ব্রেকিং:
নিরাপদ ঈদযাত্রায় যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ প্রস্তাব চাল আমদানি নিয়ন্ত্রণ করা হবে: অর্থমন্ত্রী সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা ২৮ মে কবুতর দিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় ইয়াবা পাচার বাড়ল মোবাইল ব‌্যাংকিংয়ে লেনদেন সীমা শিগগিরই যোগ্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে: শিক্ষামন্ত্রী অধিক উৎপাদনের লক্ষ্যে একীভূত হচ্ছে ঘোড়াশাল ও পলাশ সার কারখানা শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিতে পাস ১ লাখ ৫২ হাজার দেশের প্রথম মহিলা কারাগারে স্থানান্তরিত হচ্ছেন খালেদা জিয়া! ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের ভোগান্তি কমবে: কাদের এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ১০ হাজার ৮৫ শিক্ষক অর্থ দেয়নি বলে র‌্যাংকিং থেকে বাদ পড়েছে ঢাবি ‘মিল মালিক নয়, কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনার পরামর্শ’ ভয়েস কলের দিন প্রায় শেষ: মোস্তাফা জব্বার জুলাই থেকে ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান ও এতিমদের ঈদ বস্ত্র বিতরণ কুমিল্লায় ছুটির দিনে জমজমাট ঈদবাজার রোববার থেকে অফিস করবেন ওবায়দুল কাদের অবশেষে অধরার দেখা মিলল ডাবলিনে

মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৬   ১৬ রমজান ১৪৪০

কুমিল্লার ধ্বনি
সর্বশেষ:
লঞ্চের অগ্রিম টিকিট বিক্রি আজ শুরু থমকে যাওয়া টিসিবি’র পণ্য ফের চালু হচ্ছে শাহ আমানতে সোয়া ১১ কেজি সোনা উদ্ধার জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা’ তে ‘বাইশে শ্রাবণ’ ছবির গান ‘এই শ্রাবণ’ গেয়ে ভক্তদের মন ভাসিয়ে দিলেন বাংলাদেশের ছেলে মাইনুল আহসান নোবেল সম্প্রতি লাচ্ছি-আনারসের শরবত তৈরি করে আবারো আলোচনায় এসেছেন কেকা ফেরদৌসি। পবিত্র মাহে রমজানে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ‘ডেট্রয়েটে’র মুসলিম-অমুসলিমরা এক সঙ্গে সাহরি গ্রহণ করে সম্প্রীতির এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। লা লিগায় মেসিদের ম্যাচে প্রথমবারের মত ধারাভাষ্য দিলেন বাংলাদেশ ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া।
৮০৪

মনোহরগঞ্জে তরুণীকে গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের তরুণী রোকসানা আক্তারকে (১৯) গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে ঘটনার মূলহোতা ইউনুস মিয়াকে (২৩) গ্রেপ্তার করেছে কুমিল্লা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গ্রেপ্তাররের পর ধর্ষক ইউনুস পিবিআইকে জানিয়েছে- ওই মামলার অপর দুই আসামি রোকসানাকে অপমান করেছিল। সে অপমান সইতে না পেরেই বিষপানে আত্মহত্যা করেছে রোকসানা। 
কুমিল্লার ৬ নম্বর আমলী আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শারমিন রীমার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে ধর্ষক ইউনুস। সে মনোহরগঞ্জ উপজেলার বিপুলাসার ইউনিয়নের সাইকচাইল গ্রামের মাহবুবুল হকের ছেলে। রোকসানা একই গ্রামের ভ্যানচালক ইমান আলীর মেয়ে।
অভিযুক্তরা আত্মহত্যা বললেও, রোকসানার মা রঙ্গিলা বেগমসহ পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, গত ১২ ডিসেম্বর রাতে রোকসানা আক্তারকে নিজ বাড়ির পাশের একটি পরিত্যাক্ত ঘরে নিয়ে গণধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। ওইদিন রাতে রক্তমাখা জামাকাপড়সহ রোকসানার লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় পর ১৪ ডিসেম্বর রোকসানার বাবা ভ্যানচালক ইমান আলী তাঁর এক আত্মীয়কে নিয়ে থানায় মামলা করতে গেলে রহস্যজনক কারণে পুলিশ মামলা নেয়নি। উল্টো তাদের গালমন্দ করে মনগড়া একটি অপমৃত্যুর মামলা নেয় তারা (পুলিশ)। সর্বশেষ নিরুপায় হয়ে চলতি বছরের ২ জানুয়ারি কুমিল্লার আদালতে রোকসানাকে গণধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ এনে, ৩ জনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেন তার মা রঙ্গিলা বেগম। পরে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে এফ আই আর পূর্বক মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআই কুমিল্লাতে প্রেরণ করে। আদালতের নির্দেশে ৭ জানুয়ারি মনোহরগঞ্জ থানায় মামলাটি এফআইআর করে তদন্তের জন্য পিবিআইতে প্রেরণ করা হয়। মামলায় অভিযুক্ত আসামিরা হলেন; সাইকচাইল গ্রামের আবদুস সোবহানের ছেলে দাইয়া মিয়া (৪৮), মাহবুবুল হকের ছেলে ইউনুস মিয়া (২৩) এবং আইডা মিয়ার ছেলের ইউনুস (৩৫)।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লার পুলিশ পরিদর্শক মো.মতিউর রহমান বলেন, ১১ জানুয়ারি মামলার প্রথম আসামি দাইয়া মিয়াকে গ্রেপ্তার করি। ৩ ফেব্রুয়ারি, কুমিল্লা নগরীর টমছমব্রিজ এলাকা থেকে প্রযুক্তির সাহায্যে মামলার দুই নম্বর আসামি ইউনুস মিয়াকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দেয়। পরে গত সোমবার বিকেলে আদালতেও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় ইউনুস।
স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ইউনুস দাবি করেছে- রোকসানার পিতা চট্টগ্রামে ভ্যান চালিয়ে সংসার চালাতেন। রোকসানাও চট্টগ্রাম থাকতেন। গত ৩ বছর আগে প্রতিবেশী হওয়ার সুবাদে রোকসানাদের বাসায় (চট্টগ্রাম) বেড়াতে যায় ইউনুস। সে সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৬ মাস আগে রোকসানা গ্রামের বাড়িতে চলে আসে। ঘটনার দু’দিন আগে অর্থাৎ ১০ জানুয়ারি রোকসানার মা তার আরেক সন্তানসম্ভাবা বোনকে দেখতে চট্টগ্রামে যায়। বাড়িতে কেউ না থাকার সুবাদে ঘটনার দিন (১২ ডিসেম্বর রাতে) মামলার প্রথম আসামি দাইয়া মিয়া রোকসানাদের ঘরে টিভি দেখতে যায়। এ সময় আইডা মিয়ার ছেলে ইউনুস মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রোকসানাকে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যাক্ত রান্না ঘরে ডেকে নিয়ে যায় এবং প্রেমের ফাঁদে ফেলে রোকসানাকে ধর্ষণ করে। এ সময় হঠাৎ রোকসানার ঘরে থাকা দাইয়া মিয়া এবং মামলার অপর আসামি মাহবুবুল হকের ছেলে ইউনুস মিয়া সেখানে গিয়ে উপস্থিত হয়। তখন ধর্ষক ইউনুস পালিয়ে যায়। এরপর ওইদিন রাতে রোকসানা ধর্ষক ইউনুসকে ফোনে বলে- ‘তুমি প্রেমের সম্পর্কের মাধ্যমে আমার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক করেছো। এটা দাইয়া আর ইউনুস দেখে ফেলেছে। এনিয়ে তারা আমাকে অনেক অপমান করেছে। আর এখন তুমিও (ধর্ষক ইউনুস) পালিয়ে গেছো। তাই আমি বিষ খেয়ে নিজেকে শেষ করে দিলাম’।
কুমিল্লা জেলা পিবিআই প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.ওসমান গনি বলেন, মামলার আসামি ইউনুস আদালতে যেই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি তা আমরা তদন্ত করে দেখছি। তাদের কথা সত্যি হতে পারে। আবার এমনটাও হতে পারে ওই তরুণীকে গণধর্ষণের পর তারাই বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে। 
মামলার বাদী রঙ্গিলা বেগম বলেন, পুলিশের কাছে গেলেও মামলা না নিয়ে উল্টো আমাদের হয়রানি করেছে, গালমন্দ করেছে। পুলিশের এমন আচরণ দেখে মনে করেছিলাম মনে হয় মেয়ের ইজ্জত লুন্ঠন ও হত্যাকারীদের বিচার হবে না। কিন্তু পিবিআইয়ের তদন্তে আমরা এখন আশার আলো দেখছি। এখন মনে হচ্ছে খুনিদের উপযুক্ত বিচার হবে, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হবে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর