ব্রেকিং:
রাজনীতির সীমানা পেরিয়ে শেখ হাসিনা কালজয়ী রাষ্ট্রনায়ক: কাদের ভুল নীতিতে ডুবছে পাকিস্তান, সঠিক নীতিতে এগোচ্ছে বাংলাদেশ চলমান ‘লকডাউন’ ২৩ মে পর্যন্ত বাড়ছে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর নামে সড়ক, শেখ হাসিনার নামে বাড়ি ফিলিস্তিনে পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন, বাংলাদেশিদের রবিবার থেকে এনওসি দেওয়া হবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের চার দশক পূর্তিতে তথ্যচিত্র ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘টাউকটে’ তিন ওয়ানডে খেলতে ঢাকায় শ্রীলংকা ক্রিকেট দল ইসরায়েলকে সমর্থন জানিয়ে বাইডেনের ফোন ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলায় নিহত বেড়ে ১৪৯ ফের বাড়ল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ঈদ উপলক্ষে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার আরো সাতদিন বাড়ছে লকডাউন, রোববার প্রজ্ঞাপন করোনায় ভাই হারালেন মমতা ব্যাংক-বিমা ও শেয়ারবাজার খুলছে কাল গাজায় ৪০ মিনিটে ৪৫০ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল ইসরায়েল স্বাস্থ্যবিধি পালনে সর্বোচ্চ সতর্কতার আহ্বান কাদেরের দেশেই টিকা উৎপাদনের ব্যবস্থা নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী উপকূলের ঘরে ঘরে ডিজিটাল ব্যাংক ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফেরার ব্যবস্থা ঈদের পর
  • রোববার   ১৬ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

২৫দিন পর লাশ হয়ে বাড়ি ফিরল স্বাধীন

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২১  

‘বাড়িতে ফিরতে রাত হবে, মা তুমি চিন্তা কইরো না।’ এরপর রাত সাড়ে ৮টায় অলিউল্লাহ স্বাধীন ফোন করে জানান, ‘মা আমি চট্টগ্রাম যাইতাছি, নতুন চাকরি হইছে’। ‘তোর সাথে আর কে আছে?’ মা জানতে চাইলে স্বাধীন বলে, তুমি অত কিছু বুজবা না আমি সকালে ফোনে সব জানাবো, তোমরা চিন্তা কইরো না।’ বলেই লাইন কেটে দেয় স্বাধীন। মায়ের সাথে এটিই ছিলো তার শেষ কথা। ২৫দিন পর বাড়ি ফিরল স্বাধীন তবে জীবিত নয় লাশ হয়ে।

হাফেজ অলিউল্লাহ স্বাধীনের গ্রামের বাড়ি দেবিদ্বার উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের বিষ্ণপুর গ্রামে। বাবা মোবারক হোসেন একজন কৃষক। সাত ভাই বোনের মধ্যে স্বাধীন সবার ছোট। ঘাতক আরিফুল ইসলাম প্রথমে চট্টগ্রামে তাকে ভালো বেতনে চাকরি দিবে বলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়।

স্বাধীনকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রথমে চট্টগ্রামে এবং পরে বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসী পাড়া ইউপির দুর্গম এলাকা শিংঝিড়িতে ঘুরতে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাকে সেখানে আটকিয়ে তার ফোন নম্বর থেকে স্বাধীনের বাড়িতে একের পর এক ফোন করে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ চাইতে থাকে আরিফ ও ফয়েজ নামে দুই ব্যক্তি।  

এভাবে ফোনে টানা দুইদিন মুক্তিপণের টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে তারা। স্বাধীনের মা-বাবা প্রতিবারই ছেলের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তাকে না দিয়ে বলা হয় আগে বিকাশে টাকা পাঠাও তা না হলে স্বাধীনকে জীবন্ত মাটিতে পুঁতে ফেলা হবে।

 

থামছে না স্বাধীনের বাবা-মায়ের আহাজারি

থামছে না স্বাধীনের বাবা-মায়ের আহাজারি

স্বাধীনের বাবা-মা টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় রাতের কোনো এক সময় স্বাধীনের গলায় পেন্টের বেল্ট লাগিয়ে আধমরা অবস্থায় শিংঝিড়িতে এলাকায় মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়। এরপর থেকে স্বাধীনের ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সকালে স্বাধীনের বড় ভাই মো. জিলানি বুড়িচং থানায় একটি জিডি করেন।  

জিডির সূত্রধরে স্বাধীনকে খুঁজতে থাকে বুড়িচং থানা পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে বান্দরবানের লামা উপজেলার বেতঝিরি গ্রামে ফয়েজের শ্বশুরবাড়ি থেকে ঘাতক ফয়েজ ও আরিফুল ইসলামকে আটক করে বুড়িচং থানা পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ২৫ দিন পর বুধবার রাত ২টার দিকে শিংঝিড়ি এলাকার দুর্গম পাহাড় থেকে মাটিচাপা দেয়া অবস্থায় স্বাধীনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 

আটক আরিফুল ইসলাম কসবা উপজেলার মদন খা’র ছেলে। সম্পর্কে অলিউল্লাহ স্বাধীনের ফুফাতো ভাই। ছোট বেলায় বাবা মারা যাওয়ায় মাকে নিয়ে দেবিদ্বার উপজেলার বিষ্ণপুর নানার থাকতো আরিফুল ইসলাম। অপর আটক ফয়েজ বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউপির খাড়াতাইয়া গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে।     

ঘাতক আরিফুলের মা সুফিয়া বেগম বলেন, ছেলেকে কয়েকদিন আগে কুমিল্লা ইপিজেডে চাকরি করার জন্য আমি নিজে গিয়ে দিয়ে আসি। সে কার চক্রে পড়ে এমন ঘটনা ঘটালো আমি কিছুই জানি না।

নিহত হাফেজ স্বাধীনের বাবা মো. মোবারক মিয়া বলেন, আমার জানাজা পড়াবে বলে ছেলেকে মাদরাসায় পড়িয়েছিলাম। সে ৩০ পাড়া কোরআনে হাফেজও হয়েছিলো। ছেলেকে চাকরি দেয়ার কথা বলে নিয়ে আরিফ ও ফয়েজ আমার ছেলেকে জীবন্ত মাটিচাপা দিয়ে মেরে ফেলেছে। আমি হত্যাকারীদের বিচার চাই। 

বুড়িচং থানার ওসি জানান, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আমাদের থানা পুলিশ বান্দরবানে গিয়ে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য বের করেছে। ঘটনাস্থল লামা থানায়, তাই ওই থানায় এ বিষয়ে হত্যা মামলা হয়েছে।