ব্রেকিং:
এপ্রিলেই মিলবে ক্ষতিপূরণের ১২০ কোটি টাকা জাতিসংঘ শান্তিবিনির্মাণ কমিশনের সহ-সভাপতি হলো বাংলাদেশ রোজা উপলক্ষে ভারত থেকে ৩৮০০ মেট্রিক টন মসুর ডাল আমদানি বাংলাদেশ-ভারত অকৃত্রিম বন্ধু: প্রণয় ভার্মা গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ রাজস্ব ভাণ্ডার গড়ে তোলার ওপর প্রাধান্য দিচ্ছে সরকার সামাজিক সংগঠন চাঁদমুখ এর কমিটি গঠন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কোয়াটার উদ্বোধন মতলব দক্ষিনে পৌর শ্রমিক লীগের পরিচিতি সভা স্মার্ট রাজনীতিতে দেশের স্বার্থ সবচাইতে আগে প্রাধান্য পাবে ফরিদগঞ্জে বৃদ্ধকে কুপিয়ে জখম : আটক ১ মনোনয়ন প্রত্যাশী রেদওয়ান খান বোরহানের গণসংযোগ ১০ দফা দাবিতে বিএনপি কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশ আজ জনগণের মাঝে দীপু আপার উন্নয়নের কথা পৌঁছাতে হবে -আলী এরশ্বাদ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মায়া চৌধুরীর জন্মদিন পালিত কচুয়ায় আমিনুল ইসলামকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান শেখ হাসিনা সরকার আমলে কেউ কষ্টে নেই: এমপি রুহুল শেখ হাসিনা দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর জন্য কাজ করছে কচুয়ায় ৫১ বছর পর অবশেষে কাঠালিয়া গ্রামবাসীর স্বপ্ন পূরন বুড়িচংয়ে ১৬৮ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা
  • রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

সৈয়দ আশরাফের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৩ জানুয়ারি ২০২৩  

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী মঙ্গলবার।

সৈয়দ আশরাফ ২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর কারাগারে পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলামসহ জাতীয় চার নেতার নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর তিনি যুক্তরাজ্য চলে যান। প্রবাস জীবনে তিনি যুক্তরাজ্যে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। আশরাফুল ইসলাম ১৯৯৬ সালে দেশে ফিরে আসেন এবং কিশোরগঞ্জ সদর আসন থেকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এ সময় তিনি বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।ৎ

২০০১ সালের ১ অক্টোবরে অনুষ্ঠিত অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় তিনি নির্বাচিত হন এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনেও তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৫ সালের ১৬ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন। তিনি এক কন্যার জনক। তাঁর স্ত্রী শিলা ইসলাম ২০১৭ সালের অক্টোবরে মারা যান।

সৈয়দ আশরাফ ১৯৫২ সালের ১ জানুয়ারি ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম ১৯৭১ সালে মুজিবনগর সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি ছিলেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অন্যতম সংগঠক ছিলেন। সৈয়দ আশরাফ ছাত্র জীবনে ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। স্বাধীনতার পর তিনি ময়মনসিংহ জেলার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এছাড়া তিনি ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-প্রচার সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

আশরাফুল ইসলাম ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার যুদ্ধে অংশ নেন। তিনি মুক্তিবাহিনীর একজন সদস্য ছিলেন। ভারতের দেরাদুনে প্রশিক্ষণ নেন তিনি।