ব্রেকিং:
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না: আইনমন্ত্রী মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখায় জরিমানা গুনলো দুই ফার্মেসি ঝরে পড়া শিশুদের পাঠদানে ফেরাতে প্রশিক্ষণ দম্পতিকে শৌচাগারে আটকে রাখায় আত্মহত্যা চেষ্টা সরকারি ভবনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ী ব্যবহারের নির্দেশনা জারি প্রত্যাবাসন নিরাপদ না হলে আবারো ফেরত আসবে রোহিঙ্গা ৪০ বছরের মধ্যে যুক্তরাজ্যের মূল্যস্ফীতি সর্বোচ্চ শিক্ষার্থীদের হেনস্তা করায় কুমিল্লায় ট্রেন আটকে প্রতিবাদ ইউক্রেন সফরে আসছেন এরদোগান ও গুতেরেস প্রেমের টানে বগুড়ায় এসে ধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার ২ রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল কেনার উপায় খোঁজার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ওয়াসার কর্মীদের উৎসাহ বোনাসে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা দেশে অপুষ্টিতে ভুগছেন ১ কোটি ৭০ লাখ বিবাহিত নারী জনপ্রিয় হচ্ছে ট্রেতে চারা রোপণ আখাউড়ায় ৫ পলাতক আসামি গ্রেফতার ফেনীতে সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী ধরা ডিমের দাম ১ টাকা বেশি নেয়ায় হাজার টাকা জরিমানা ২ হাজার ৫০৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ প্রকল্পের অনুমোদন পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে কাজ করছে সরকার: বাণিজ্যমন্ত্রী তেলের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টের রুল
  • বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৩ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

ভয়ংকর অপরাধে জড়াচ্ছে রোহিঙ্গারা : জেল জরিমানাকে পাত্তা দেয় না

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০২২  

ভয়ংকর নানান অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা। এতে একদিকে রোহিঙ্গাদের অপরাধ নিয়ন্ত্রনে হিমশিম খাচ্ছে আইন শৃংখলা বাহিনী, অন্যদিকে স্থানীয়রাও দিন দিন রোহিঙ্গাদের কাছে অসহায় হয়ে পড়ছে। এতে ভবিষ্যতে কি পরিস্থিতি হতে পারে সে চিন্তায় অস্থির হয়ে পড়ছে সচেতন মহল।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: কামরান হোসেন এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, রোহিঙ্গাদের অপরাধ প্রবণতা যে দিন দিন বেড়েই চলেছে এতে কোন সন্দেহ নেই। তারা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। এতে স্বাভাবিক ভাবেই এখানে দায়িত্বরত আইনশৃংখলা বাহিনী বিব্রত। তবে সব চেয়ে বড় কথা হচ্ছে এগুলোর শেষ কোথায় এবং ভবিষ্যত কি সেটা নিয়ে চিন্তা করতে হবে। ২১ জুলাই বিপুল পরিমান নকল এনআইডি, ট্রেড লাইসেন্স, সনদ পত্র, জন্মনিবন্ধন সহ সে গুলো তৈরির সরাঞ্জাম, ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়। ৫ জনকে আটক করা হয়। এ সময় এক অনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এমন মন্তব্য করেন।
এ সময় আরেক শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, রোহিঙ্গারা এখন জেল জরিমানাকেও ভয় করছেনা, তাদের মধ্যে অনেকের ধারণা জেল খাটা কোন বিষয় না, এটা ছেলে খেলা, কিছুদিন পরে বেরিয়ে আসবে। তাই খুন, অপহরণ, লুট, ইয়াবা ব্যবসা, স্বর্ণ পাচার সহ নানান অপরাধ করতে তারা মোটেও ভয় পায় না। অথচ আমাদের স্থানীয় মানুষ অনেকটা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং আইনকে সম্মান করে ভয় পায়।
উখিয়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রতন দাশ বলেন, উখিয়া থানার পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মাসিক যে কয়টি মামলা হয় তার মধ্যে ৭০% রোহিঙ্গাদের দ্বারা সংগঠিত অপরাধ। আবার আসামীও বেশির ভাগ রোহিঙ্গা। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা পুলিশ কে ভয় পাওয়াতো দূরের কথা জেল খাটাও কিছুই মনে করে না। আর ২১ জুলাই ক্যাম্পে নকল এনআইডি, বিভিন্ন সনদ, ল্যাপটপ জব্ধ হওয়ার ঘটনায় আমাদেরকে নতুন করে চিন্তা করতে হবে। রোহিঙ্গারা আসলে কি করতে চাইছে, তারা আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে কোথায় নিয়ে যেতে চাইছে। সে জন্য সম্মিলিত উদ্দ্যোগ নিতে হবে।