ব্রেকিং:
কুমিল্লা সমাবেশে রুমিনের মোবাইল ছিনতাই করল যুবদল কর্মী হাইমচরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মাঠে ডা:টিপু ও মেয়র জুয়েল চাঁদপুর শহরের গ্রীণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আজ বিশেষ মুনাজাতের মধ্যে শেষ হচ্ছে চাঁদপুর জেলা ইজতেমা মতলব উত্তর ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রামপুরে বিষ প্রয়োগে অসহার কৃষকের মাছ নিধন ‘গুসি শান্তি পুরস্কার’ পেলেন শিক্ষামন্ত্রী মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ মতলবের ধনাগোদা নদীতে কচুরিপানা জটে নৌ চলাচল বন্ধ ৩৫ বছরে শৈশবের স্বাদ, হতে চান উচ্চশিক্ষিত লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদলের ১৫১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দক্ষিণ আফ্রিকায় নোয়াখালীর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা অটোরিকশা-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ২ তরুণের মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীসহ ২ জনের মৃত্যু যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত বঙ্গবন্ধু টানেলে গাড়ি চলবে জানুয়ারিতে বিদেশিদের মন্তব্যে বিরক্ত সরকার আমনের বাম্পার ফলন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু
  • রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্ত্রী বললেন অপহরণ,পুলিশ গিয়ে দেখল হোটেলে পরটা খাচ্ছেন স্বামী

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২২  

নিখোঁজের ২০ দিন পর ঢাকা থেকে সজল কুমার রায় (৪৩) নামে এক কেমিক্যাল ব্যবসায়ীকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করে‌ছে পু‌লিশ। ঢাকা থেকে কিছু লোক ওই ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেছিলেন স্ত্রী। তবে উদ্ধারের পর ওই ব্যবসায়ী দাবি করেন, তিনি অপহৃত হননি, স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে ছিলেন। চট্টগ্রামে বন্ধুর সঙ্গে ঘুরছিলেন। উদ্ধারের পর তাকে ঢাকায় আনা হয়েছে। উত্তরা-পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহসীন মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সজল একজন কেমিক্যাল ব্যবসায়ী। গত ৪ অক্টোবর তার স্ত্রী থানায় অভিযোগ করেন, গত ৩ অক্টোবর সজল ডাক্তার দেখাতে বাইরে গেলে কিছু লোক তাকে তুলে নিয়ে যায়। ব্যবসার বিরোধের জেরে তাকে তুলে নেওয়া হতে পারে বলে তিনি দাবি করেন।

অভিযোগ পাওয়ার পরই উত্তরা পশ্চিম থানার একটি টিম তাকে উদ্ধারে নামে। প্রযুক্তির সহযোগিতায় তার অবস্থান চট্টগ্রামে নিশ্চিত হওয়া যায়। ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের ঝুঁকি মাথায় নিয়েই সজলকে উদ্ধারে চট্টগ্রামে পৌঁছায় পুলিশ। কিন্তু নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে দেখা যায়, ব্যবসায়ী সজল তার এক বন্ধুসহ সেখানে একটি হোটেলে পরটা-ভাজি খাচ্ছেন। তাকে কেউ অপহরণও করেনি।

উত্তরা প‌শ্চিম থানার ও‌সি মোহাম্মদ মোহসীন বলেন, পাওনাদারদের হাত থেকে রক্ষা পেতে নিজেই পালিয়ে গিয়ে অপহরণের নাটক সাজিয়েছেন। তিনি প্রথমে কিছুদিন গাজীপুর ছিলেন, এরপর মোহাম্মদপুরও থাকেন কয়েকদিন। এরপর চট্টগ্রামে চলে যান। এখানে এক বন্ধুর সাথে ঘুরছিলেন, ফিরছিলেন।