ব্রেকিং:
নতুন চমক, দেশে চালু হচ্ছে বেকার ভাতা লক্ষ্যমাত্রার বেশি ধান কিনতে সুপারিশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ বাতিল শেখ হাসিনাকে বরণের অপেক্ষায় জাপান: রাষ্ট্রদূত নিরাপদ ঈদযাত্রায় যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ প্রস্তাব চাল আমদানি নিয়ন্ত্রণ করা হবে: অর্থমন্ত্রী সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা ২৮ মে কবুতর দিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় ইয়াবা পাচার বাড়ল মোবাইল ব‌্যাংকিংয়ে লেনদেন সীমা শিগগিরই যোগ্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে: শিক্ষামন্ত্রী অধিক উৎপাদনের লক্ষ্যে একীভূত হচ্ছে ঘোড়াশাল ও পলাশ সার কারখানা শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিতে পাস ১ লাখ ৫২ হাজার দেশের প্রথম মহিলা কারাগারে স্থানান্তরিত হচ্ছেন খালেদা জিয়া! ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের ভোগান্তি কমবে: কাদের এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক অর্থ দেয়নি বলে র‌্যাংকিং থেকে বাদ পড়েছে ঢাবি ‘মিল মালিক নয়, কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনার পরামর্শ’ ভয়েস কলের দিন প্রায় শেষ: মোস্তাফা জব্বার জুলাই থেকে ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা

মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬   ১৬ রমজান ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
সর্বশেষ:
কুষ্টিয়ায় শিক্ষিকা ধর্ষণে শিক্ষকের যাবজ্জীবন ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে বেঁচে যাওয়া ১৫ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ শুরু আজ ১৩০ বছর পর বদলে গেল কিলোগ্রামের সংজ্ঞা কৃষকের প্রয়োজনে সব করা হবে: কৃষিমন্ত্রী বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ প্রচারের ব্যাখ্যা দেবে সুপ্রিমকোর্ট নয়া লুকে চমক নিয়ে আসছেন অনন্ত জলিল

ভাঙতে ভাঙতে ছোট হয়ে যাচ্ছে চাঁদ!

প্রকাশিত: ১৫ মে ২০১৯  

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, চাঁদে পৃথিবীর মতো টেকটনিক প্লেট নেই। তাই কয়েকশো মিলিয়ন বছর ধরে ঠান্ডা হওয়ার সঙ্গেই কুঁচকে গিয়ে ছোট হয়ে যাচ্ছে চাঁদের পৃষ্ঠতল। আর যেহেতু চাঁদের পৃষ্ঠ ভঙ্গুর সেহেতু যেস্থানেই টান পড়েছে, সেই স্থানই ভেঙে গেছে। এভাবেই ভাঙতে ভাঙতে আগের তুলনায় আকারে অনেকটাই ছোট হয়ে গেছে চাঁদ।

বিজ্ঞানভিত্তিক পত্রিকা নেচার জিওসায়েন্স সোমবার চাঁদের ১২০০০ নতুন ছবি এবং অ্যাপোলো মহাকাশযানের সিসমোমিটারের তথ্য প্রকাশ করেছে। নাসার লুনার রেকন্সাঁ অর্বিটারের পাঠানো ওই ছবিগুলিতে দেখা যাচ্ছে চাঁদের পৃষ্ঠে বলিরেখা বাড়ছে। তার সঙ্গেই ক্রমাগত বেড়ে চলেছে চন্দ্রকম্প। 

পৃষ্ঠ কুঁচকে বলিরেখা পড়ে চাঁদের বুকে খাড়াই সিঁড়ির মতো ভাঁজ তৈরি হয়ে গেছে। ২০০৯ থেকে এপর্যন্ত অর্বিটার প্রায় ৩৫০০টি ছবি নিয়েছে চাঁদের অবতলের। 

বিজ্ঞানীরা আরো জানাচ্ছেন, চাঁদের পৃষ্ঠতল আগের থেকে প্রায় ৫০ গুণ বেশি বলিরেখাময়। আর যত পৃষ্ঠ কুঁচকে যাচ্ছে ততই বেড়ে যাচ্ছে কম্পন। 

অ্যাপোলো ১১, ১২, ১৪, ১৫ এবং ১৬ মহাকাশযানের পাঠানো ছবিতে দেখা যাচ্ছে ১৯৬৯-১৯৭৭ পর্যন্ত চাঁদে ২৮ বার কম্পন হয়েছে। তার মধ্যে আটটি কম্পন হয়েছে খাড়াই ভাঁজগুলিতে।

গবেষকরা মনে করছেন, চাঁদে এখনও কম্পন হওয়ার কারণ এই প্রক্রিয়া আজও বর্তমান। কারণ নাসার অর্বিটারের পাঠানো ছবিতে যে ধস এবং পাথরের ভগ্নস্তুপের উজ্জ্বল ছবি দেখা যাচ্ছে তা পরিষ্কার ইঙ্গিত করছে সেগুলি সদ্য ঘটেছে। বিকিরণ এবং ক্ষয়ের ফলে পুরনো ভাঙনগুলি অনেকটাই ম্লান হয়ে গেছে। এই কম্পনের কয়েকটার মাত্রা রিখটার স্কেলে সাত পর্যন্ত ছুঁয়েছে। 

যখন চাঁদের কক্ষপথ পৃথিবীর থেকে সব থেকে দূরে থাকে তখন জোয়ারভাটার জন্য পৃথিবীর মধ্যাকর্ষণের চাপে চাঁদের পৃষ্ঠতলে আরো ভাঙন ধরে। আর এভাবেই ক্রমশ ছোট হয়ে যাচ্ছে আমাদের চাঁদ। জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। 

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর