ব্রেকিং:
আধুনিক পুলিশ মোতায়েন হবে তিন পার্বত্য জেলায় জট খুলেছে ড্রাইভিং লাইসেন্সের ঋণ নিয়ে নয়ছয় করলে কঠোর শাস্তি আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে অপরাধী শনাক্তে র‌্যাব এনেছে ওয়াইভিএস বেসরকারি ভবে বন্ধ পাটকল চালুর নীতিতে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি জেলাপর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয় করে দিচ্ছে সরকার :প্রধানমন্ত্রী ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের দেয়া সুযোগ-সুবিধায় ওআইসি’র সন্তোষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটির আদেশ জারি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সতর্কতার সঙ্গে কাজ করতে বলেছে সংসদীয় কমিটি আজ থেকে দুই মাস ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ শুরু হলো অগ্নিঝরা মার্চ ২৭ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের জয়, বিএনপি একটিতে ৩১ লাখ ছাড়াল দেশে করোনা টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা ৩১ লাখ ছাড়াল দেশে করোনা টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা ভোট কেন্দ্রে ৩ ঘন্টায় একটি ভোটও পড়েনি বন্ধ রাস্তা খুলে দেয়ার দাবিতে মানববন্ধন লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটিতে কুমিল্লার ৪ তরুণ ঐতিহাসিক ‘৭ মার্চ’ উদযাপনে হঠাৎ বিএনপির বোধদয় কেন? নেশার টাকা না পেয়ে মাকে মেরেই ফেললেন পাপিয়া কুমিল্লার ঠাকুরপাড়ায় বড় ভাইয়ের প্রেমের বলি ছোট ভাই !
  • সোমবার   ০১ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭

  • || ১৬ রজব ১৪৪২

মাদরাসা শিক্ষকদের নির্যাতনে ২৫ শিক্ষার্থী অসুস্থ

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০২০  

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলায় চানাচুর চুরির অভিযোগে মাদরাসার সভাপতি ও শিক্ষকরা মিলে ৬০ শিশু শিক্ষার্থীকে মাথা নিচে, পা ওপরে করে আধাঘণ্টা শাস্তি দেন। এতে ২৫ শিক্ষার্থী মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ে। 

কারো শুরু হয় বমি, কারো নাক-মুখ দিয়ে বের হতে শুরু করে রক্ত। এ সময় নির্যাতনের শিকার শিশুদের চিৎকারে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে মাদরাসাটি ঘেরাও করে। 

সোমবার (১৯ অক্টোবর) রাতে উপজেলার শংকুচাইল আশ্রাফুল উলুম হাফেজিয়া নুরানীয়া ফুরকানিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ওই শিশুদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। আটক করা হয় মাদরাসার সভাপতিসহ অভিযুক্ত চার শিক্ষককে। এ ঘটনায় এক শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। মঙ্গলবার সেই মামলায় তাদেরকে কোর্টের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে। 

অভিযুক্তরা হলেন- মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. বাদশা মিয়া, শিক্ষক মো. মোতালেব, মো. মিজানুর রহমান ও হাফেজ মো. সফিকুল ইসলাম।

মামলার বিবরণ ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন ছুটি কাটিয়ে ঘটনার দিন বিকেলে মায়ের সঙ্গে মাদরাসায় ফিরে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার জহিরুল ইসলামের ছেলে মো. আল-আমিন (১০)। এ সময় তার মা তাকে একটি চানাচুরের প্যাকেট কিনে দেন। কিছুক্ষণ পরে সেই চানাচুরের প্যাকেটটি খোয়া যায়। ওই শিশু মাকে ফোনে বিষয়টি জানালে তিনি মাদরাসার সভাপতি ও শিক্ষকদের জানান। 

যার পরিপ্রেক্ষিতে সন্ধ্যায় মাদরাসার সভাপতি ও শিক্ষকরা চানাচুর চুরির অভিযোগ এনে ওই শিশুদের ওপর নির্মম নির্যাতন চালায়।

বুড়িচং থানার ওসি মো. মোজাম্মেল হোসেন জানান, এ ঘটনায় মো. ফিরোজ মিয়া নামে এক শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন। মঙ্গলবার অভিযুক্তদের আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।

কুমিল্লার ধ্বনি