস্থ আছে। 

শিশুর বাবা ও অরুয়াইল সরকারি প্রাথামিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মো. আবুল বাশার বলেন, এটি চতুর্থ সন্তান। আমার আগের সন্তানগুলো নরমাল ডেলিভারি হয় এবং ওই শিশু গুলোর স্বাস্থ্যও ভাল ছিল। নিরাপদে সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ায় আমি খুবই খুশি। আমার পরিবার ‘ধন্য’ হয়েছে। 

হাসপাতালের চিকিৎসক ফৌজিয়া ম্যাডামের সহযোগিতায় সিজারের পর মা ও শিশু ভাল আছেন ও সুস্থ আছেন। শিশুর মা গর্ভকালীন সময় বেশি বেশি পুষ্টিকর খাবার খেয়েছিলেন। হয়তো এর কারণে সুস্থ ওজনের শিশুর জন্ম হয়েছে। 

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের গাইনি বিভাগের বিশেষজ্ঞ ও হলি ল্যাব হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. ফৌজিয়া আক্তার বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় বেশি ওজনের বাচ্চাদের বলা হয় ম্যাক্সোসোনিয়া। এ ধরনের বাচ্ছা সাধারণত শিশুর মা-বাবা ডায়াবেটিক আক্রান্ত হলে অথবা শিশুর মা-বাবার বেশি ওজন হলে ম্যাক্সোসোনিয়া (বেশি ওজনের) শিশুর জন্ম হতে পারে। তবে আশ্চর্য জনক বিষয় হলো এ ধরনের কোনো লক্ষণ শিশুর মা বাবার নেই। এটা নেই আল্লাহর রহমত বলে মনে করেন তিনি। বর্তমানে মা ও শিশুর সুস্থ্য আছেন। 

তিনি জানান, এর আগে ২০০৭ সালে রাজধানীর উত্তরার একটি হাসপাতালে ৬ কেজি ওজনের বাচ্চা জন্ম নিয়েছিল। জানা মতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌনে ৬ কেজি ওজনের শিশুটি দেশের দ্বিতীয়। 

তিনি আরো বলেন, সাধারণত একটি শিশু জন্মের পর ওজন আড়াই থেকে সাড়ে তিন কেজির মধ্যে থাকে।