ব্রেকিং:
যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার নির্দেশ সেনাপ্রধানের ৩ শিশুকে যৌন নিপীড়ন আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে শিশু মৃত্যুর ঘটনা খাল ভরাট করে সড়ক চায় না কুসিক, মানছে না সওজ চাঁদপুর পালবাজার থেকে ‘প্লাস্টিকের চাল’ উদ্ধার নিয়ে ধুম্রজাল করোনায় কুমিল্লা দেবিদ্বার উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যু ভরাট হয়ে যাচ্ছে ৩০০ বছরের জংলিবিবি পুকুর কমিটি বিহীন চলছে আখাউড়া পৌর যুবদলের কার্যক্রম দেশে একদিনে কমেছে মৃত্যু, আক্রান্ত বেড়েছে ঘোষণা করা হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯ ৬৬ বছরে বাংলা একাডেমি বিজয়ের মাসেই পদ্মা জয়ের স্বপ্নপূরণ বাংলাদেশের ‘শান্তির সংস্কৃতি’রেজুলেশন জাতিসংঘে গৃহীত নকল টিকা নিয়ে ইন্টারপোলের সতর্কতা, বিশ্বব্যাপী শঙ্কা ২০২৫ সালের মধ্যে শিশুশ্রম মুক্ত হবে দেশ তৈরি হচ্ছে ৩ লাখ ৭০ হাজার স্লিপার রেমিট্যান্সের প্রণোদনায় শর্ত শিথিল আগামী ডিসেম্বরে রামপালের বিদ্যুৎ করোনা বিপর্যয়ের মধ্যেও দেশে জাপানি বিনিয়োগ পাওনাদী পেতে শুরু করেছে বাংলাদেশ জুট মিলের শ্রমিকরা
  • শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৭

  • || ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

১১১

হজের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন, আজ থেকে হজযাত্রীরা কোয়ারেন্টাইনে

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০২০  

বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে হজযাত্রীদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা স্বার্থে বেশ কিছু নতুন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। ওই পদক্ষেপের আওতায় প্রত্যেক হজযাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। তাদের প্রয়োজনীয় ভ্যাকসিনও দেয়া হয়েছে। হজযাত্রীরা রোববার থেকে সাতদিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা শুরু করেছেন। এর মধ্য দিয়েই হজের আনুষ্ঠানিকতার প্রথম ধাপ শুরু হলো। 

সাতদিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে ৩ জিলহজ মক্কায় এসে আরো চারদিনের কোয়ারেন্টাইন করবেন। এরপর ৮ জিলহজ বাদ ফজর মিনায় রওয়ানা হবেন। মিনাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হয় হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। ১২ জিলহজ পর্যন্ত, মিনা, মুজদালিফা, আরাফাতের ময়দান ও মক্কায় হজের বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে হয়।

রোববার ভোর থেকে মক্কার নির্দিষ্ট এলাকাসহ মিনা, মুজদালিফা ও আরাফাতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এসব স্থানে অনুমোদিত ব্যক্তি ছাড়া কেউ প্রবেশ করলে তাকে ১০ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা করা হবে। এসব এলাকার পবেশ পথে কড়া নিরাপত্তা ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যরা সড়কে টহল দিচ্ছেন। মিনা, মুজদালিফা ও আরাফাতের প্রবেশপথে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২৯ কিংবা ৩০ (৮ জিলহজ) জুলাই থেকে হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। হজের কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ ধরনের বিধিনিষেধ জারি থাকবে। কোভিড পরিস্থিতির কারণে হজযাত্রীদের মধ্যে যাতে ভাইরাস ছড়িয়ে না পড়ে সে জন্যে এ ধরনের কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

 

 

এদিকে সৌদি আরবের হজ ও উমরা মন্ত্রণালয় নিবন্ধিত হজযাত্রীদের প্রয়োজনীয় সামগ্রী পাঠিয়েছে। এসব সামগ্রীর বাইরে অন্য কিছু বহন করতে পারবে না হজযাত্রীরা। প্রয়োজনীয় সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- চিপলাগানো একটি স্মার্ট ব্রেসলেট, দুই সেট ইহরামের কাপড়, ব্যক্তিগত প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি, জামারাতে নিক্ষেপের জন্য জীবাণুমুক্ত কঙ্কর, জুতা, ফোনের চার্জার, জায়নামাজ, জুতার ব্যাগ, হাতব্যাগ এবং হজের বিধি-বিধানসহ প্রাসঙ্গিক বই-পত্র ও স্বাস্থ্যবিধি সম্বলিত হজ নির্দেশিকা। যাতায়াতের জন্য প্রতি ২০ জন করে একটি দল করা হয়েছে। প্রত্যেক বাসে বিশজন করে হজযাত্রী চলাফেরা করবেন।

 

 

এদিকে মিনা, জামারাত, মুজদালিফা ও আরাফাতের ময়দানে যে অংশ হাজিরা অবস্থান করবেন, সেসব স্থান জীবাণুমক্ত করা হয়েছে। মসজিদের হারামের ভেতরে ও বাইরের অংশে নামাজের কাতারে নামাজের সময় শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য স্টিকার লাগানো হয়েছে।

এবার হাজিরা মিনার তাঁবুতে থাকবেন না। মিনার নির্দিষ্ট ভবনগুলোতে তারা অবস্থান করবেন। এ ছাড়া তাওয়াফের সময় কাবা শরিফ স্পর্শ ও হাজরে আসওয়াদে চুমো দেয়া যাবে না। নির্দিষ্ট দূরত্বে থেকে তাওয়াফ ও সায়ী সম্পন্ন করতে হবে। তাওয়াফের সময দেড় মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। নামাজের জামাতেও দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড়াতে হবে। সর্বাবস্থায় হজযাত্রীদের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।

হজযাত্রীরা বাইরে থেকে কোনোপ্রকার খাবার বা পানীয় নিয়ে হজের রীতিনীতি পালন করতে পারবেন না। হজযাত্রীদের জন্য খাবার ও পানি কর্তৃপক্ষ সরবরাহ করবে।

কোরবানি সম্পন্ন করতে হবে ব্যাংকের মাধ্যমে। কোনো হজযাত্রী নিজে কোরবানির পশু ক্রয় কিংবা জবাই করতে পারবেন না। হজ ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত পরিবহন শ্রমিক, খাবার সরবরাহকারী ও স্বেচ্ছাসেবকদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। হজযাত্রী ও হজ ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িতদের শরীরের তাপমাত্রা নিয়মিত পরীক্ষা করা হবে। কারো মাঝে করোনার লক্ষণ প্রকাশ পেলে তাকে আইসোলেশনে পাঠানো হবে।

হারামাইন প্রেসিডেন্সি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এবারের হজের খুতবা পাঁচটি ভাষায় অনুবাদ করে সম্প্রচার করার। ভাষাগুলো হলো- ইংরেজি, ইন্দোনেশিয়ান, উর্দু, ফ্রেঞ্চ ও ফারসি।

কুমিল্লার ধ্বনি
ধর্ম বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর