ব্রেকিং:
একশ’ কোটি টাকা নিয়ে ভারতে পালালেন ব্যবসায়ী মুন্সেফ কোয়ার্টার এলাকার সড়কের নামফলক অপসারণ কুমিল্লা মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের কমিটি অনুমোদন ২০ লাখ টাকার দাবিতে বন্ধুকে অপহরণ, সাতদিন পর উদ্ধার গোসল করাকে কেন্দ্র করে সৌদিতে বাংলাদেশি যুবক খুন ‘দুর্নীতি দমনে সরকার আশাবাদী’ প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি পৌঁছেছেন ব্রাহ্মণপাড়ায় প্রান্তিক জনগোষ্ঠিদের মাঝে অনুদান বিতরণ কুবিতে সাংবাদিক হয়রানি ও লাঞ্ছনার বিচার চেয়ে মানববন্ধন কুমিল্লায় এ্যাম্বুল্যান্সের অবৈধ পার্কিংএ সৃষ্টি হচ্ছে যানজট লাকসাম রেলওয়ে জংশনের ষ্টেশন মাস্টারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ তিতাসে ৭ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা চান্দিনায় বেতন স্কেল বৃদ্ধির দাবীতে শিক্ষকদের মানববন্ধন চৌদ্দগ্রামে ৭ দফার দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন দেবিদ্বারে পুলিশের অভিযানে দুই গাঁজা ব্যবসায়ী আটক হোমনায় এনজিও কর্মীকে পিটিয়ে টাকা পয়সা ছিনতাই কুমিল্লায় নারীসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক মুরাদনগরে নিজের ড্রেজারের নৌকায় বালু ব্যবসায়ীর লাশ নাঙ্গলকোটে সরকারি খাল পাড়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বরুড়ায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণ

শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২১ মুহররম ১৪৪১

কুমিল্লার ধ্বনি
২১২

শিশুদের হাতে স্মার্টফোন, মদ-কোকেইনের মতোই ক্ষতিকর

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯  

মদ এবং কোকেইন যেমন ক্ষতিকর, শিশুদের জন্য স্মার্টফোন ঠিক তেমনটাই ক্ষতিকর। লন্ডনে অনুষ্ঠিত শিক্ষা বিষয়ক একটি সম্মেলনে বিশেষজ্ঞরা এমন মতামত দিয়েছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সন্তানকে স্মার্টফোন দেয়ার অর্থ হলো তাদের হাতে এক বোতল মদ কিংবা এক গ্রাম কোকেইন তুলে দেয়া। কারণ স্মার্টফোনে আসক্তি মাদকাসক্তির মতোই বিপজ্জনক।

সম্মেলনে আরো বলা হয়, স্ন্যাপচ্যাট ও ইনস্টাগ্রামে বন্ধুদের বার্তা পাঠানোতে সময় ব্যয় মাদক ও অ্যালকোহলে আসক্তির মতোই বিপজ্জনক হতে পারে। তাই মাদকাসক্তি দূর করতে যেমন পদক্ষেপ নেয়া হয় স্মার্টফোন আসক্তি থেকেও শিশুদের বের করে নিয়ে আসতে একই রকম চেষ্টা করা উচিত।

প্রযুক্তি আসক্তি ও কিশোর উন্নয়নের বিষয়ে বক্তৃতা করতে গিয়ে লন্ডনের হারলে স্ট্রিট রিহ্যাব ক্লিনিকের বিশেষজ্ঞ ম্যান্ডি সালিগ্যারি বলেন, স্মার্টফোনের পর্দায় শিশু-কিশোরদের সময় কাটানোর সে আসক্তি তা গুরুত্ব সহকারে দেখা হয় না। আমি সবসময় মানুষকে বলি আপনি যখন সন্তানকে ট্যাবলেট বা ফোন কিনে দিচ্ছেন আপনি আসলে তাদের এক বোদল মদ কিংবা এক গ্রাম কোকেইন কিনে দিচ্ছেন। বন্ধ দরজার পেছনে আপনি তাদের সবকিছু করার সুযোগ দিয়ে একলা ছেড়ে দিচ্ছেন। মাদক ও অ্যালকোহলের মতো এসব বিষয়ও একই মস্তিষ্কেই বিরূপ প্রভাব ফেলে। তারপরও কেন আমরা এ বিষয়গুলোতে কম গুরুত্ব দেই?

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
এই বিভাগের আরো খবর