ব্রেকিং:
পানিতে ডুবে চাচাতো জেঠাতো ভাইয়ের করুণ মৃত্যু কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ ৮ বিভাগে কেন্দ্র করে স্ব-শরীরে নেয়া হবে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা পুনর্নির্ধারণ হচ্ছে আলুর দাম: কৃষিমন্ত্রী ধর্ষণ প্রতিরোধে বিশিষ্ট নাগরিকদের সাত প্রস্তাব দেশে করোনায় একদিনে আক্রান্ত-মৃত্যু কমেছে ‘ধর্ষণসহ নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার’ তরুণরাই উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়ার হাতিয়ার: পলক একনেকে ১৬৬৮ কোটি টাকার ৪ প্রকল্পের অনুমোদন প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে দশ বছরের শিশুকে ২৫ বছর দেখিয়ে ধর্ষণ মামলা যেভাবে গ্রেফতার হল শিশু পর্নোগ্রাফি চক্রে জড়িত তিন ছাত্র বিশ্ব পরিসংখ্যান দিবস আজ সাগরের বুকে জেগে ওঠা এক টুকরো শহর মেঘনায় ইলিশ শিকারী ৫৫ জেলের জেল-জরিমানা আখাউড়া স্থলবন্দরে ৭ দিন আমদানি-রফতানি বন্ধ জাতীয় সংগীত বিকৃত করায় মাদরাসার কার্যক্রম বন্ধ সারাদেশে শুরু হলো কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে অভিযান রায়হানকে নির্যাতনের রোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা অ্যাপের মাধ্যামে জানা যাবে মামলার সর্বশেষ তথ্য কিশোরীরাই টার্গেট, নগ্ন ভিডিও যায় ‘ডার্ক সাইটে’
  • বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৭

  • || ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

২৪৯

হৃদয়বিদারক কান্নার পর ভুবনভোলানো হাসি ফজলুরের মুখে

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২০  

বুকে ছোট্ট ব্যাগ জড়িয়ে এক ব্যক্তির আর্তনাদের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে। ছবি দেখে প্রথমাবস্থায় মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হলেও ভিডিও দেখে সবার ভুল ভাঙে। তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন নয়, পেশায় একজন রিকশাচালক। ঋণের টাকায় কেনা রিকশা হারিয়ে দিশেহারা মো. ফজলুর রহমান।

রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে অটোরিকশা চালাতেন ফজলুর রহমান। বাবা-মা, বোন ও দুই ভাগ্নির সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম তিনি। তাদরে মুখে দু'মুখো খাবার তুলে দিতে কিছুদিন আগে ৮০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে রিকশাটি কিনেন তিনি। এটিই ছিল একমাত্র সম্বল।

এদিকে রাজধানীতে অটোরিকশা চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আর এরই প্রেক্ষিতে ঘোষণা দিয়ে অভিযানও চালাচ্ছে সিটি কর্পোরেশন। অভিযানের অংশ হিসেবে সোমবার রাজধানীর ঝিগাতলা এলাকায় অভিযান চালায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। 

ফজলুর রহমান হয়তো সেই ঘোষণা জানতেন না বা জেনেও অমান্য করেছেন। ফলে তার রিকশা তুলে নিয়ে যায় সিটি কর্পোরেশনের কর্মীরা। একমাত্র সম্বলের জন্য কান্নায় ভেঙে পড়েন ফজলুর। কান্নাজরিত কন্ঠে বলেন, ‘গাড়ি তো লইয়া গেল। ৮০ আজার ট্যাহার কিস্তি কি কইরা দিমু? কি কইরা খামু...?’

‘কি করমু, গলায় দড়ি দিমু।’

ওই অভিযানে এমন সম্বল হারান অনেক রিকশাচালক। তবে ঋণে জর্জরিত ফজলুরের কান্নাই সবাইকে ভাবিয়ে তোলে। এরইমধ্যে একজন ফজলুর রহমানকে একটি নতুন রিকশা কিনে দেয়া হবে বলে নিশ্চিত করেন। 

অবশেষে হাসি ফুটেছে সেই ফজলুর রহমানের মুখে। আজ খুশিতে চকচক করছে তাই দুঃখ ভরা সেই চোখ দুটি।

কুমিল্লার ধ্বনি
ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর