সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

নারী-পুরুষের দৈহিক পার্থক্য

কুমিল্লার ধ্বনি

প্রকাশিত : ১০:৫০ এএম, ৯ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার

সমগ্র মানব দেহকে আমরা নারী ও পুরুষ হিসেবে ভাগ করতে পারি। নারী ও পুরুষ একই উপাদানে সৃষ্টি হওয়ার পরও দুইয়ের মাঝে রয়েছে দৈহিক দিক দিয়ে ব্যাপক পার্থক্য। 

প্রধান কয়েকটি পার্থক্য তুলে ধরা হলো-

(১) মেয়েদের শরীর চুম্বকধর্মী আর পুরুষের শরীর বিদ্যুৎধর্মী।

(২) মেয়েদের শরীর অম্লধর্মী পুরুষের শরীর ক্ষারধর্মী।

(৩) রক্তের লাল কণিকা মেয়েদের চাইতে পুরুষের অনেক বেশি। পুরুষের এক কিউবিক মিলিমিটার রক্তে ৫০ লক্ষ রক্ত কণিকা থাকে এবং মেয়েদের থাকে ৪৫ লক্ষ।

(৪) মেয়েদের হৃদপিন্ড পুরুষের হৃদপিন্ড হতে ওজনে ৬০ গ্রাম কম।

(৫) নাড়ীর স্পন্দন পুরুষের চেয়ে নারীর মিনিটে ৫টি বেশি।

(৬) পুরুষের শরীর সামনের দিকে ভারী আর নারীর শরীর পেছনের দিকে ভারী। এজন্য নারীর মৃতদেহ পানিতে ভাসে চিৎ হয়ে আর পুরুষের মৃতদেহ ভাসে উপুড় হয়ে। আর এজন্য নারীরা হাইহিল জুতো পরে স্বাচ্ছন্দে হাটতে পারে।

উপরে উল্লেখিত পার্থক্য ছাড়াও এত বেশি পার্থক্য রয়েছে যা ক্ষুদ্র পরিসরে তুলে ধরা সম্ভব নয়।