ব্রেকিং:
গার্ডেন থিয়েটার কুমিল্লার একক নাট্য প্রদর্শনী ৬৫ কোটি টাকার সেতুতে উঠতে হয় মই দিয়ে শোকে স্তম্ভিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি গ্রাম, প্রস্তুত ৫ কবর বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড, মা-মেয়েসহ কুমিল্লার ৬ জন নিহত বেইলি রোডে আগুনের ঘটনায় মামলা রমজানে ব্রয়লার মুরগি দাম ২৫০-৩০০ টাকা হওয়ার শঙ্কা ১০ রাষ্ট্রদূতকে দেশে ফেরার নির্দেশ ইঞ্জিন বিকল, উত্তরবঙ্গের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ শিল্প-পণ্য মেলা বন্ধ চেয়ে ডিসিকে ব্যবসায়ীদের চিঠি ‘বউ-শাশুড়ি বইঘর’ গড়তে ২০০ বই নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে নববধূ পুলিশের দুই মামলায় জামিন পেলেন লক্ষ্মীপুর বিএনপির সদস্য সচিব শখের মোটরসাইকেলেই প্রাণ গেল কলেজছাত্র মাহিনের সেনবাগে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩ রমজানে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যদের শপথ বুধবার এসএসসি পরীক্ষায় নকল দিতে গিয়ে ৩ যুবকের ২ বছর করে কারাদণ্ড ‘হামলা’ ও হেনস্থার বিচার দাবি কুবি শিক্ষক সমিতির প্রচারণায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ বিনা টিকিটে ভ্রমণ, ট্রেনের ভাড়া পরিশোধ করলেন প্রবাসী ঘুমন্ত মা-মেয়ের ওপর দুর্বৃত্তের অ্যাসিড নিক্ষেপ, আটক ১
  • রোববার ০৩ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

  • || ২১ শা'বান ১৪৪৫

রাতের আঁধারে প্রতিবন্ধীর জন্য ফল-মিষ্টি পাঠালেন এসপি

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩  

ঘড়ির কাঁটায় তখন রাত ১০টা ৭ মিনিট। প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদ বিছানায় কম্বল গায়ে শুয়ে আছেন। স্ত্রী জাহেদা খাতুন ঘরের সামনে একচালায় রান্নাবান্না করছেন। দুইটি দৃশ্য বাহির থেকে স্পষ্ট দেখা যায়। হঠাৎ কয়েকজন পুলিশ সদস্য ব্যাগ ভর্তি খাদ্যসামগ্রী নিয়ে প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদের ঘরে হাজির।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ১০টা ৭মিনিটে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার (৬ নম্বর ওয়ার্ড) শিল্পী কলোনি এলাকায় এমন ঘটনা ঘটে।

এসময় প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদের ভাড়া-বাসায় এসপির পক্ষ থেকে ফল, মিষ্টি ও খাবার নিয়ে যান শহর পুলিশ ফাঁড়ির (ইনচার্জ) জহিরুল আলম।

প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদ তাঁর স্ত্রী জাহেদা খাতুন ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালান।

সম্প্রতি লক্ষ্মীপুর পুলিশ লাইন্স মাঠে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে শীতবস্ত্র (কম্বল)  বিতরণ করা হয়। ওই মাঠে প্রতিবন্ধী আব্দুর রশিদকে নিয়ে যান তার স্ত্রী জাহেদা খাতুন। একটি জীর্ণশীর্ণ হুইলচেয়ার ছিল তাদের সঙ্গী। তখন পুলিশ সুপারের কাছে স্বামী-স্ত্রী দুইজনে একটি নতুন হুইলচেয়ার দাবি করেন। পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ স্বামী-স্ত্রীকে দেওয়া কথা ইতোমধ্যেই পূরণ করছেন। নতুন করে টিকসই মজবুত একটি হুইলচেয়ার উপহার পৌঁছে দেন।

প্রতিবন্ধী আবদুর রশিদ ও তার স্ত্রী জাহেদা খাতুন ঢাকা মেইলকে বলেন, অনেক দিনের আশাপূরণ করছেন এসপি স্যার। আল্লাহ ওনাকে সুস্থ রাখুক। ঝড়বৃষ্টিতে অনেক কষ্ট করে দুইজনকে ভিক্ষাবৃত্তি করতে হয়েছে ভাঙাচুরা হুইলচেয়ারে। এখন আর সমস্যা নেই। নতুন হুইলচেয়ার আমাদের চলার পথের সঙ্গী। স্যার অনেক ভালো মানুষ। এজন্য এ রাতের আঁধারে আমার জন্য আপেল, মাল্টা, মিষ্টি ও খাবার পাঠালেন।

লক্ষ্মীপুর শহর পুলিশ ফাঁড়ির (ইনচার্জ) জহিরুল আলম ঢাকা মেইলকে বলেন, দীর্ঘ ১৭ বছর বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত থাকার সুবাধে অনেক এসপির সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ হয়েছে। মাহফুজ্জামান আশরাফ স্যার সত্যিই মানবিক মানুষ। তিনি সবসময় মানুষের সঙ্গে মিলেমিশে থাকেন। স্যার আমাকে কিছু ফলমূল ও মিষ্টি আমার মাধ্যমে ভিক্ষুকদের জন্য পাঠালেন। অসহায় মানুষগুলোর কাছে এগুলো পৌঁছে দিতে পেরে আমারও এখন ভালো লাগছে।