ব্রেকিং:
‘শিক্ষা ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন নিয়ে ভাবছে সরকার’ ‘ক্রাইম পেট্রোল’ দেখে হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা সাজায় কিশোর গ্যাং ‘এবার চাকরি দেবে তরুণরা’ মাঠ প্রশাসনের কর্মচারীদের কর্মবিরতির কারণে অচলবস্থা নগরীর কাটাবিলে এক যুবককে কুপিয়ে আহত করলো ওয়ার্ড আ’লীগ নেতা মুজিব বর্ষ ভিক্টোরিয়ান্স টি-২০ ফাইনালে লড়বে বরুড়া-মনোহরগঞ্জ কুমিল্লায় মাদক উদ্ধারে পিছিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর চান্দিনায় মহিলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আলোচনা সভা যে কারণে গোপন বৈঠকে প্রথম আলো-ডেইলি স্টারে ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত প্রথম আলো-ডেইলি স্টারে ব্রিটিশ হাইকমিশনারের গোপন বৈঠক! ফের বাড়ল বিদ্যুতের দাম, ইউনিট ৭.১৩ টাকা অবশেষে নিয়ন্ত্রণে আসছে করোনাভাইরাস! ৬ প্রতিষ্ঠানকে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা নকল ওষুধ বিক্রির অভিযোগে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা দ্রব্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় সভা আটকাতে গিয়ে ডাকাত দলের গাড়ি চাপায় ব্যবসায়ী নিহত ইউপি সদস্যের বাড়ি থেকে এলজি ও কার্তুজ উদ্ধার পরীক্ষায় নকল সরবরাহের দায়ে শিক্ষকের কারাদণ্ড কুমিল্লায় অস্ত্রসহ তিন ডাকাত আটক কুড়িয়া পাওয়া সেই নবজাতকের নাম রাখা হলো মুজিবুর
  • শনিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪২৬

  • || ০৫ রজব ১৪৪১

৫৮০

হাঁসে হাসি-খুশির সংসার

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ১৭ আগস্ট ২০১৯  

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌর এলাকার উত্তর কলেজপাড়ার আশরাফ হোসেন। যার সংসারে অভাব ছিল নিত্যসঙ্গী। হঠাৎ একদিন টিভির পর্দায় এক বেকার যুবকের সফলতা দেখে তিনি হাঁস পালন শুরু করেন। এ হাঁস পালনেই এখন তার অভাব দূর হয়েছে।
আশরাফ আলী বলেন, সাইদুর ও রাকিব নামে দুই ছেলে রয়েছে। তারা মাধ্যমিকে লেখাপড়া করে। আর মেয়ে সোনিয়ার বিয়ে দিয়েছি। প্রায় ৩০ বছর ধরে মালামালের বস্তা গাড়িতে ওঠা-নামার কাজ করে সংসার চালিয়েছি। কিন্তু বয়স বেড়ে যাওয়ায় বোঝা বহনের কাজ করতে খুব কষ্ট হতো। তাই সব সময় পেশা পরিবর্তনের কথা ভাবতাম। টেলিভিশনে একদিন এক হাঁস খামারির সফলতার গল্প শুনে উৎসাহিত হই। পরে নিজেই হাঁসের খামার করি। প্রতিদিন যে ডিম পাচ্ছি তা বিক্রি করে সংসার চালাই।

তিনি আরো বলেন, আমার বসতবাড়ির পাশেই রয়েছে নিচু জমির ঝিল। সেখানে কোনো ফসলই ভালো হয় না। তবে হাঁস ঘুরে বেড়ানোর মত উপযুক্ত স্থান। এটা মাথায় রেখেই জমির মালিকদের সঙ্গে কথা বলি। তাদের প্রতি বছর বিঘা প্রতি সাত হাজার টাকার চুক্তিতে পাঁচ বছরের জন্য ৮ বিঘা জমি বর্গা নেই। এরপর  প্রায় ৭০ হাজার টাকা খরচ করে ২০১৬ সালের নভেম্বরে বাসা বাড়ির সামনে বাঁশের মাচা এবং গোলপাতার ছাউনির দুটি লম্বা ঘর নির্মাণ করি। ২০১৭ সালের প্রথম দিকে ১০০ টাকা দরে ৩শ বেলজিয়াম জাতের হাঁসের বাচ্চা কিনি।

তিনি বলেন, এর আড়াই মাস পর পাবনার চাটমোহল হ্যাচারি থেকে ৩০ টাকা দরে আরো ৪শ খাকি ক্যাম্বেল জাতের হাঁসের বাচ্চা কিনি। বিভিন্ন সময়ে রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রায় শতাধিক হাঁস মারা গেছে। বর্তমানে হাঁসগুলো ডিম দিচ্ছে। প্রতিদিন সাড়ে ৩শ’ থেকে ৪শ’ ডিম পাচ্ছি।

আশরাফ আরো বলেন, এখন আমার ছোট-বড় মিলে প্রায় ৯শ’ হাঁস রয়েছে। প্রতিদিন খাবার বাবদ ১ হাজার আর ওষুধ বাবদ ২শ’ টাকা খরচ হচ্ছে। ডিম পাচ্ছি সাড়ে তিনশ বা চারশ। বাজারে প্রতি ডিম ১০ টাকায় বিক্রি করি। এ পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। ডিম বিক্রি করেছি কমপক্ষে ১২ লাখ টাকার।

আশরাফের স্ত্রী নারগিছ বেগম বলেন, হাঁস বর্ষা মৌসুমে একটু বেশি জায়গা নোংরা করে। আর রোগে যখন মারা যায় তখন মন কাঁদে। তাছাড়া হাঁস পালন করা কঠিন কোনো কাজ নয়। মনের একটা সখও পূরণ করা যায়।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আতিকুজ্জামান বলেন, আশরাফের হাঁসের খামার পরিদর্শন করেছি। তিনি খুব পরিশ্রমী ও আশাবাদী। আশরাফ যখন আমার কাছে আসেন সাধ্যমতো তার সমস্যা সমধানের চেষ্টা করি।

কুমিল্লার ধ্বনি
কুমিল্লার ধ্বনি
উন্নয়ন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর