ব্রেকিং:
দেশে করোনায় মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার ছাড়ালো, কমেছে আক্রান্ত এশিয়ার সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় ঢাবি ১৩৪তম বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়িয়েছে ম্যারাডোনা ফুটবলপ্রেমীদের হৃদয়ে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন যেভাবে মধ্যম আয়ের দেশ হতে পারে বাংলাদেশ বাংলাদেশে ‘বড় সম্ভাবনা’ দেখছে সুইজারল্যান্ড অজপাড়াগাঁয়ে বিদ্যুৎ, ঝলমলে জীবন বাজারদর সহনীয় রাখতে আরও পণ্য কিনছে টিসিবি করোনার ভ্যাকসিন পেতে ৭৩৫ কোটি টাকা ছাড় সরকার দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী চাকরিচ্যুত গণমাধ্যমকর্মীদের পুনর্বহালের উদ্যোগ নেয়া হবে বদলে যাবে ধারণা, ঢেলে সাজানো হচ্ছে বিটিভির অনুষ্ঠান আগামী মাস থেকে দেশে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা ১ শর্তে একদিনেই জোড়া লাগল ৪৭ দম্পতির সংসার নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে সরকার বদ্ধপরিকর ম্যারাডোনা: ফুটবলের জন্যই যার জন্ম চাঁদপুর-ফরিদগঞ্জে সড়কের বিভিন্ন স্থান যেন মরণ ফাঁদ ............. কুমিল্লার চান্দিনায় পৃথক অভিযানে মাদকসহ আটক ৩ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাস-পাওয়ারটিলার সংঘর্ষে নিহত ৩ প্রশাসনের মাইকিংয়ের পরদিনই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সরকারি বিল দখল
  • বৃহস্পতিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৭

  • || ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

১৩৯

সাড়ে ৬ লক্ষ টাকার বিদেশী কাজ দেশী প্রকৌশলী করলো মাত্র ১৬০ টাকায়

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০২০  

পাওয়ার গ্রিড উপকেন্দ্রের মেশিন মেরামতে সাফল্য দেখিয়েছে কুমিল্লায় কর্মরত প্রকৌশলীরা। মেশিনটি মেরামতে সাড়ে ৬ লাখ টাকা খরচ হতো। সেখানে বাংলাদেশী প্রকৌশলীরা ১৬০ টাকা ব্যয়ে সচল করেছেন বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের ডিসি কন্ট্রোল সিস্টেম।

সূত্র জানায়, কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার দেবপুরে অবস্থিত ২৩০/১৩২/১৩৩ (উঃ) গ্রিড উপকেন্দ্রেটি। এই উপকেন্দ্রে থেকে চট্টগ্রাম বিভাগে সবকটি জেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। বিদ্যুৎ উপ-কেন্দ্রটি থেকে মাইক্রো কন্ট্রোলার বেইজড, ব্যাটারি চার্জারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ হয়। গত ৭ অক্টোবর গ্রিড উপকেন্দ্রের ২২০ ভি ডিসি সিস্টেমটি বিকল হয়ে যায়। এটি ক্রয় করা হয়েছিলো সিঙ্গাপুরের এ ই জি কোম্পানি থেকে। সিঙ্গাপুরের ওই কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান, ব্যাটারি মেরামত করতে সাড়ে ৩ হাজার ডলার লাগবে। যা বাংলাদেশী টাকায় ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৪০০ টাকা। সম্মানি নিবে প্রায় ৩ লাখ টাকা। তবে কুমিল্লায় পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির প্রকৌশলীরা নিজেরা টানা ৩ দিন ধরে চেষ্টা করেন। অবশেষে ডিসি ২২০ ভি ডিসি সিস্টেমটি সচল করেন।

পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, বিদ্যুৎ মাইক্রো কন্ট্রোলার বেইজড ব্যাটারি চার্জারটি হলো উপকেন্দ্রটির প্রাণ। গত ৭ অক্টেবর মাইক্রো কন্ট্রোলার বেইজড ব্যাটারি অস্বাভাবিক কাজ করছিলো। এ পাওয়ার স্টেশন থেকে পুরো চট্টগ্রাম বিভাগে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। আমরা চিন্তিত হয়ে পড়ি। বিকল্প মেশিন দিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ হচ্ছিল। বিকল হয়ে যাওয়া মেশিনটি কেনা হয়েছিলো সিঙ্গাপুরের একটি কোম্পানি থেকে। প্রত্যেকটা মেশিনের ম্যানুফেকচারিংয়ে লেখা থাকে কিভাবে মেশিনটি পরিচালনা করা হবে। আমাদের বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের মেশিনটির যে স্থানে সমস্যা হয় তা কিভাবে মেরামত করতে হবে ম্যানুফেকচারিংয়ে সে বিষয়টি উল্লেখ ছিলো না। সিঙ্গাপুরের ওই কোম্পানি মেরামত ফি ও সম্মানি বাবদ প্রায় সাড়ে ৬ লাখ টাকা চেয়েছে। আমরা রাজি হয়নি। টানা ৩দিন গবেষণা–পর্যালোচনা করে ১৬০ টাকা ব্যয়ে রেজিস্টর ক্রয় করে মেশিনটি সচল করি। মেরামতের পরে আজ ১ মাস ৫ দিন মেশিনটি নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করে যাচ্ছে।

 এজন্য নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহাবুদ্দিন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী বেলাল হোসেন, উপকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী একেএম রেজাউল করিম ও উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ বশির উদ্দিনসহ উপকেন্দ্রের কারিগরি কর্মচারীরা ভূমিকা পালন করেছে।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর