ব্রেকিং:
পাউবোর কাজে ধীর গতি, শত কোটি টাকার ক্ষতির আশঙ্কা অবশেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ত্রাণের সব তালিকা বাতিল বাজারে হামলা, দুই চেয়ারম্যানের পাল্টা পাল্টি অভিযোগ বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ চাঁদপুরে ১২৭ রিপোর্টে পজিটিভ ২০ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরো ২৩ জন করোনায় আক্রান্ত কুমিল্লায় নতুন করে ৪৭ জনের করোনা শনাক্ত সীমান্তের শিক্ষাগুরু আব্দুর রহমান চৌধুরী চলে গেলেন ঈদের দিন রাতের মধ্যেই কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করেছে কুসিক দেশে আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়ালো, একদিনে ২৭ মৃত্যু মরিতে চাহি না আমি সুন্দর ভুবনে স্বাস্থ্যের সাবেক ডিজি আবুল কালামকে দুদকে তলব মেজর সিনহার হত্যাকারীরা পার পাবে না সোশ্যাল মিডিয়ায় অস্থিরতা ছড়ালে ব্যবস্থা ওসি প্রদীপ গ্রেফতার দেশে একদিনে আরো ৩৯ মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ২৯৭৭ চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি গুজব করোনা চিকিৎসায় ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি ক্রয়ে কমিটি লেবাননে জরুরি খাদ্য ও চিকিৎসক পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ আজ থেকে আবার বাড়ল স্বর্ণের দাম
  • শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

৯০

রংপুর থেকে ধান কাটতে ১ হাজার শ্রমিক কুমিল্লায় আসছে

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২০  

দেশের হাওর ও দক্ষিণ অঞ্চলে আগাম বোরো ধান কাটতে রংপুর অঞ্চল থেকে শ্রমিক পাঠানোর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে প্রথম দফায়  রোববার (১৯ এপ্রিল) বিকেলে রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার  লক্ষিটারী উনিয়ন থেকে শতাধিক কৃষি শ্রমিককে নিয়ে দুটি বাস কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম ও সুনামগঞ্জ উপজেলার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।


বিষয়টি নিশ্চিত করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ আলী জানান, প্রতি বছর ধান কাটা মৌসুমে কয়েক হাজার কৃষি শ্রমিক দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় যায়।
রংপুর অঞ্চলে বোরো ধান কাটতে আরও অন্তত ১৫ দিন দেরি। অন্যদিকে দক্ষিণাঞ্চলে ধান ইতোমধ্যে পেকে যাওয়ায় কৃষি শ্রমিকের অভাবে ধান কাটা মাড়াই করা যাচ্ছে না।
এবার করোনা  ভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ায় এবং সড়কপথে যান চলাচল বন্ধ থাকাসহ বিভিন্ন কারণে রংপুর থেকে কৃষি শ্রমিকরা যেতে পারছে না।
এ অবস্থায় কৃষি শ্রমিক সংকট দূর করতে এবং কৃষি শ্রমিকদের দক্ষিণাঞ্চলে পাঠাতে  কৃষি মন্ত্রণালয় জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এ কারণে কৃষি শ্রমিকদের করোনার  মধ্যেও উদ্বুদ্ধ করতে নানানমুখী উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যারা যেতে রাজি হয়েছেন  তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় সনদপত্র সিভিল সার্জন দফতর থেকে গ্রহণ  করা হচ্ছে।
কৃষি শ্রমিকদের যাবার জন্য কোনো খরচ বহন করতে হবে না, সরকারি খরচে তাদের স্ব স্ব জেলা-উপজেলায় পৌঁছে দেয়া হবে।
তিনি আরও জানান, ইতোমধ্যে এ অঞ্চল থেকে এক হাজার কৃষি শ্রমিকের তালিকা করা হয়েছে। এরমধ্যে রোববার শতাধিক শ্রমিক পাঠানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ওই  অঞ্চলে আরও শ্রমিক পাঠানো হবে।
এছাড়াও রংপুর থেকে তিনটি কম্বাইন হারভেস্টার ধানকাটা মেশিনও পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় কৃষি শ্রমিকদের হাওরসহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন উপজেলায় পাঠানোর কাজ শুরু হয়েছে।  ইতোমধ্যে যেসব শ্রমিক সেখানে গেছেন তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে নিশ্চিত হওয়ার পর  স্বাস্থবিধি মেনে শ্রমিক পাঠানোর কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর