ব্রেকিং:
হাজীগঞ্জ পৌরসভার ৬ ও ৮ নং ওয়ার্ডে নৌকার কর্মীসভা জঞ্জালের দেয়াল এখন ফুল বাগান সরাইলে সালিশে করা জরিমানার ৫ হাজার টাকা চাইতে গিয়ে খুন ব্যবসায়ীদরঅভিযোগের তীর হাজীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দিকে,কিন্তু কেন? মগবাড়ী-মনোহরা রাস্তা ২০ বছর পর সংস্কার শুরু ‘আমি মতলবে এসেছি সেনাপ্রধান হিসাবে নয় মতলবের সন্তান হিসাবে’ পাবজি বিশ্বকাপ খেলতে দুবাইয়ে ৫ তরুণ, প্রাইজপুল ১৬ কোটি সারাদেশে ২৫-৩১ অক্টোবর হবে মূল জনশুমারি দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ায় সাড়ে ৪০০ কোটি টাকা মুনাফা এক্সপ্রেসওয়ে নেটওয়ার্কে আসবে সারাদেশ নোয়াখালীর দৃশ্যপট পাল্টে যাবে ২০২৩ সালের মধ্যে করোনা নিয়ন্ত্রণের বাংলাদেশ! দুটি চ্যানেলে দেখা যাবে বঙ্গবন্ধু ক্রিকেট সিরিজ ‘জীবনের সবচেয়ে ভয়াবহ ঘটনা, স্টেজেই শাড়ি খুলে যায়’ (ভিডিও) ১৭ বছরের ক্লাব ক্যারিয়ারে প্রথমবার লাল কার্ড পেলেন মেসি ১৭ বছরের ক্লাব ক্যারিয়ারে প্রথমবার লাল কার্ড পেলেন মেসি কারিগরি নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পাস করবে বেসরকারি স্কুল-কলেজ-মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা বাড়ল জেএসসির সার্টিফিকেটের জন্য লাগবে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন হাত-পা ছাড়াই কারাতে চ্যাম্পিয়ন ইউসুফ
  • মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৬ ১৪২৭

  • || ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

২০৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসামি ধরতে গিয়ে হামলায় পুলিশ নিহত

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৮ জুলাই ২০২০  

আসামি ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার এক এএসআই নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছেন আরেক এএসআই।

শুক্রবার সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চান্দপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে বলে সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ শাহজাহান জানান।

নিহত আমির হোসেন (৩৫) সদর মডেল থানায় কর্মরত ছিলেন। তিনি ময়মনসিংহ সদরের দিয়ারচর গ্রামের মোনতাজ আলীর ছেলে।

আহত মণিশঙ্কর চাকমাকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পরিদর্শক শাহজাহান বলেন, একটি মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত মাছিহাতা ইউনিয়নের চান্দপুর গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে মামুন মিয়াকে ধরতে গিয়েছিলেন এএসআই মণিশঙ্কর ও এএসআই আমির।

“চান্দপুর বাজার এলাকায় মামুনকে ধরতে গেলে তিনি ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমির ও মণিশঙ্করের উপর হামলা চালান। গুরুতর আহত অবস্থায় আমিরকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।”

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন জানান, ঘটনার পর আসামিকে ধরতে আভিযান শুরু হয়েছে।

জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক এ বি এম মুসা বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই এএসআই আমির মারা গেছেন। তার বুকের দুই পাশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ভেতরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তিনি মারা যান।

কুমিল্লার ধ্বনি
সারাবাংলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর